কামরুল হাসান শাহীন কারাগারে ! নিন্দা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

কামরুল হাসান শাহীন কারাগারে ! নিন্দা

প্রকাশিত: ৫:২৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১০, ২০১৬

কামরুল হাসান শাহীন কারাগারে ! নিন্দা

নিজস্ব ডেস্ক:  সিলেট জেলা বিএনপি নেতা ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কামরুল হাসান শাহীনের জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (৯ নভেম্বর) মহানগর দায়রা জজ আদালতে হাজিরা দিতে গেলে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করেন। এসময় তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন আদালত। বুধবারই আদালত থেকে তাকে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিএনপি নেতা কামরুল হাসান শাহীন ৯০ দশকে সিলেট জেলা ছাত্রদলের সদস্য মনোনীত হন। পরবর্তীতে জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মনোনীত হন। ৯৬ সালে তিনি সিলেট জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন। তারপর জেলা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মনোনীত হন। ২০০৯ সালে সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মনোনীত হন কামরুল হাসান শাহীন।

তিনি বিগত বিয়ানীবাজার উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ছিলেন। ২০১৪ সালে বিয়ানীবাজার উপজেলা নির্বাচনে শক্তিশালী চেয়ারম্যান প্রার্থী থাকা সত্ত্বেও দলীয় আনুগত্য প্রদর্শন করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। এসময় বিয়ানীবাজার উপজেলা বিএনপির কার্যক্রম কিছুদিনের জন্য স্থগিত করা হয়।

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির নিন্দা ও প্রতিবাদ
সিলেট জেলা বিএনপি নেতা কামরুল হাসান শাহীন-এর জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ। অবিলম্বে বিএনপি নেতা কামরুল হাসান শাহীন সহ ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলায় কারাগারে আটক সকল দলীয় নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান তারা।

বুধবার এক যৌথ বিবৃতিতে সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, মহানগর সভাপতি নাসিম হোসাইন ও সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম, জেলা সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ বলেন- রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত মামলায় বিএনপি নেতা কামরুল হাসান শাহীনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের ঘটনায় আমরা বিস্মিত। অবৈধ সরকার আদর্শিক মোকাবেলায় ব্যর্থ হয়ে বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা জড়িয়ে জুলুম নিপীড়নের ষ্টীম রোলার চালাচ্ছে। জুলুম-নিপীড়ন চালিয়ে শহীদ জিয়ার আদর্শের সৈনিকদের দমিয়ে রাখা যাবেনা।

তারা অবিলম্বে বিএনপি নেতা কামরুল হাসান শাহীন সহ মিথ্যা মামলায় কারাগারে আটক সকল দলীয় নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবি জানান।