“ক্লিন সিটি,স্মার্ট সিটি” গড়ার স্বপ্নদ্রষ্টা হতে চান সিলেট নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

“ক্লিন সিটি,স্মার্ট সিটি” গড়ার স্বপ্নদ্রষ্টা হতে চান সিলেট নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ

প্রকাশিত: ৮:৫৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৭

“ক্লিন সিটি,স্মার্ট সিটি” গড়ার স্বপ্নদ্রষ্টা হতে চান সিলেট নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ

“ক্লিন সিটি,স্মার্ট সিটি” এই স্লোগানে সিলেট সিটি কর্পোরেশন গড়ার অঙ্গিকার নিয়ে নগরের প্রত্যকটি ওয়ার্ডের বিভিন্ন সামাজিক,ধর্মীয় অনুষ্ঠানে এবং তৃণমূল কর্মীদের ঘরে দোয়ারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ। সিলেট নগরের প্রত্যকটি ওয়ার্ডে এলাকাবাসীদের সাথে যোগাযোগ করে যাচ্ছেন প্রতিনিয়ত এই কর্মীবান্ধব নেতা।উপস্থিত থাকছেন নগরীর বিভিন্ন সাংস্কৃতিক আচার অনুষ্ঠানে।প্রত্যেক পাড়া-মহল্লার বিভিন্ন খেলাধুলার ক্লাব,সংস্থা ও সংগঠনগুলোর মিটিংগুলোতেও নিয়মিত উপস্থিত থেকে জনসমর্থন বৃদ্ধি করে যাচ্ছেন।উনি শুধুমাত্র সিটি কর্পোরেশনে মেয়র নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য নয়, উনি সিলেটবাসীর কাছেই পরিচিত কর্মীবান্ধব এবং পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবে। শুধুমাত্র সিলেটবাসী নয় কেন্দ্রীয় এবং সকল রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীদের কাছেও গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে এই নেতার। ক্লিন ইমেজেধারী এই নেতা ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতি করে আসছেন।আসাদ উদ্দিন আহমদ মদন মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সফল নির্বাচিত ভি.পি ও নির্বাচিত জি.এস ছিলেন,ছিলেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগ এর সফল সভাপতিও।তৃণমূল কর্মী থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনা ক্লিন ইমেজের এই ব্যক্তিকে সিলেট নগর আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত করেন। বর্তমানে এই নিরহংকারী মানুষটি একটি ইন্সুরেন্স কোম্পানিতে কর্মরত আছেন।উনার সাদামাটা চলাফেরায় আশ্চর্য হওয়ার মত,কারণ এখনো উনি রিক্সা চড়ে বা পায়ে হেটেঁ নগরের প্রত্যকটি ওয়ার্ডে ঘুরে বেড়ান।শুধু তাই নয় উনার বাসায় বড় গাড়ি যাওয়ার রাস্তাটুকুও নেই।অবৈধ রাজনৈতিক ক্ষমতা ব্যবহার করে গাড়ি বাড়ির মালিক হওয়ার চেষ্টাও করেন নি আসাদ উদ্দিন আহমদ।এতো ক্ষমতা থাকা স্বত্ত্বেও নিরহংকার এই মানুষটি অন্য নেতাদের মত আঙ্গুল ফোঁলে কলা গাছ হননি বলেই নগরীর প্রত্যকটি ওয়ার্ডের জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া পাচ্ছেন এবং সবার কাছে পরিচ্ছন্ন এবং সর্বমহলে গ্রহণযোগ্য রাজনীতিবিদ হিসেবে পরিচিত হয়েছেন। আগামী সিটি কর্পোরেশন এর মেয়র নির্বাচন সম্পর্কে আসাদ উদ্দিন এর কাছে প্রশ্ন করলে বলেন- “প্রত্যেক রাজনৈতিক কর্মীর জনপ্রতিনিধি হওয়ার আকাঙ্ক্ষা বা স্বপ্ন থাকে,আমিও সেই লক্ষে নগরবাসীর সেবা করার জন্য এগিয়ে যাচ্ছি।মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে দলীয় মনোনয়ন দেন তাহলে বিজয় দিয়ে উনার এই প্রতিদান এবং মর্যাদা রাখবো”।তবে কেন্দ্র থেকে যে নির্দেশনা পাবেন সেই নির্দেশনা পালন করবেন বলেই জানান তিনি। উল্লেখ্য,সর্বশেষ সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন হয় ২০১৩ সালের ১৫ জুন।এ হিসাবে আরো বছর দেড়েক বাকি।এরই মধ্যে নগরীর বিভিন্ন অলি-গলিতে পোস্টার ফেস্টুন শোভা পাচ্ছে।এই আগাম প্রচারণায় নগরবাসির মধ্যে কৌতহল দেখা দিয়েছে। তবে আগামীর সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নগরপিতা হিসেবে আসাদ উদ্দিন এর নাম সর্বমহলে আলোচিত। শাফক্বাত হাসান; সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল