এবার পাকিস্তানকে নতুন প্রস্তাব বিসিবির! – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

এবার পাকিস্তানকে নতুন প্রস্তাব বিসিবির!

প্রকাশিত: ৪:৪৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১০, ২০২০

এবার পাকিস্তানকে নতুন প্রস্তাব বিসিবির!

স্পোর্টস ডেস্ক:
টি-টোয়েন্টি সিরিজ পরে, আপাতত দুই ম্যাচের আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ- বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) এটাই সর্বশেষ প্রস্তাব পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি)। কেউ কেউ ভেবে বসেছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বুঝি তা মেনে নিয়েই পাকিস্তান যাওয়ার চিন্তা ভাবনা করছে।

গত পরশু (বুধবার) বিসিবি বিগ বস নাজমুল হাসান পাপনের কথায় ছিল অমন আভাস। তিনি বৃহস্পতিবারের ভেতরে পাকিস্তান সফর নিয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করার কথা বলেছিলেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার কিছুই চূড়ান্ত হয়নি। বিসিবি থেকে কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি। এমনকি পাকিস্তান সফর নিয়ে কোনো আলাপ-আলোচনাও হয়নি।ধারণা করা হচ্ছে, আগামী ১২ জানুয়ারি (রোববার) যে বোর্ড পরিচালক পর্ষদের সভা আছে, তাতেই আসলে নির্ধারিত হবে টাইগারদের পাকিস্তান সফরের ভাগ্য।

এদিকে যতই সময় গড়াচ্ছে বাতাস ততই বদলাচ্ছে। জানা গেছে, পিসিবির প্রস্তাবের পর এবার বিসিবি থেকে নতুন এক প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। বোর্ডের দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানিয়েছে, পিসিবির দুই টেস্ট সিরিজ অনুষ্ঠানের প্রস্তাব পাওয়ার পর বিসিবি একাধিক বিকল্প প্রস্তাব দিয়েছে।

যার মধ্যে শেষ প্রস্তাবটি হলো, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড নীতিগতভাবে একসঙ্গে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে পাকিস্তান যেতে আগ্রহী নয়? দুই টেস্ট খেলা মানে অন্তত ১৫ দিন পাকিস্তান থাকা। বিসিবি ততদিন পাকিস্তানে অবস্থান করতে নারাজ।কোচিং স্টাফ, ক্রিকেটার কেউই পাকিস্তানে দুই সপ্তাহের বেশি থাকতে রাজি না। সবার মত হলো, যত দ্রুত ও কম সময়ে পাকিস্তান সফর শেষ করা যায়।

এ কারণেই বিসিবিও শেষ মুহূর্তে কম সময়ে পাকিস্তান সফর শেষ করে আসার প্রস্তাব পাঠিয়েছে। পিসিবির কাছে একটি ছোট ‘প্যাকেজ’ প্রস্তাব আকারে পাঠানো হয়েছে বলে এক দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে। সূত্র জানিয়েছে, বিসিবি থেকে সর্বশেষ পিসিবির কাছে ১ টেস্ট আর ১ টি-টোয়েন্টি খেলার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। তাতে করে ৭-৮ দিনে পাকিস্তান সফর শেষ করে আসা সম্ভব হবে।

ওদিকে পিসিবি এখনো অনড় দুই টেস্টের প্রস্তাবে। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের ভাবটা এমন, বাংলাদেশকে পাকিস্তান আসতে হলে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতেই আসতে হবে। আর বিসিবির কথা, দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে যাওয়া সম্ভব নয়। সেটা খেলতে গেলে দুই সপ্তাহের বেশি সময় থাকতে হবে। তার চেয়ে বরং ১টি করে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি খেলা যেতে পারে। তা হলে এক সপ্তাহের আশপাশে সফর শেষ করে দেশে ফেরা সম্ভব হবে।

এখন পিসিবি যদি ওই প্রস্তাবে রাজি হয়ে এক টেস্টের পাশাপাশি এক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে রাজি হয়, তাহলেই দু’পক্ষের মধ্যে একটা রফা হয়ে যাবে। আর পিসিবি যদি দুই টেস্ট সিরিজ অনুষ্ঠানের ইচ্ছে থেকে সরে না এসে আগের অবস্থানেই থাকে অর্থাৎ দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ছাড়া খেলতে না চায়, তাহলে আর দুই বোর্ডের মধ্যে কোনোরকম আপস মীমাংসার সম্ভাবনা খুব কম, প্রায় শূন্যের কোঠায়।

তখন হয়তো শেষপর্যন্ত টাইগারদের পাকিস্তান সফর বাতিল হয়ে যাবে। বোর্ডের উচ্চ পর্যায়ের এক অতি দায়িত্বশীল সূত্র এমনটাই জানিয়েছে।

এদিকে সূত্র আরও নিশ্চিত করেছে যে, বাংলাদেশ এখন প্রথম অবস্থায় পাকিস্তান গিয়ে ৭ থেকে ৮ দিনের ভেতরে এক টেস্ট আর এক টি-টোয়েন্টি খেলে দেশে ফেরত আসতে চাচ্ছে। তারপর কিছু দিন বিরতি দিয়ে বাকি এক টেস্ট এবং দুই টি-টোয়েন্টি খেলতেও রাজি হয়েছে। তবে সেটা পরের বার। এবং এক টেস্ট আর সমান সংখ্যক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে আসার পর মাঝে কিছু দিন বিরতি দিয়ে অন্য কোন সময়ে।

বিসিবি থেকে বলা হয়েছে-প্রাথমিক সফরটা যদি ঠিকঠাকমতো শেষ হয়, নিরাপত্তা ও আনুষাঙ্গিক বিষয়গুলো ঠিক থাকলে এবং ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফরা সন্তুষ্ট থেকে স্বস্তিতে দেশে ফিরে আসলে পরেরবার বাকি খেলাগুলোও অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ খেলতে যাবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •