অভিযোগ প্রমাণ করলে মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দেব: ছায়েদুল হক – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

অভিযোগ প্রমাণ করলে মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দেব: ছায়েদুল হক

প্রকাশিত: ৯:৩২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৬, ২০১৬

অভিযোগ প্রমাণ করলে মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দেব: ছায়েদুল হক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরের ঘটনায় নিজের বিরুদ্ধে আসা অভিযোগ প্রমাণ করতে পারলে পদ ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন মৎস ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী ছায়েদুল হক।

রোববার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর ডাকবালোয় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ঘোষণা দেন। মন্ত্রী বলেন, ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে তাণ্ডবের পর হিন্দুদের আমি ‘মালাউনের বাচ্চা’ বলিনি। এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। আমি এ ধরনের কথা বলেছি, কেউ প্রমাণ করতে পারলে মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দেব। এ সময় তিনি হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে ভীতি সঞ্চার হয়, এমন সংবাদ প্রচার না করার জন্য সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ জানান।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মন্ত্রী ছায়েদুল হক বলেন, ‘ফেসবুকে একটি অনাকাংখিত ছবি প্রকাশের মাধ্যমে মুসলিমদের উস্কানী দেয়ার চেষ্টা হলেও সারাদেশের মুসলিমরা সেই ষড়যন্ত্রে পা দেয়নি। অথচ একমাত্র আমার নির্বাচনী এলাকা নাসিরনগরেই একই অজুহাতে হিন্দু ভাই-বোনদের মন্দির, বাড়িঘরে সুপরিকল্পিত হামলা করা হলো কেন? এটাই একটা জ্বলন্ত প্রশ্ন এবং বিরাট রহস্য!’

তিনি বলেন, ‘শুধু আগুন জ্বালানোর চেষ্টা নয়, একটি মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এক উড়োখবরের ভিত্তিতে আমার বিরুদ্ধে হিন্দু ভোটারদেরও ক্ষেপিয়ে তোলার চেষ্টার করা হচ্ছে।’

ছায়েদুল হক দাবি করেন, ‘কিছুদিন আগেও আমার সুনাম ক্ষুন্ন করতে একটি মহল আমার বিরুদ্ধে ব্যাপক অপপ্রচার চালিয়ে ব্যর্থ হয়েছিল। সেই ব্যর্থতার গ্লাণি ঢাকতেই আজ আমার নির্বাচনী এলাকায়ই শুধু কথিত সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাধিয়ে আমার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার নষ্ট করতে উঠে পড়ে লেগেছে।’

তিনি বলেন, একটি শিশুও বিশ্বাস করবে না যে, আমি আমার নিজ নির্বাচনী এলাকার অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সামাল দেয়ার পরিবর্তে হিন্দুদের গালিগালাজ করে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার উস্কানী দেবো। এ বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ষড়যন্ত্রমূলক, যা আমার শত্রুরাই ছড়াচ্ছে। হিন্দু ভাই-বোনদের হেফাজতে যথাযথ ভূমিকা পালনের বদলে নিজেদের মধ্যে একটি মিথ্যা খবরের ভিত্তিতে কাদা ছুড়াছুড়ি করা মানেই ক্ষতিগ্রস্থদের আরও হুমকির মধ্যে ফেলে দেয়া। হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদ ও পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারাও একই ফাঁদে পা দিয়েছেন।

প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, আমি অত্যন্ত দৃঢ়কণ্ঠে ঘোষণা করতে চাই যে, আমার জীবন থাকতেও আমি হিন্দু ভাই-বোনদের ক্ষতি করার মাধ্যমে আমার সুনামহানির ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন করতে দেবো না। যারা তাদের ক্ষতি করেছে, যারা পরিকল্পিতভাবে ট্রাকে করে মন্দির ভাংতে ও বাড়িঘর জ্বালাতে এসেছিল, তাদের খুঁজে বের করে কঠোর শাস্তি দেয়া হবে।

এসময় তিনি সাংবাদিকদের অনুরোধ করে বলেন, আপনারা অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার মাধ্যমে হামলাকারীদের মুখোশ উন্মোচন করে প্রশাসনকে সাহায্য করুন এবং এমন কোনো সংবাদ প্রকাশ করবেন না যাতে হিন্দু ভাই-বোনদের মনে ভীতির সঞ্চার হয়।

মন্ত্রী প্রশাসনসহ পরিস্থিতি সামাল দিয়েছেন বলে দাবি করেন। ওসির বিরুদ্ধে আনা পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ সঠিক নয় বলেও দাবি করেন।