অতি উৎসাহী ও বিএনপির নিয়ন্ত্রনহীন সিলেট ছাত্রদল – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

অতি উৎসাহী ও বিএনপির নিয়ন্ত্রনহীন সিলেট ছাত্রদল

প্রকাশিত: ৫:২০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৮

অতি উৎসাহী ও বিএনপির নিয়ন্ত্রনহীন সিলেট ছাত্রদল

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)’র চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ওলিকুল শিরোমনি হযরত শাহজালাল ও শাহপরাণ সহ ৩৬০ আউলিয়ার পূণ্যভূমিতে সফরে আসেন গতকাল ৫ই ফেব্র“য়ারী।
সড়ক যোগে গাড়ি বহর নিয়ে সিলেট হযরত শাহ্জালাল (রঃ) ও হযরত শাহ্ পরাণ (রঃ) মাজার জিয়ারতে আসলে বিকাল আনুমানিক ৪.৩০ মিনিটের সময় সিলেট সার্কিট হাউসে প্রবেশ করেন। প্রবেশের পূর্ব পর্যন্ত সার্কিট হাউসের প্রধান গেইটে কঠোর নিরাপত্তা ও প্রবেশে বাঁধা প্রদান করেন স্থানীয় বিএনপি। চেয়ারপার্সন প্রবেশ পর পর পরিস্থিত হয়ে উঠে নিয়ন্ত্রনহীন। ছাত্রদলের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মীরা ঘিরে ফেলে চেয়ারপার্সনের গাড়ি। প্রায় আধা ঘন্টা অপেক্ষা করে কিছুটা ফাঁকা করে দেওয়ার পর গাড়ি থেকে নামেন চেয়ারপার্সন। সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে ছাত্রদলের নেতা কর্মীদের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্ঠি ও টেলা ধাক্কার কারণে চেয়ারপার্সনের জন্য অপেক্ষমান দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ও জেলা মহানগর বিএনপি শুভেচ্ছা জানাতে পারেন নি। সার্কিট হাউসে বিরূপ পরিস্থিতির কারণে হাঁপিয়ে পড়েন দলের সিনিয়র নেতা ইনাম আহমদ চৌধুরী, এম এ হক সহ স্থানীয় অনেক নেতৃবৃন্দ। গুরুতর আহত হন ফটো সাংবাদিক আবু বক্কর। দেখা যায় এক সাবেক ছাত্রদল নেতার অশুভ আচরণ। যা আশা করেন নি কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় বিএনপির নেতৃবৃন্দ। নিজেকে উপস্থাপন করতে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করেন সাবেক এই ছাত্রদল নেতা। সিলেট সার্কিট হাউসের পরিস্থিতি দেখে হতবাক সবাই। আর পুণরায় প্রমান মিলেছে সিলেট বিএনপির নিয়ন্ত্রনহীন অবস্থ্ায় সিলেট ছাত্রদল।
এসময় দলের এক কর্মী বলেন আজকের এই অবস্থা দেখে মনে পড়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক, সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নিখোঁজ জননেতা এম ইলিয়াস আলীকে। এই নেতাকে সিলেটবাসী ও দলের ত্যাগী পরিশ্রমী নেতাকর্মীদের খুব বেশে মনে পড়ছে। তিনি উপস্থিত থাকলে এধরনের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি হতো না।