অবশেষে তফসিল ঘোষণা হলো ফেঞ্চুগঞ্জে ইউপি নির্বাচনের – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

অবশেষে তফসিল ঘোষণা হলো ফেঞ্চুগঞ্জে ইউপি নির্বাচনের

প্রকাশিত: ৮:৩২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৮

অবশেষে তফসিল ঘোষণা হলো ফেঞ্চুগঞ্জে ইউপি নির্বাচনের

ফেঞ্চুগঞ্জ প্রতিনিধি : সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে সুদীর্ঘ ১৫ বছর পর ইউনিয়ন পরিষদের তফসিল ঘোষণা করলো নির্বাচন কমিশন। মামলার গ্যাঢ়াকলে আটকে থাকায় ২০০৩ সালের পর ফেঞ্চুগঞ্জে আর কোন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারী) নির্বাচন ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয়-২ এর সিনিয়র সহকারী সচিব মোঃ ফরহাদ হোসেন স্বাক্ষরিত ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মেয়াদ উত্তীর্ণ ও পুনর্গঠিত হওয়ার কারণে সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে নবগঠিত ২ টি ইউনিয়নসহ ৫ টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৯ মার্চ। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ১ মার্চ। বাছাই ৪ ও ৫ মার্চ ও প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১২ মার্চ । সুদীর্ঘ ১৫ বছর পর ভোটের অধিকার ফিরে পেয়ে আনন্দ বিরাজ করছে ফেঞ্চুগঞ্জের সর্বত্র। জানা যায়, ২০০৩ সালের ৪ জানুয়ারী ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার ৩ টি ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ২০০৮ সালে এর মেয়াদ শেষ হলেও কোন নির্বাচন অনুষ্ঠিত না হওয়ায় পরবর্তীতে ২০১১ সালের ৭ এপ্রিল এক গেজেট নোটিফিকেশনের মাধ্যমে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় ৩ টি ইউনিয়নকে ৫ টি ইউনিয়নে রুপান্তরীত করা হয়। এই গেজেট নোটিফিকেশনে বর্ধিত ৫ নং উত্তর ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়নে উত্তর ইসলামপুর গ্রাম অন্তর্ভূক্ত না হওয়ায় ঐ গ্রামের বাসিন্দা সিরাজ মিয়ার ছেলে জামাল মিয়া ২০১১ সালের ২৯ নভেম্বর মহামান্য হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দাখিল করেন, এরই প্রেক্ষিতে মহামান্য হাইকোর্ট ২০১১ সালের ৭ এপ্রিল এ প্রকাশিত ৫ টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত গেজেট নোটিফিকেশনকে অবৈধ ঘোষনা করে ৫ নং উত্তর ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়নকে স্থগিতাদেশ প্রদান করেন। এর ফলে বন্ধ হয়ে যায় ফেঞ্চুগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। পরবর্তীতে ২০১৪ সালের ৬ ফেব্র“য়ারী ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসীল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এর দু’দিন পর অর্থাৎ ৯ ফেব্র“য়ারী একই ইউনিয়নের মানিককোনা গ্রামের মৃত তমিজ উদ্দিনের ছেলে আব্দুস সালাম মহামান্য হাইকোর্টে অনুরুপ একটি রিট পিটিশন দাখিল করেন। ৫ টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত এই গেজেট নোটিফিকেশনে ভূল থাকায় মহামান্য হাইকোট এ বছরের ১৮ ফেব্র“য়ারী ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসীল ৩ মাসের জন্য স্থগিত ঘোষনা করেন। ফলে একটির পর একটি মামলার বেড়াজালে আটকে যায় ফেঞ্চুগঞ্জে স্থানীয় সরকার নির্বাচন। সেই থেকে ভোটের অধিকার থেকে বঞ্চিত হন ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলাবাসী। এক প্রতিক্রিয়ায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি সুফিয়ানুল করিম চৌধূরী, সাবেক সভাপতি তাজুল ইসলাম, প্রবাসি কমিউনিটি নেতা ময়নুল ইসলাম চৌধূরী হারুন ও উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চ ফেঞ্চুগঞ্জের সভাপতি শাহ বদরুল ইসলাম জানান, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলাবাসীর ভোটের অধিকার আদায়ে মামলার জট খুলতে ফেঞ্চুগঞ্জবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে মাঠে নামেন বাংলাদেশের সহকারি এটর্নি জেনারেল ও ফেঞ্চুগঞ্জের কৃতি সন্তান এডভোকেট আব্দুর রকিব মন্টু। দীর্ঘ এক বছরের নিরলস পরিশ্রমে অবশেষে তফসীল ঘোষণা হলো ফেঞ্চুগঞ্জের ৫ টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের। এডভোকেট আব্দুর রকিব মন্টু’র প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তারা। পাশাপাশি এডভোকেট অাব্দুর রকিব মন্টুর সাথে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন ফেঞ্চুগঞ্জের জনপ্রিয় অাওয়ামীলীগ নেতা ও ২ নং মাইজগাঁও ইউপির সাবেক সফল চেয়ারম্যান মরহুম তজমুল অালীর বড় ছেলে শ্রমিক নেতা দিদারুল হাসান সিহাব সহ ফেঞ্চুগঞ্জের প্রবীণ নেতৃবৃন্দ।