আ. লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন, সিলেটের আওয়ামী দরবার হলগুলো বন্ধ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

আ. লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন, সিলেটের আওয়ামী দরবার হলগুলো বন্ধ

প্রকাশিত: ৯:৩১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২২, ২০১৯

আ. লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন, সিলেটের আওয়ামী দরবার হলগুলো বন্ধ

লতিফ নুতন:
আ.লীগের নব নির্বাচিত সভানেত্রী, জাতির জনকের কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আপনাকে ও আপনার দেওয়া নতুন কমিটিকে অভিনন্দন। এবারের নতুন কমিটি তৃণমূল নেতা-কর্মীদের আশা প্রত্যাশা পূরন হয়েছে। সবাই খুশী। আমাদের সিলেটের কৃতি সন্তান,সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে পুনরায় সভাপতিমন্ডলীর সদস্য নির্বাচিত করায় সিলেটবাসী মহা খুশী। এছাড়া সিলেটের কৃতি সন্তান সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, সাবেক সচিব ইনাম আহমদ চৌধুরী ও সিলেট জেলা আ. লীগের সাবেক সভাপতি এডভোকেট আবু নছরকে উপদেষ্টা মন্ডলীতে রাখায় সিলেটবাসীর প্রত্যাশা পূরন হয়েছে।

গত ৫ ডিসেম্বর সিলেট জেলা ও মহানগর আ.লীগের সম্মেলন ও নতুন কমিটি ঘোষনা হওয়ায় আ.লীগের তৃণমূলের নেতা কর্মীদের মধ্যে উল্লাস দেখা যাচ্ছে। দলীয় নেতা-কর্মীরা তাদের প্রাণ ফিরে পেয়েছে। সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের নতুন সভাপতি এডভোকেট লুৎফুর রহমান ও সাধারন সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা নাসির উদ্দিন খান এবং মহানগর আ.লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযুদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ ও সাধারন সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা অধ্যাপক জাকির হোসেন সিলেটের দলীয় নেতা কর্মীদের আঙ্খাখা পূরন এবং আপন ঠিকানা ফিরে পেয়েছে। বঙ্গকন্যা মাননীয় নেত্রী আপনার সিদ্ধান্ত সমপযোগী। পুরাতনদের মুখ আর কেউ দেখতে চায় না। সিলেটের দরবার হল গুলো বন্ধ হয়ে গেছে সিলেটের নতুন নেতৃত্ত্ব আসায়।

এখনো সিলেটের কেউ সাংগঠনিক সম্পাদক ঘোষনা দেননি। এ নিয়ে চলছে নানা কানা ঘোষা। কে পাচ্ছেন সিলেটের দায়িত্ব। সিলেটের অতিতের দায়িত্বপ্রাপ্ত আহমদ হোসেন পুনরায় সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হওয়াতে আপনাকে আবার অভিনন্দন। বিগত সিসিক নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের ভরাডুবির পর সিলেট আওয়ামীলীগ যে হুছোট খেয়েছে তাতে দলীয় কর্মীদের বুক ঝাঝরা হয়ে গেছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন এজন্য আপনি ক্ষুব্দ।

সিলেট থেকে বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদকের নাম ঘোষনা করেননি। যারা সেদিন নৌকার ভরাডুবি করেছে তাদের কে পুরষ্কার না দিয়ে তিরষ্কার করা প্রয়োজন। বর্তমান মেয়র, বিএনপি’র নির্বাহী কমিটি’র সদস্য আরিফুল হকের সাথে যাদের দহরম মহরম তাদের প্রতি সতর্ক থাকা প্রয়োজন। অনেকে আবার কমিটিতে থাকার জন্য মায়া কান্না করছেন। দলের শুদ্ধি অভিযান মাইল ফলক হয়ে থাকবেন। আমরা সিলেটবাসী কি পেলাম কি পেলাম না তা নিয়ে সিলেটবাসীর কোন দুঃখ নেই। তবে সবার প্রত্যাশা দলে শুদ্ধি অভিযান অব্যাহত থাকুক।

এক সময়ের স্বেচ্চাসেবকলীগের প্রাণ আপনার সহ স্নেহের কর্মী জাহাঙ্গীর কবির নানক,আফম বাহা উদ্দিন নাসিম ও মির্জা আযমকে পুরষ্কৃত করায় এক সময়ের যুবলীগ,সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা-কর্মীদের প্রাণের সঞ্চার হয়েছে। দলের দুর্দিনের নেতা প্রিয় নাসিম ভাই কে যুগ্ম সাধারন সম্পাদক করায় আমি নাসিম ভাইয়ের কমিটিতে স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে সদস্য থাকায় আমি গর্বিত। আজ আমাদের নাসিম ভাই আমাদের প্রাণের শক্তি। একই ভাবে নানক ও আযম ভাই প্রাণের শক্তি। দলের দুর্দিনে তাদের ভূমিকা ইতিহাসের পাতার স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাববে।

আজ বার বার মনে পড়ছে আমাদের সিলেটের কৃতিসন্তান,সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী,আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মরহুম আব্দুস সামাদ আজাদ, বর্ষিয়ান নেতা বাবু সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত,সাবেক মন্ত্রী দেওয়ান ফরিদ গাজী,সাবেক স্পীকার হুমায়ুন রশীদ চৌধুরী,সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এস এম কিবরীয়া। তারা আজ আমাদেরকে ছেড়ে পরকালে চলে গেছেন। সিলেট এখন নেতা শূন্য সিলেটবাসীর যোগ্য অভিবাবক নেই। দলে কাওয়া আর ফারমের গোরগ,অনুপ্রেবশকারী ঢুকে সিলেট আওয়ামীলীগকে আপনার কাছে কলংকিত করেছে।

গত বছর ধরে সিলেটে আ.লীগের কয়েকটি দরবার হলের জন্ম হয়েছিল। গত ৫ ডিসেম্বর সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের সম্মেলনে নতুন নেতৃত্ত্ব আসায় দরবার হল গুলো বন্ধ হয়ে গেছে। যেমন মিয়া ফাজিলস্তীত,ছড়ারপার,টিলাগড় কালাসীল এলাকার দরবার হল গুলোতে এখন আর কেউ যায় না।
এখন প্রয়োজন সিলেটে আওয়ামীলীগ,যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, শ্রমিকলীগ, ছাত্রলীগে যারা অনুপ্রেবশকারী ঢুকেছে তাদেরকে তাড়িয়ে দেওয়া। জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগ নতুন কমিটি,মেয়াদ উত্তীর্ণ স্বেচ্ছাসেবকলীগের নতুন কমিটি ঘোষনা করা। যুবলীগের পুনাঙ্গ কমিটি। জেলা শ্রমিকলীগের সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ত্ব সৃষ্টি করা।

কেন্দ্রীয় কমিটিতে তৃণমূল আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীদের প্রত্যাশা যদি সিলেটের কেহকে আর স্থান দেওয়া হয় তাহলে চুলচেরা বিশ্লেষন করে স্থান দেওয়া। মাননীয় নেত্রী আপনাকে বলা কিছু নেই। আপনি সবই সিলেটে দলের অবস্থা জানেন। আমরা আপনার দিকে তাকিয়ে আছি আর কাকে আপনি আপনার কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান দিচ্ছেন। সিলেট আওয়ামীলীগ তৃণমূলের কর্মী বান্ধব নেতা চায়। এঠাই আমাদের প্রত্যাশা।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল