কারা হাসবেন শেষ হাসি? – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

কারা হাসবেন শেষ হাসি?

প্রকাশিত: ৬:৪৬ অপরাহ্ণ, মে ৩, ২০১৬

কারা হাসবেন শেষ হাসি?

21032প্রচার প্রচারণায় এখন সরগম দক্ষিণ সুরমা উপজেলা। আগামী ৭ মে এই উপজেলার ৭ টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। শেষ সময়ে এসে প্রচার প্রচারণায় এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। ভোটাররাও হিসেব কষছেন।

এই উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে দ্বিমুখী, ত্রিমূখী ও চুর্তুমূখী লড়াই হতে পারে বলে জানিয়েছেন ভোটাররা।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইমদাদুল হক সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, দক্ষিণ সুরমা উপজেলার ৭ টি ইউনিয়নের ১লক্ষ ২৪ হাজার ৯শত ৬১ জন ভোটার রয়েছেন। শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের লক্ষ্যে সব ধরণের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

বরইকান্দি : দক্ষিণ সুরমা উপজেলার ২ নং বরইকান্দি ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৫জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। এই ইউপিতে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিএনপির মো.হাবিব হোসেন ও নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামীলীগের হাজী মো.রইছ আলীর মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বলে মনে করছেন স্থানীয় ভোটাররা।

এ ইউনিয়নে আরো ৩ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন। এরা হলেন, অটোরিক্সা প্রতীক নিয়ে মো.আওলাদ হোসেন, আনারস প্রতীকে শাহ্ আব্দুল মালিক ওমর ও মোটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে মো. রেহান আহমদ হারিছ।

কুচাই : উপজেলার ৪ নং কুচাই ইউপিতে প্রধান ২ টি দলের মাত্র ২জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। গুরুত্বপূর্ণ এ ইউপিতে আওয়ামী লীগের জাকিরুল আলম জাকির ও বিএনপির মো. আবুল কালাম নিজ নিজ দলীয় মনোনয়নে এই ইউপিতে প্রার্থী হয়েছেন।

স্থানীয় ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা যায়, জাকির ও কালামের মধে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে । আবুল কালাম বিগত আঠারো বছর ধরে চেয়ারম্যান হিসেবে থাকায় নির্বাচনী সমীকরণ অনেকটাই তার নখদর্পনে তবে নৌকা প্রতীক নিয়ে অপেক্ষাকৃত তরুণ প্রার্থী জাকিরুল আলম জাকির ইতিমধ্যে ভোটারদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে সমর্থ হয়েছেন।

সিলাম : ৫নং সিলাম ইউপিতে প্রধান ২ টি রাজনৈতিক দলের বাইরে স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন ৩ জন। ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির প্রার্থী মো. ইকবাল হোসেন, আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে মো. ইকরাম হোসেন, মোটর সাইকেল প্রতীকে এম কে করিম কাওছার, আনারস প্রতীকে এস এ ফয়সল ও ঘোড়া প্রতীকে উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি মো.মুজিবুর রহমান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এ ইউপিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে মূলত ত্রিমুখি। প্রধান ২টি দলের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন মুজিবুর রহমান এমনটাই জানিয়েছেন একাধিক ভোটার।

লালাবাজার : ৬ নং লালাবাজার ইউপিতে এবারের দলীয় প্রতীকের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে মো তোয়াজিদুল হক, বিএনপির মো. সফিক আহমদ, ইউপির স্বতন্ত্র প্রতীকের অপর ৪ জন প্রার্থী হয়েছেন আনারস প্রতীকে পীর মো. ফয়জুল হক, রজনীগন্ধা প্রতীকে মো. মামুনুর রহমান চৌধুরী, ঘোড়া প্রতীকে মো শহিদুর রহমান, অটোরিক্সা প্রতীকে মো. নুরুল আমীন আওলাদার।

এই ইউপিতে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে জামায়াতের পীর মো. ফয়জুল হক, আওয়ামী লীগের তোয়াজিদুল হক ও বিএনপির মো. শফিক আহমদের মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হতে পারে।

৭ নং জালালপুর ইউপিতে মোট ৬ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদের জন্য লড়ছেন। বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকে জিয়াউর রহমান, নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের শহিদুর রহমান শাহীন, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি ন্যাপের ইয়াওর বক্ত চৌধুরী। এই ইউপির স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন আনারস প্রতীক নিয়ে আল ইসলাহ্ র কয়েছ মিয়া, টেলিফোন প্রতীকে চরমোনাই পীরের অনুসারী মো. ফখরুল ইসলাম ও মোটর সাইকেল প্রতীকে বর্তমান চেয়ারম্যান জামায়াতে ইসলামীর রাজনীতিতে সম্পৃক্ত মো. সোলাইমান হোসেন।

স্থানীয় ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে কয়েছ মিয়া, জিয়াউর রহমান, সুলাইমান হোসেন ও শহিদুর রহমান শাহীনের মধে। এই ইউনিয়নে চর্তুমুখী লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে অভিমত ভোটারদের।

মোগলাবাজার : ৮ নং মোগলাবাজার ইউপিতে ৬ জন প্রার্থীর মধ্যে দলীয় প্রতীকে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩ জন। দলীয় প্রতীকের প্রার্থীরা হলেন-  আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে মো.ফকরুল ইসলাম (সায়েস্তা), বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে মো. মাহমুদুল হক (সুহেল) ও জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে নিমার আলী। এর বাইরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি ঘোড়া প্রতীকে আতাউর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান মোটর সাইকেল প্রতীকে মো.চুনু মিয়া ও আনারস প্রতীকে বিএনপি নেতা মো.মুকিত মিয়া।
এই ইউপিতে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা ফকরুল ইসলাম সাইস্তা, মাহমুদুল হক সুহেল ও চুনু মিয়ার মধ্যে হতে পারে বলে জানিয়েছেন ভোটাররা।

দাউদপুর : ৯ নং দাউদপুর ইউপিতে ৭ জন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ইউপি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুল হক নৌকা প্রতিক নিয়ে, ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে এইচ এম খলিল ও আনারস প্রতীক নিয়ে ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান মো নুরুল ইসলাম মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। মুলত এই ইউপিতেও ত্রিমুখি ভোটের লড়াই হবে বলে জানিয়েছেন ভোটাররা।

এই ইউপিতে অপর ৪ স্বতন্ত্র প্রার্থীরা হলেন, মটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে আপ্তাবুল ইসলাম, অটোরিক্সা প্রতীক নিয়ে আলাউদ্দিন, ঘোড়া প্রতীক নিয়ে ছালিক আহমদ, ও চশমা প্রতীক নিয়ে মো. শরিফ উদ্দিন।