সিসিকের ওয়ার্ড পরিক্রমায়- ১ নং ওয়ার্ড – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সিসিকের ওয়ার্ড পরিক্রমায়- ১ নং ওয়ার্ড

প্রকাশিত: ২:০৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২০

সিসিকের ওয়ার্ড পরিক্রমায়-  ১ নং ওয়ার্ড

*ওয়ার্ডে গত পাঁচ বছরে ১ কোটি ৮০ লক্ষ টাকার কাজ সম্পুর্ণ
*ওয়ার্ডে নেই জলাবদ্ধতা। বেড়েছে ড্রেনের প্রশস্ততা।
*দরগা মাজারে নির্মিত হচ্ছে পার্কিং ব্যবস্থা।
* আলিয়া মাঠের রাত্রি যাপন মানুষের বৃদ্বাশ্রমের প্রয়োজন।
*ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে আম্বরখানা পয়েন্টের ভারসাম্যহীন ট্রাক চলাচলের বিরুদ্ধে।
*ওয়ার্ডে পাস হয়েছে ১ টি টেন্ডার ,শীগ্রই রাঁস্তার কাজ শুরু হচ্ছে।
*সৎ কর্মনিষ্ঠাবান কাউন্সিল, দাবি ১নং ওয়ার্ডবাসীর।

সুয়েবুর রহমান:
সিলেট মহানগর ১নং ওয়ার্ড। ৯টি মহল্লা নিয়ে গঠিত এই ওয়ার্ড। আম্বরখানা, দরগা মহল্লা, দর্শন দেউড়ি, দরগা গেইট, ঝর্নার পাড়, মীড়ের ময়দান, ফাজিল চিশত, পূর্ব সুবিদ বাজার, রাজার গলি। এই ওয়ার্ডে রয়েছেন গুণীজন, রয়েছে ইতিহাস ও দর্শনীয় স্থান। মহানগরের এই ওয়ার্ড দেশব্যাপী পরিচিত বলে ধারণা করা হয়। এর প্রধান কারণ, এই ওয়ার্ডে অন্তর্ভুক্ত দরগা মহল্লা নামক এলাকায় উপমহাদেশর বিখ্যাত সুফি দরবেশ হজরত শাহ জালাল (রহঃ)এর মাজার অবস্থিত। শাহ জালাল (রহঃ) পুর নাম শেখ শাহ জালাল কুনিয়াত মুজাররদ। ৭০৩ হিজরী মোতাবেক ১৩০৩ খ্রিষ্টীয় সালে ৩২ বছর বয়সে ইসলাম প্রচারের লক্ষ্যে ৩৬০ সফরসঙ্গী (আউলিয়া) নিয়ে বাংলাদেশের সিলেট অঞ্চলে এসেছেন। এই মাজারে রয়েছে মসজিদ, বিখ্যাত মাদ্রাসা, পুকুর, অলৌকিক ঝরণা, কবুতর সহ আরও অনেক কিছু। প্রতিদিন এই মাজার জিয়ারতের উদ্দেশ্য দেশের ভিবিন্ন স্থান থেকে হাজার হাজার মানুষের ঢ্ল থাকে।

এছাড়াও এই মাজারে শায়িত রয়েছেন, আরও অনেক গুণীজন। দরগা মহল্লা নামক এই এলাকার মাজারের প্রধান ফটকের রাঁস্তাটি বাংলাদেশের অন্যতম প্রথম খুঁটি ও তার বিহীন রাঁস্তা। তবে, এই রাঁস্তার দু’পাশে রয়েছে আবাসিক হোটেল। মাজার দর্শনার্থীদের সুবিধার্থে গড়ে উঠেছে এসব আবাসিক হোটেল। কিন্তু এসব হোটেলের নিজস্ব পার্কিং না থাকায় খুঁটি ও তার বিহীন রাঁস্তাটির সৌন্দর্যের উপর প্রভাব পড়ছে বলে জানিয়েছেন কয়েকজন দর্শনার্থী। এই রাঁস্তার দু’পাশে যান চলাচলের ব্যবস্থা থাকলেও রাঁস্তার মধ্যেস্থ জায়গায় অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে গাড়ি পার্কিংয়ের নিরাপদ স্থান। রয়েছে সিএনজি নিজস্ব স্ট্যান্ড। দরগা মহল্লার পশ্চিম পাশে রয়েছে বিখ্যাত আলিয়া মাদ্রাসা। রয়েছে উল্লেখযোগ্য একমাত্র খেলার মাঠ। প্রতিদিন এই মাঠে কমলমতি শিশুরা খেলাধুলা মগ্ন থাকে। কিন্তু রাতের আঁধারে এই খেলার মাঠের চাঁরদিক হয়ে উঠে আসহায় হতদরিদ্র ভাসমান মানুষের বিশ্রামাগার।

এছাড়াও ১নং ওয়ার্ড অন্তর্ভুক্ত আম্বরখানা এলাকা। এই এলাকা নগরীর অন্যতম ব্যবসাকেন্দ্র হিসাবে পরিচিত। এ এলাকায় রয়েছে চতুরমূখী রাঁস্তা। যার নাম আম্বরখানা পয়েন্ট। এই পয়েন্ট দিয়ে প্রতিনিয়ত যানবাহনের যাতায়াত বেশি। অথচ সুনিদিষ্ট পার্কিং না থাকায় প্রায়ই লেগে থাকে কাঁঠালের আঁঠার মত জ্যাম। এছাড়াও এই পয়েন্ট দিয়ে নগরীতে ভারসাম্যহীন ট্রাক চলাচল বেশি। হিসেব অনুযায়ী গত দুই মাসে নগরীতে ভারসাম্যহীন ট্রাকে ধাক্কায় ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। হজরত শাহ জালাল (রহঃ) মাজার অন্তর্ভুক্ত এই ১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন সৈয়দ তৌফিকুল হাদী। তিনি সৎ এবং কর্ম নিষ্ঠাবান কাউন্সিলর বলে দাবি ওয়ার্ডবাসীর।

১নং ওয়ার্ডের গুণীজন, ইতিহাস, ঐতিহাসিক স্থান ও ওয়ার্ডের উন্নয়ন বিষয়িক কর্মকাণ্ড সম্পর্কে কাউন্সিল বলেন, এই (১নং) ওয়ার্ডে তিনি ২য় বারের মতো কাউন্সিলরের দায়িত্ব পালন করছন। অতীতে এই ওয়ার্ডে বিভিন্ন সমস্যা ছিল। গত পাঁচ বছরে এই ওয়ার্ডে ১ কোটি ৮০ লক্ষ টাকার কাজ সম্পুর্ণ হয়েছে। ওয়ার্ডের প্রত্যেকটি এলাকার রাঁস্তা ও ড্রেনের, কাজ সম্পুর্ণ হয়েছে।এক সময় এই ওয়ার্ডে বর্ষাকালে জলাবদ্ধতা ছিল প্রধান সমস্যা। কিন্তু বর্তমানে এই জলাবদ্ধতা সমস্যা নেই। এবং এই ওয়ার্ডে বর্তমানে সাপ্লাই পানির (বিশুদ্ধ খাবার পানির) ও নেই সমস্যা। কাউন্সিলর আরও বলেন এবছর ওয়ার্ডে উন্নয়নের জন্য একটি মাত্র টেন্ডার পাস হয়েছে।

অতিশয় ওয়ার্ডের একটি মহল্লায় রাঁস্তা প্রশস্তের কাজ শুরু করা হবে। দরগা মহল্লা এলাকার খুঁটি ও তার বিহীন রাস্তার অবৈধ পার্কিং নিয়ে প্রশ্ন করলে কাউন্সিলর বলেন, অবৈধ এই পার্কিং বিরুদ্ধে নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। কিন্তু কোন ইতিবাচক দিক খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে মাজারে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসার দর্শনার্থীদের গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যৎতে মাজারের আশেপাশে অবৈধ পার্কিংয়ের স্থায়ী সমাধান পাওয়া যাবে। দরগা মহলার পশ্চিমপাশের আলিয়া মাদ্রাসা সংলগ্ন মাঠে রাত্রি যাপনকারী হতদরিদ্র মানুষদের নিয়ে কথা বললে তিনি বলেন, যারাই এখানে রাত্রি যাপন করেন তারা সবাই ভাসমান।

তবে এই সমস্যার সমাধানের জন্য সিলেটে বৃদ্বাশ্রমের প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করেন তিনি। আম্বরখান এলাকার চতুরমূখী রাস্তার যানযট এবং ভারসাম্যহীন ট্রাক চলাচল নিয়ে প্রশ্ন করলে কাউন্সিলার বলেন, এ বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। কি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ট্রাক চলাচলের জন্য নগরির বাহিওে বাইবাস একটি রোডে কাজ চলছে। ১নং ওয়ার্ডের উন্নয়ন সম্পর্কে মহিলা কাউন্সিলর এডভোকেট সালমা সুলতানা সঙ্গে যোগাযোগ সম্ভব হয়নি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল