ওসমানীনগর ও বিশ্বনাথে জাতীয় শোকদিবসের পৃথক আলোচনা সভা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

ওসমানীনগর ও বিশ্বনাথে জাতীয় শোকদিবসের পৃথক আলোচনা সভা

প্রকাশিত: ৪:৪৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৬

ওসমানীনগর ও বিশ্বনাথে জাতীয় শোকদিবসের পৃথক আলোচনা সভা

awসিলেট-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংস করতেই পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্ব-পরিবারে হত্যা করা হয়ে ছিল। মুজিব আদর্শের মৃত্যু নেই, সেকথা ভুলে গিয়ে ছিল সেই পাকিস্তানী প্রেতাতœারা। বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুর শোককে শক্তিতে পরিণত করে আজ বাঙালিরা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। আর সেই উন্নয়ন ও অগ্রগতির নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী-জননেত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আরোও বলেন, খালেদা-তারেকের নেতৃত্বেই জামায়াত-বিএনপি এদেশে সন্ত্রাসী-জঙ্গিবাদ প্রতিষ্ঠায় লিপ্ত হয়ে ছিল। কিন্তু তাদের সকল প্রচেষ্টাকে ধ্বংস করে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এরই মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা।

বৃহস্পতিবার সিলেটের ওসমানীনগরে ও বিশ্বনাথে জাতির জনকের ৪১তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস’র আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথাগুলো বলেন। ওসমানীনগরে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ও বিশ্বনাথে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের উদ্যোগে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

উভয় আলোচনা সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুব্রত পুরকায়স্থ বলেন, বাংলার রাখাল রাজা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নিজের যোগ্যতায় মানুষের মনে বেঁচে থাকবেন শত শত যুগ ধরে। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ প্রতিষ্ঠা করে যারা এদেশ থেকে মুজিব আদর্শকে ধ্বংস করার পাঁয়তারায় লিপ্ত হয়ে ছিলেন তাদের সকলের সকল ষড়যন্ত্র ধ্বংস করে দিয়েছেন এদেশের মুজিব আদর্শের সৈনিকরা। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে বঙ্গবন্ধু তনয়া জননেত্রী-প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিকে করেছেন কলঙ্কমুক্ত।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ওসমানীনগরের তাজপুর ডাকবাংলোয় ওসমানীনগরে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আতাউর রহমান। সাধারণ সম্পাদক নাজলু চৌধুরীর পরিচালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন- জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক পীর এপতার হোসেন পিয়ার, উপ-দপ্তর সম্পাদক জগলু চৌধুরী, সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আফসার আজিজ, সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন আহমদ কয়েছ, আওয়ামী লীগ নেতা পীর মজনু মিয়া, নেফা মিয়া, যুবলীগ নেতা মুহিবুর রহমান, ঝলক পাল।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন কাজী হেলাল, চঞ্চল পাল, সেলিম রেজা, আরিজ আলী, মুকিত মিয়া, আশিক মিয়া, মাহবুবুর রহমান, হিরণ মিয়া, খুর্শেদ মিয়া, এম এ সালাম, খালিছ মিয়া, জিতু মিয়া, লুৎফুর রহমান ফারুক, আব্দুর রব, খালিক ডিলার, ডা. তখলিছ আলী, শাহ ইসমাইল আলী, লালা মিয়া, জাহেদুল আম্বিয়া কার্জন, সুহেল আহমদ মুন্না, আরিফুর রহমান চৌ. পুলক, সৈয়দ আলী আহমদ, এনাম আহমদ, মামুনুর রশীদ খলকু, কিবরিয়া আহমদ, মুকিত আহমদ, নুর মিয়া, সুহেল মিয়া, জাবেদ আহমদ। সভার শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন সালেহ আহমদ।

বিশ্বনাথে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রফিক মিয়ার আখতারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিকের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবুল আখতার, জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আফসার আজিজ, সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন আহমদ কয়েছ, দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আমির আলী, রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর, যুক্তরাজ্য সেচ্ছাসেবক লীগের সহ প্রচার সম্পাদক এম রুকন, বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শিক্ষা সম্পাদক জয়ন্ত আচার্য্য, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, মৌলভীবাজার সেচ্ছাসেবক লীগের সমাজ সেবা সম্পাদক আফির আলী, সিলেট জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোসাদ্দেক হোসেন সাজুল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মিল্লাদ চৌধুরী, সুহেল চৌধুরী, মঞ্জুরুল ইসলাম মজনু, দৌলতপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রাসেল আহমদ, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি এমদাদ রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক মুহিবুর রহমান সুইট।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের লামাকাজী ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক জহির উদ্দিন, খাজাঞ্চী ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক শাহ সিদ্দিকুর রহমান, দেওকলস ইউনিয়ন সভাপতি সুহেল খান, দশঘর ইউনিয়ন সভাপতি মুহিত চৌধুরী। সভার শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শাহ মোজাক্কির চিশতি ও গীতা পাঠ করেন দৌলতপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি ডাক্তার বিভাংশু গুন বিভু। প্রেসবিজ্ঞপ্তি