উপকমিশনারের কাছে আবদার : আমার ভাইয়ের বিচার চাই – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

উপকমিশনারের কাছে আবদার : আমার ভাইয়ের বিচার চাই

প্রকাশিত: ১২:৫৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৬

উপকমিশনারের কাছে আবদার : আমার ভাইয়ের বিচার চাই

dsc_0010-copyস্টাফ রিপোর্টার : সিলেটের জিন্দাবাজারস্থ সবুজ বিপনী মার্কেটের ব্যবসায়ী আক্তার মিয়া সন্ত্রাসীদের হামলায় গত ১৫ সেপ্টেম্বর নিহত হন। হত্যার পর তাহার পরিবারকে দেখতে গতকাল মঙ্গলবার সাড়ে ১১টায় তার মোঘলাবাজার রায়বান গ্রামে যান উপকমিশনার (দক্ষিণ) বাসু দেব বণিক। এসময় তার সাথে ছিলেন মোঘলাবাজার থানার সহকারী কমিশনার মুস্তাফিজুর রহমান। এসময় তিনি তার ভাই মন্তু মিয়ার সাথে কথা বললে তিনি আবেগআপ্লুত কন্ঠে বলেন, গ্রামের একটি জায়গা সংক্রান্তের মামলা (যার নং সিআর ৪৪/১৬) স্বাক্ষী ছিলেন তিনি। এব্যাপারে বেশ কয়েকদিন ধরে তার বাড়ীতে সন্ত্রাসীরা এসে স্বাক্ষী দেওয়ার কারণে স্বপরিবার সহ তাকে মারার হুমকি দিয়ে আসছিল। একারণে তিনি গত ১১ সেপ্টেম্বর মোগলাবাজার থানার ওসি খায়রুল ফজলের কাছে অভিযোগ দায়ের করতে গিয়েছিলেন। কিন্তু ওসি অজ্ঞাত কারণে তার অভিযোগটি আমলে নেয়নি। মন্তু মিয়া কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, ‘‘ওসি সাহেব যদি আমার অভিযোগ নিতেন তাহলে আজ আমার ভাই আক্তার মিয়া বেঁচে থাকতো”। তিনি তার ভাইয়ের হত্যাকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান উপস্থিত উপকশিনার (দক্ষিণ) বাসু দে বণিকের কাছে। এসময় তিনি নিহতের ৩ মেয়ে ও ১ ছেলের খোঁজ খবর নেন এবং তাদের সহযোগীতা করার ও আসামীদের উপযুক্ত শাস্তি প্রদানের আশ্বাস দেন।
ব্যবসায়ী আক্তার মিয়া নিহতরে পর তার ভাই মন্তু মিয়া ১৫ সেপ্টেম্বর মোঘলাবাজার থানায় ১২ জনকে এজাহারনামীয় আসামী ও অজ্ঞাতনামা ৮/১০ জনকে আসামী একটি মামলা দায়ের করেন। যার নং ৭/৮৬।
তারপর উপকশিনার (দক্ষিণ) বাসু দে বনিক যে জায়গার সংক্রান্ত মামলার স্বাক্ষী ছিলেন মন্তু মিয়া। সেই জায়গার প্রকৃত মালিক শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আফতাবুর রহমানের ছেলে আফজল রহমান আরিফকে দখল সমঝাইয়া দেন।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, কালা মিয়া, আফজালুর রহামন আরিফ, মোক্তার মিয়া, সিরাজ মিয়া, মন্টু মিয়া, ফুলন মিয়া, তবারক আলী, মনির মিয়া, হেলাল আহমদ, কামরুল ইসলাম প্রমূখ।