আপত্তিকর শব্দ সংযুক্ত করে মিথ্যাচারের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট ২৫ নং ওয়ার্ড  শাখা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

আপত্তিকর শব্দ সংযুক্ত করে মিথ্যাচারের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট ২৫ নং ওয়ার্ড  শাখা

প্রকাশিত: ৬:৪৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ২১, ২০২০

আপত্তিকর শব্দ সংযুক্ত করে মিথ্যাচারের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট ২৫ নং ওয়ার্ড  শাখা
একজন সফল রাজনীতিবিদ এবং ব্যবসায়ী,পারিবারিকভাবে সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্ম নেয়া দক্ষিণ সুরমার কৃতিসন্তান, জনাব জাকিরুল আলম জাকিরের নামের পূর্বে অশালীন শব্দ ব্যবহার সহ মিথ্যা সংবাদ প্রচারের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট ২৫ নং ওয়ার্ড সিলেট মহানগর শাখা। এক যুক্ত বিবৃতিতে সংগঠনের সভাপতি, লিডিং বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্র, সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ নেতা আহসানুল মোহাইমিন এবং সাধারন সম্পাদক , সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইন্টার দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র, সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল ছামি এই নিন্দা জানিয়েছেন বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ জানান, জাকিরুল আলম জাকির দীর্ঘ দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে ছাত্রলীগ এবং যুবলীগের দায়িত্ব পালন করে আসছেন।দলের দুঃসময়ে সরাসরি রাজপথে সক্রিয় ছিলেন এবং আজও আছেন। আন্দোলন-সংগ্রাম করতে গিয়ে বারবার কারাবরণ করেছেন,শিবির-ছাত্রদলের হামলার শিকার হয় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট সিলেট মহানগর শাখার আহবায়ক এর দায়িত্ব অত্যন্ত সুনামের সাথে পালন করছেন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বাক্ষরে ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকে নির্বাচনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। রাজনৈতিকভাবে দলের স্বীকৃতিপ্রাপ্ত একজন সফল রাজনীতিবিদ এবং দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় ধরে সরকারের তালিকাভুক্ত করদাতা, একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ীর নামের পূর্বে অশ্লীল শব্দ ব্যবহার করে মহামান্য হাইকোর্টের স্পষ্ট নিষেধাজ্ঞাকে চরমভাবে অমান্য করেছেন যা দণ্ডনীয় অপরাধ।
গণমাধ্যম এর উপর কোন ধরনের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না নিয়ে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত লেখাপড়া ও একটি মাদ্রাসায় পড়ুয়া জনৈক ব্যক্তি অনলাইন পোর্টাল খুলে নিজেই সম্পাদক এবং প্রকাশক হয়ে মানুষকে হেয় প্রতিপন্ন করে যাচ্ছে। মানুষের মৌলিক অধিকারের উপর আঘাত করে নিজেকে তথ্য সন্ত্রাসী হিসেবে আবির্ভূত করেছে জনৈক অনলাইন কর্তৃপক্ষ।বেগম খালেদা জিয়ার ভাই এর মালিকানাধীন একটি টিভির কর্মচারী হিসেবে কাজ করে পরবর্তীতে প্রবাসী একটি বাণিজ্যিক টিভির ক্যামেরা বাহক হিসেবে কাজ করার সুবাদে অবৈধ কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হন, প্রবাসী টিভি কর্তৃপক্ষ উশৃংখল ও অবৈধ কর্মকাণ্ডের কারণে তাদের প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী থেকে বিতাড়িত করে। বর্তমানে সে গণমাধ্যম শিল্পের বিবেক সম্পন্ন শিল্পীদের একটি প্রতিষ্ঠানের সদস্য হিসেবে তালিকাভুক্ত রয়েছে যদিও সে তার কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে এই প্রতিষ্ঠানের সুনামকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে প্রতিনিয়ত,এই প্রতিষ্ঠানের নাম ব্যবহার করে নিজেই নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে অবৈধ কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। গণমাধ্যম নিয়মনীতি উপেক্ষা করে অনলাইন পোর্টাল খুলে এবং একটি মোবাইল ফোন ক্রয় করে সংবাদ এর নামে মিথ্যা তথ্য প্রচার, আর মোবাইল লাইভের নামে সরকারি দলের বিভিন্ন নেতাদের এবং প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তাদের মোবাইল লাইভ করে সাধারণ মানুষের কাছে নিজেকে সরকারি দলের নেতাদের কাছের লোক এবং প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সাথে সম্পর্ক দেখিয়ে ধান্দাবাজিতে ব্যস্ত রয়েছে, আওয়ামী লীগ বিএনপি জামাতের সিনিয়র নেতাদের সাথে প্রতিনিয়ত সেলফি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করে অত্যন্ত কৌশলে অসৎ কর্মকাণ্ডে লিপ্ত রয়েছে জনৈক পোর্টালের সম্পাদক-প্রকাশক নামক উশৃংখল সেই ব্যক্তিটি। যা সম্পূর্ণ শিষ্টাচারবহির্ভূত।
একজন সজ্জন ব্যক্তি জনাব জাকিরুল আলম জাকির কে নিয়ে এ ধরনের মিথ্যাচার এবং অশ্লীল শব্দ ব্যবহার করে প্রচার-প্রচারণা থেকে বিরত থাকার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি এবং যোগ্যতা না থাকা সত্বেও নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দেওয়া থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রকৃত সাংবাদিকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে আমরা বলতে চাই, আপনারা সাংবাদিক সমাজ আমাদের বাতিঘর। এই বাতিঘরে অস্তিত্বহীন কিছু ছেলে কিছু টাকা দিয়ে অনলাইন খুলে এবং একটি মোবাইল ফোন ক্রয় করে অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত রয়েছে এতে করে আলোর বাতিঘর এই পেশাকে অন্ধকারে পরিণত করে দিবে। প্রকৃত সাংবাদিকবৃন্দের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আমরা অনুরোধ করছি দয়া করে এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন। দেশের একজন নাগরিক হিসবে আমরাও আপনাদের কাতারে শামিল হবো।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল