কমিটি বাণিজ্যের ঘটনায় হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কার্যক্রম স্থগিত – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

কমিটি বাণিজ্যের ঘটনায় হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কার্যক্রম স্থগিত

প্রকাশিত: ১০:৩২ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০২০

কমিটি বাণিজ্যের ঘটনায় হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কার্যক্রম স্থগিত
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি 
হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান মাহির কমিটি বাণিজ্যসহ নানা অপকর্মের ঘটনায় জেলা ছাত্রলীগের সার্বিক কার্যক্রম স্থগিত করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কার্যালয়ে এক জরুরী সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সুত্রে জানা যায়, হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদের প্রলোভনে উপজেলা ছাত্রলীগ কর্মী মাহতাবুর আলম জাপ্পি ও তার আমেরিকা প্রবাসী বড় ভাইয়ের কাছ থেকে নগদ ও ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে ২০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন সাইদুর-মাহি। পরে মাহতাবুর আলম জাপ্পিকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ না দিয়ে উল্টো নানান টাল বাহানা শুরু করেন তারা। এদিকে, পদ এবং টাকা দুটোই হারিয়ে হবিগঞ্জ জেলার কর্ণধার নেতাদের কাছে দ্বারস্থ হলেও কোন উপায়ন্তর পাননি মাহতাবুর আলম জাপ্পি। উল্টো মাহতাবুর আলম জাপ্পিকে বিভিন্ন প্রশাসনিক কর্মকর্তা-ভুয়া পুলিশ পরিচয়ে দেয়া হয়েছে হুমকি-ধমকি। পরে বাধ্য হয়েই কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ বরাবরে লিখিত আবেদন প্রদান করেন জাপ্পি। এদিকে, জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বাণিজ্য ও সার্বিক দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে আন্দোলনে সামনে আসেন হবিগঞ্জ জেলার এক ঝাঁক তরুণ সচেতন ছাত্রলীগ কর্মীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে হবিগঞ্জ শহরের কামড়াপুর ব্রীজ এলাকায় জেলা ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটি বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন করে তারা। মানববন্ধনে তৃণমুল ছাত্রলীগ কর্মীরা এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণও করেন। মানববন্ধনে অংশ নেন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বাংলা বিভাগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক উজ্জল দাস চিনু, হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক সাকিব সাব্বির, সুবিধপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রাসু দাস গুপ্ত, সুবিধপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক প্রনব প্রমুখ। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘‘ঐতিহ্যবাহী এ ছাত্র সংগঠনটি গুটি কয়েক দুর্নীতিবাজের কারণে আজ কলংকিত। তাদের ব্যক্তিগত দুর্নীতির ভার কখনো ছাত্রলীগ নেবে না। কমিটি দেয়ার নামে হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুর ও সেক্রেটারি মাহি যে অপরাধ করেছে তা সম্পুর্ণ ক্ষমার অযোগ্য।’’ এদিকে, ঘটনা ফাঁস হয়ে গেলে দৈনিক সিলেটের দিনকাল, দৈনিক আমার হবিগঞ্জ, দৈনিক প্রথম আলো, দৈনিক ভোরের কাগজ, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন, এনটিভি অনলাইন, বাংলা ইনসাইডারসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয় তাদের দুর্নীতির সংবাদ। টাকা লেনদেনের বিভিন্ন তথ্যপ্রমাণ এবং অডিও রেকর্ড প্রচার ও প্রকাশ হওয়ায় এ নিয়ে রীতিমতো তোলপাড় সৃষ্টি হয় দেশ জোড়ে।

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল