আনিসুলের মরদেহের জন্য বিমানবন্দরে অপেক্ষা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

আনিসুলের মরদেহের জন্য বিমানবন্দরে অপেক্ষা

প্রকাশিত: ১২:২২ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২, ২০১৭

আনিসুলের মরদেহের জন্য বিমানবন্দরে অপেক্ষা

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হকের মরদেহ সিলেটে পৌঁছেছে। কিছুক্ষণের মধ্যেই ঢাকায় পৌঁছাবে। তাঁর মরদেহবাহী বাংলাদেশ বিমানের বিজি ০০২ নম্বর ফ্লাইটটি বেলা ১২টার দিকে সিলেট উসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে।

বেলা একটার দিকে বিমানটি হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবে বলে জানা গেছে। ইতোমধ্যে আনিসুল হকের স্বজন, বন্ধুবান্ধব ও সরকারের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা বিমানবন্দরে আসতে শুরু করেছেন।

আনিসুল হকের ছোটভাই সেনাপ্রধান জেনারেল আবু বেলাল মো. শফিউল হক মরদেহ গ্রহণ করবেন। এ সময় উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরসহ বিশিষ্টজনেরা।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মেয়রের মরদেহের সঙ্গে দেশে আসছেন তাঁর স্ত্রী রুবানা হক, ছেলে নাভিদুল হক, দুই মেয়ে ওয়ামিক উমায়রা ও তানিশা ফারিয়াম্যান হক।

বিমানবন্দর থেকে আনিসুল হকের মরদেহ বনানীর ২৩ নম্বর সড়কে অবস্থিত তাঁর বাসভবনে আনা হবে। সেখান থেকে বিকালে আর্মি স্টেডিয়ামে আনার পর বাদ আসর জানাজা হবে। এরপর আনিসুল হকের মরদেহ বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে।

মেয়রের ক‌ফিনবাহী বিমান‌টি শুক্রবার লন্ডন সময় সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় ছাড়ার কথা ছিল। নির্ধারিত সময়ের প্রায় পৌনে দুই ঘণ্টা পর ৭টা ৫৮ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত ১টা ৫৮ মিনিটে) সেটি লন্ডনের হিথ্রো বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। এজন্য তাঁকে বহনকারী বিমানটি বেলা ১১টায় পৌঁছার কথা থাকলেও তা দুই ঘন্টা বিলম্ব হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মেয়র আনিসুল হক দীর্ঘদিন যাবত অসুস্থ অবস্থায় লন্ডনে একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকাকালে গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের সময় রাত ১০টা ২৩ মিনিটে ইন্তেকাল করেন।

চলতি বছরের ২৯ জুলাই তিনি যুক্তরাজ্যে গমন করেন। অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে লন্ডনের ন্যাশনাল নিউরো সায়েন্স হসপিটালে ভর্তি ও আইসিইউতে রাখা হয়। গত ১৩ আগস্ট চিকিৎসকরা তার মস্তিষ্কের রক্তনালীতে প্রদাহজনিত সেরিব্রাল ভাসকুলাইটিস শনাক্ত করেন। পরে তাকে ৩১ অক্টোবর আইসিইউ থেকে রিহ্যাবিলেটেশন সেন্টারে স্থানান্তর করা হয়।

২০১৫ সালে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে তিনি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন। এর আগে তিনি ব্যবসায়ীদের সর্বোচ্চ সংগঠন এফবিসিসিআই এবং বিজিএমইএ সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

আনিসুল হক ১৯৫২ সালে ২৭ অক্টোবর নোয়াখালীর কবিরহাটে জন্মগ্রহণ করেন।