ইসলামী ব্যাংকগুলো কুরআন-সুন্নাহর মূলনীতি অনুসারে পরিচালিত হয়: মুফতি আব্দুল মুনতাকিম – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

ইসলামী ব্যাংকগুলো কুরআন-সুন্নাহর মূলনীতি অনুসারে পরিচালিত হয়: মুফতি আব্দুল মুনতাকিম

প্রকাশিত: ৪:৩৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৭, ২০২০

ইসলামী ব্যাংকগুলো কুরআন-সুন্নাহর মূলনীতি অনুসারে পরিচালিত হয়: মুফতি আব্দুল মুনতাকিম

সিলেটের দিনকাল ডেস্ক:
ব্রিটেনের জনপ্রিয় মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ও ইসলামী চিন্তাবিদ মুফতি আব্দুল মুনতাকিম বলেছেন, সুদভিত্তিক অর্থব্যবস্থার কারনে আজ সারাবিশ্বেও মানুষ সংকটের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে আছে। প্রচলিত ব্যাংকিং ব্যবস্থায় ইনসাফভিত্তিক বণ্ঠনব্যবস্থা একেবারেই নেই। এ অর্থ ব্যবস্থা ধনীদের আরো ধনী ও গরীবকে আরো গরীব করছে। ফলে সমাজে বাড়ছে ধনী-গরীবের বৈষম্য। বর্তমানে সুদভিত্তিক ব্যাংকগুলো যেখানে সংকটের মুখোমুখি, সেখানে ইসলামী ব্যাংকগুলো এ সংকট থেকে একেবারেই মুক্ত। কারন অন্য ব্যাংক টাকার ব্যবসা করে, আর ইসলামী ব্যাংকগুলো করে পণ্যেও ব্যবসা। ইসলামী ব্যাংকগুলো কুরআন-সুন্নাহর দেয়া মূলনীতি অনুসারে পরিচালিত হওয়ায় একদিকে যেমন সুদের ভয়াবহ পাপ থেকে মুক্ত থাকা যাচ্ছে, অন্যদিকে অর্থনৈতিক বৈষম্য দূর করতে সাহায্য করছে। তাই সকল মানুষকে ইসলামী ব্যাংক ব্যবস্থায় আসতে হবে।

ইউ.কে.’র এম.এফ.আর. ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের উদ্যোগে সিলেটের আলেম সমাজ ও ইসলামী ব্যাংকগুলো কর্মকর্তাদের নিয়ে আয়োজিত অর্থনীতি শীর্ষক সেমিনার ও শায়খুল হাদীস আল্লামা তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী (রহ.) এর রুহের মাগফেরাত কামনায় আয়োজিত দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। গত ৬ জানুয়ারি, সোমবার সন্ধ্যায় দরগাহ গেইটস্থ শহীদ সুলেমান হলে এ সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এম.এফ.আর. ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের চেয়ারম্যান হাফিজ মাওলানা সালেহ আহমদ। তিনি বলেন, আমরা নামাজ, রোজাকে যথটা গুরুত্ব দেই, সুদকে ততটা দেইনা। ফলে দেখা যায় অনেক নামাজী ব্যক্তি সুদভিত্তিক ব্যাংকগুলোতে লেনদেন করেন। জানা ও শেয়ারিংয়ের অভাবের কারনে আমরা সুদের মতো ভয়াবহ পাপের সাথে আমরা জড়িয়ে আছি। এ থেকে বেরিয়ে আসতে ব্যাংক সচেতনার প্রয়োজন, এক্ষেত্রে আলেম সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে।

ইসলামী ব্যাংকিং ব্যবস্থা নিয়ে বক্তব্য রাখেন ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশের অ্যাসিস্টেন্ট ভাইস-প্রেসিডেন্ট সৈয়দ জিল্লুর রহমান ও আল-আরাফাহ ব্যাংকের এস.ভি.পি. ও জোনাল হেড মো. ফজলুর রহমান আশরাফী। তারা বলেন, ইসলামী ব্যাংকগুলোতে আলেম-ওলামাদের নিয়ে শরীয়াহ বোর্ড রয়েছে। শরীয়াহ বোর্ডের অনুমোদন ছাড়া ইসলামী ব্যাংকগুলো কিছুই করে না। আমারা হালাল-হারামকে বাছাই করে হালাম উপায়ে ব্যাংকিং করছি। ইসলামী ব্যাংকগুলো মানুষকে ব্যাপকভাবে আকৃষ্ট করছে। মানুষকে ইসলামী ব্যাংকব্যবস্থা সম্পর্কে আরো বেশি করে জানাতে হবে। এজন্য এরমক সেমিনার আরো বেশি করে আয়োজন করা প্রয়োজন।

দারুস সালাম মাদ্রাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস মাওলানা আব্দুল খালিকের সভাপতিত্বে ও মাওলানা মুজাম্মিল হকের পরিচালনায় সেমিনারে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিথ ছিলেন ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশের ভি.পি. মো. নুরুজ্জামান, ভি.পি. মো. ওবায়দুল্লাহ, এস.ভি.পি. মো. মনিরু ইসলাম, এস.পি.ও. মো. এনামুর রহমান, এস.পি.ও. মো. আমিরুজ্জামান, এস.পি.ও. মো. আব্দুল হামিদ, এস.পি.ও. মো. আব্দুল ওয়াহিদ, এস.পি.ও. মো. সালেহ আহমদ, আল-আরাফাহ ব্যাংকের লালদিঘিরপাড় শাখার এফ.এ.ভি.পি. ও ম্যানেজার মো. ফারুক মিয়া, লালদিঘিরপাড় শাখার সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার আহমদ শামসুদ্দীন, দারুস সালাম মাদ্রাসার মাওলানা নিয়ামত উল্লাহ খাসদবিরী, মাওলানা মুফতি রশিদ আহমদ প্রমুখ।

সেমিনারে কুরআন তেলাওয়াত করেন হাফিজ মাহমুদুল হাসান (ইংল্যান্ড)। সেমিনার শেষে শায়খুল হাদীস আল্লামা তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী (রহ.) এর রুহের মাগফেরাত কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল