ইনাম চৌধুরী, এম এ হক ও লুনাসহ বিএনপি নির্বাহী কমিটিতে সিলেটের স্থান পেলেন যারা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

ইনাম চৌধুরী, এম এ হক ও লুনাসহ বিএনপি নির্বাহী কমিটিতে সিলেটের স্থান পেলেন যারা

প্রকাশিত: ৯:২১ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৬, ২০১৬

ইনাম চৌধুরী, এম এ হক ও লুনাসহ বিএনপি নির্বাহী কমিটিতে সিলেটের স্থান পেলেন যারা

bbmggggবিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটিতে সিলেটের স্থান পেয়েছেন যারা। বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা নির্বাচিত হয়েছেন এম এ হক (আব্দুল হক), নিখোঁজ এম ইলিয়াস আলী’র স্ত্রী তাহসিনা রুশদি লুনা, সহ-সভাপতি ইনাম আহমদ চৌধুরী, সহ-ক্ষুদ্র ঋণ বিষয়ক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, সহ-সম্পাদক প্রবাসী কল্যাণ বিষয়ক ব্যারিস্টার আব্দুস সালাম, সহ-সম্পাদক স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক এডভোকেট শামছুজ্জামান জামান, সহ-সম্পাদক ব্যাংকিং রাজস্ব বিষয়ক খন্দকার মুক্তাদির, সদস্য শফি আহমদ চৌধুরী, আরিফুল হক চৌধুরী, ডাঃ শাহরিয়ার হোসেন চৌধূরী, আবুল কাহের শামীম, নতুন সদস্য এডভোকেট হাদীয়া চৌধুরী মুন্নি।
এছাড়া সিলেট বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ডা. জীবন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক পদে দিলদার হোসেন সেলিম, কলিম উদ্দিন মিলন (সুনামগঞ্জ) তাদের নাম পূর্বে ঘোষনা করা হয়।

আসছে —–

সিলেট বিভাগের স্থান ও বাদ পড়া এবং নতুন স্থান পাওয়াদের নিয়ে বিশেষ প্রতিবেদন

তিনজন নতুন মুখ নিয়ে দলের সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির ১৯ সদস্যের মধ্যে ১৭ জনের নাম ঘোষণা হয়েছে। এছাড়া ঘোষণা করা হয়েছে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটিও।
শনিবার দুপুরে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এ কমিটির ঘোষণা দেন।
মোট ৬০২ সদস্য বিশিষ্ট কমিটিতে ১৭ জন স্থায়ী কমিটিতে, ৭৩ জন উপদেষ্টা, ৩৫ জন ভাইস চেয়ারম্যান, যুগ্ম মহাসচিব, সম্পাদক ও সহসম্পাদক মিলে ১৭৪ জন এবং সদস্য রাখা হয়েছে ২৯৩ জনকে। সদস্যদের মধ্যে ১১৩ জন নতুন।
এছাড়া ৫০২ সদস্যের জাতীয় নির্বাহী কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এদের ৪৯৮ জনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। বাকিদের নাম পরে জানানো হবে।

গত ১৯ মার্চ ঢাকায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে দলের ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠানের চার মাস ১৬ দিন পর এই কমিটির ঘোষণা আসল।

01 02 03 04 05 07 08 09 10 11 12 13 14 15 16 17 18১৯ সদস্যের স্থায়ী কমিটিতে আগের কমিটির ১৪ জন রয়েছেন। বাকি তিনজন নতুন। তারা হলেন- মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সালাউদ্দিন আহমেদ।

গত কমিটির সদস্য এম শামসুল ইসলাম ও বেগম সারোয়ারি রহমান দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। সাংগঠনিক কাজে অংশ নিতে না পারায় তারা নতুন কমিটিতে স্থান পাননি। তবে তাদেরকে উপদেষ্টামণ্ডলীতে রাখা হয়েছে।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া স্থায়ী কমিটির প্রথম সদস্য। তিনি ছাড়া ঘোষিত কমিটির ক্রমানুসারে অন্যরা হলেন- তারেক রহমান, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, তরিকুল ইসলাম, লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, আসম হান্নান শাহ, এমকে আনোয়ার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মইন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সালাউদ্দিন আহমেদ (সর্বশেষ)।

মির্জা ফখরুল বলেন, ১৯ সদস্যে মধ্যে ১৭ ও ১৮ নম্বর সদস্যের নাম ঘোষণা করা হয়নি। পরে তা জানানো হবে।
গত কমিটিতে সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্যের পাশাপাশি চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
গতবছরের জানুয়ারিতে আন্দোলনের মধ্যে আগের কমিটির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদ ‘নিখোঁজ’ থাকার পর ভারতের মেঘালয়ের শিলংয়ে তার সন্ধান মেলে। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশের মামলায় তিনি বর্তমানে ভারতে অবস্থান করছেন।
এছাড়া অবিভক্ত ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সর্বশেষ মেয়র সাদেক হোসেন খোকা বর্তমানে চিকিসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে আছেন।

গত ১৯ মার্চ দলের ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের ১০ দিন পর মহাসচিব পদে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গে সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব হিসেবে রুহুল কবির রিজভী ও কোষাধ্যক্ষ মিজানুর রহমান সিনহার নাম মনোনয়ন দেন চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।
এরপর সব মিলে তিন দফায় যুগ্ম মহাসচিব, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সহসাংগঠনিক সম্পাদক নিয়ে ৪২ জনের নাম ঘোষণা করা হয়।
২০০৯ সালের পঞ্চম জাতীয় কাউন্সিলে গঠনতন্ত্র সংশোধন করে ১৩ সদস্যের স্থায়ী কমিটির সদস্য সংখ্যা ১৯-এ উন্নীত করা হয়। ওই সময়ে তরিকুল ইসলাম, আসম হান্নান শাহ, এমকে আনোয়ার, বেগম সারোয়ারি রহমান, জমিরউদ্দিন সরকার, ড. আবদুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, রফিকুল ইসলাম মিয়া, সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও তারেক রহমান- এই ১২ জনকে স্থায়ী কমিটির সদস্য করা হয়।
পঞ্চম জাতীয় কাউন্সিলের পর স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আরএ গনি এবং খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন (মহাসচিব) মারা যান। আর সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর যুদ্ধাপরাধের দণ্ডে ফাঁসি হয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল