অজানা পথে-১১ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

অজানা পথে-১১

প্রকাশিত: ৯:৩৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০২০

অজানা পথে-১১

লতিফ নুতন
আওয়ামী লীগের সিলেট বিভাগের নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগটনিক সম্পাদক,সাবেক ছাত্রনেতা শফিকুল ইসলাম শফিককে সু-স্বাগতম ও অভিনন্দন। প্রাণের চেয়ে প্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি,আমি যখন ছাত্রলীগের কর্মী ছিলাম তখন শফিকুল ইসলাম শফিক ছিলেন আমাদের কেন্দ্রীয় নেতা। শফিকুল ইসলাম শফিকের ডায়নামিক নেতৃত্ব সিলেট বিভাগে আওয়ামীলীগের সাংগটনিক কার্যক্রম আরো জোরদার হবে।

এছাড়া আমাদের সিলেটের কৃতিসন্তান ময়মনসিংহ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগটনিক সম্পাদক,সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শফিউল আলম নাদেল অবশ্যই শফিকুল ইসলাম শফিকে সহযোগীতা করবেন। ইতিপূর্বে আহমদ হোসেন যে দায়িত্ব পালন করেছেন তা সিলেট আওয়ামীলীগের জন্য স্বর্ণাক্ষরে লিখা থাকবে। আমাদের সবার প্রাণ প্রিয় নেত্রী,জাতির জনকের কন্যা,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক,প্রিয় নেতা মাহবুবুল আলম হানিফকে পুনরায় সিলেট বিভাগের দায়িত্ব দেওয়ায় সিলেট আওয়ামীলীগ উৎফুল্ল। সবাই স্বাগত জানাচ্ছে সিলেটের বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে।

সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগটনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শফিক তেমন কঠিন পরীক্ষায় অবতীর্ণ হবেন না আশা করি। আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক,প্রিয় নেতা মাহবুবুল আলম হানিফ ও সাংগটনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন সিলেট বিভাগে ঘর গোছানো রেখেছেন। সিলেট আওয়ামীলীগের বর্তমান নেতৃত্ব দক্ষ,কর্মট ও ক্লীন ইমেজের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,আওয়ামীলীগ সভানেত্রী গত ৫ ডিসেম্বর সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের যে নতুন নেতৃত্ব দিয়েছেন তাতে তর্ণমূল নেতৃত্বের আশার আলো হয়েছে। নেই কোন ফেষ্টুন,বিল বোড। নেই কোন হই হুল্লা। সিলেটের বর্তমান নেতারা কেহর কাছ থেকে ফুল নিচ্ছেন না। তাতে অনুপ্রেবেশকারীরা আত্মগোপন করেছে। দরবার হল গুলো বন্ধ হয়ে গেছে। নেই কোন তদবিরালয়। জেলা ও নগর আওয়ামীলীগের নতুন নেতৃত্বে ত্যাগী নেতা-কর্মীদের দিয়ে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগৈর পুনাঙ্গ কমিটি হবে।

গত ৫ জুলাই ২০১৯ সাল থেকে সিলেট বিভাগ জুড়ে চলছে উৎসব। অনুপ্রেবশকারীরা দলের পদে আসছে না। যারা দীর্ঘ দিন দুনীর্তি,সন্ত্রাস,চাঁদাবাজী,করেছে তারা আর কমিটিতে থাকছে না। চুলচেরা বিশ্লেষন করে পুনাঙ্গ কমিটি হবে। সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের নব নির্বাচিত সভাপতি,জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান নির্ভেজাল নেতা। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক,জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান কর্মী বান্ধব নেতা।

৯২ সালে আমার সুযোগ হয়েছিল নাসির ভাইয়ের সাথে আমি সিলেট শহর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেছি। হাটি হাটি পা পা করে সিলেট শহরে নাসির ভাই ছাত্রলীগকে সংগঠিত করেছেন। আওয়ামীলীগের সাংগটনিক সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শফিউল আলম নাদেল ও নাসির উদ্দিন খান জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক থাকা কালে সিলেট ছাত্রলীগের প্রাণ ফিরে পেয়েছিল। আজ সিলেট আওয়ামীলীগে শুদ্ধি অভিযান হয়েছে।

সিলেট জেলা কমিটি থেকে আমাদেরকে মানসিক ভাবে শেখার অনেক কিছু আছে। সিলেটবাসী আজ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার দুরদূর্শি সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে ও অভিনন্দিত করেছে। প্রধানমন্ত্রী যে বঙ্গবন্ধু’র কন্যা আজ আবার প্রমাণিত হয়েছে।

সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের নব নির্বাচিত সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ কর্মী বান্ধব একজন বর্ষিয়ান নেতা। মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর সেনানী মাসুক উদ্দিন আহমদ নগর আওয়ামীলীগের সভাপতি করায় উৎফুল্ল নগরবাসী। নতুন মুখের অপেক্ষায় ছিল নগর আওয়ামী লীগ। নব নির্বাচিত সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক ছিলেন দলের দুর্দিনে আধ্যাপক জাকির ছাত্রলীগের হাল ধরে ছিলেন। আমি তখন শহর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক ছিলাম। দক্ষ,কর্মট ক্লীন ইমেজের নেতা জাকির ভাই সাধারন সম্পাদক হওয়ায় দলের তুণমূলের সাবেক ছাত্রনেতারা প্রাণ ফিরে পেয়েছে।

সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগটনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শফিক ভাইয়ের কাছে কামনা সিলেটে আওয়ামী লীগ,যুবলীগ,স্বেচ্ছাসেবকলীগ,শ্রমিকলীগ,ছাত্রলীগে যারা অনুপ্রেবশকারী ঢুকেছে তাদেরকে তাড়িয়ে দেওয়া। জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগ নতুন কমিটি,মেয়াদ উত্তীর্ণ স্বেচ্ছাসেবকলীগের নতুন কমিটি ঘোষনা করা। যুবলীগের পুনাঙ্গ কমিটি। কিভাবে জেলা ও নগর যুবলীগের কমিটি হয়েছে তা নিয়ে মাননীয় নেত্রীর কাছে তুলে ধরা। জেলা শ্রমিকলীগের সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি করা। এঠাই হচ্ছে তৃণমূল আওয়ামীলীগের প্রত্যাশা।

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল