ইতিহাস গড়লো বাংলাদেশ! – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

ইতিহাস গড়লো বাংলাদেশ!

প্রকাশিত: ২:১১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩০, ২০১৬

ইতিহাস গড়লো বাংলাদেশ!

14894462_1791374541118612_638659770_o-696x279৩০ অক্টোবর ১৬. রবিবার: একটা উইকেট! কবে যে এটা পড়বে…! সেই অপেক্ষায় ছিলো ১৬ কোটি বাঙালী! সেই একটা উইকেট অবশেষে পড়ল!

টাইগারদের ছুঁড়ে দেওয়া ২৭৩ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নামা ইংল্যান্ড ১৬৪ রানেই গুটিয়ে যায়। সাকিব-মিরাজ-তামিমদের জয়টা ১০৮ রানের। ফলে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজটি ১-১ এ সমতায় থাকে। বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে এবারই প্রথমবারের মতো ইংলিশদের হারালো টাইগাররা।

ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে স্বাগতিক বাংলাদেশ অলআউট হওয়ার আগে সংগ্রহ করে ২৯৬ রান, তাতে টাইগারদের লিড দাঁড়ায় ২৭২ রান। ২-০ তে সিরিজ জিততে হলে ইংল্যান্ডকে ঢাকা টেস্ট জিততে হতো রেকর্ড গড়ে। এর আগে ২০১০ সালে ইংলিশরা সবশেষ ২০৯ রান চেজ করে জয় পেয়েছিল, সেটিও আবার বাংলাদেশের বিপক্ষে ঢাকার মাটিতে। এর বেশি রান চেজ করে কখনোই জিততে পারেনি ইংলিশরা। এবার টাইগাররা ছুঁড়ে দেয় ২৭৩ রান। তাতে, ১০০ রানের ওপেনিং জুটি গড়লেও ১৬৪ রানেই গুটিয়ে যায় ইংলিশরা।

254242

প্রথম উইকেটের পর, শুরু হয়ে গেল উইকেটের বৃষ্টি। প্রথমে মিরাজ, এরপর সাকিব। এই জোড়া আঘাতেই আশা জাগল বাংলাদেশের। কুকের সঙ্গে ওপেনিংয়ে ১০০ রান এনে দেওয়া ডাকেট ফিরলেন, খানিক পরে জো রুটও (১)। এরপর নিজের ১৫তম ওভারে মিরাজ একাই জোড়া আঘাত হানলেন। গ্যারি ব্যালেন্স (৫) ও মঈন আলী (০) ফিরলেন পরপর। মিরাজের পরে ওভারে আবারও উইকেট! এবার ফিরলেন একপ্রান্ত আগলে রাখা কুক।

শুরুতে কুক আর ডাকেট মিলে কিন্তু বেশ ভোগাচ্ছিলেন। ২৭৩ রানের কঠিন লক্ষ্যটা তখন মনে হচ্ছিল কী সহজ! বিশেষ করে ডাকেট সুইপ ও রিভার্স সুইপে বাংলাদেশি স্পিনারদের লাইন-লেংথ এলোমেলো করে দিয়েছেন। তাঁর কারণেই থিতু হতে পারেনি স্পিনাররা। মাহমুদউল্লাহ তখন হাত কামড়াচ্ছিলেন ইনিংসের পঞ্চম ওভারেই ডাকেটের সহজ ক্যাচ ফেলেছিলেন বলে।
কিন্তু ওই ‘একটা উইকেটে’র আঘাতই ডমিনো এফেক্ট এনে দিল। বিনা উইকেটে ১০০ থেকে ৫ উইকেটে ১২৭। মাত্র ২৭ রানের মধ্যে প্রথম ৫ ব্যাটসম্যানকে হারাল ইংল্যান্ড।

বারবার উদ্ধার করা ইংলিশ লোয়ার-মিডল অর্ডার এবারও ভোগানোর ইঙ্গিত দিচ্ছিল। স্টোকস আর বেয়ারস্টো মিলে যখন ২২ রান তুলে ফেললেন সপ্তম উইকেট জুটিতে। বেয়ারস্টোকে ফিরিয়ে চার ইনিংসে তৃতীয়বারের মতো পাঁচ উইকেট পূর্ণ করলেন।
এখান থেকেই শুরু সাকিবের জাদু। সাকিবের এক ওভারেই ফিরলেন স্টোকস, আদিল রশিদ ও আনসারি। মিরাজ শেষটা টেনে দিলেন স্টিভেন ফিনকে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলে। উৎসবে মাতোয়ারা বাংলাদেশ!
চট্টগ্রাম টেস্টের ২২ রানের আক্ষেপ কি ঘুচল? ১৩ বছর ধরে পুষে রাখা মুলতানের সেই কষ্টও? চট্টগ্রামে ২৩ রানের দূরত্বটা ঘুচিয়ে দিতে পারলে কিন্তু সিরিজের ফলটা ২-০ হতো!

254236

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস : ৬৩.৫ ওভারে ২২০ (তামিম ১০৪, মুমিনুল ৬৬, মাহমুদউল্লাহ ১৩, সাকিব ১০; মঈন ৫/৫৭, ওকস ৩/৩০, স্টোকস ২/১৩ )।

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস : ৮১.৩ ওভারে ২৪৪ (রুট ৫৬, ওকস ৪৬, রশিদ ৪৪*; মিরাজ ৬/৮২, তাইজুল ৩/৬৫, সাকিব ১/৪১)।

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস: ৬৬.৫ ওভারে ২৯৬ (ইমরুল ৭৮, মাহমুদউল্লাহ ৪৭, সাকিব ৪১, তামিম ৪০, শুভাগত ২৫*; রশিদ ৪/৫২, স্টোকস ৩/৫২, আনসারি ২/৭৬, মঈন ১/৬০)।

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল