গণতন্ত্র ফেরানোর শপথ নেয়ার আহ্বান আমীর খসরু মাহমুদের – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

গণতন্ত্র ফেরানোর শপথ নেয়ার আহ্বান আমীর খসরু মাহমুদের

প্রকাশিত: ৯:০৮ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৩০, ২০১৬

গণতন্ত্র ফেরানোর শপথ নেয়ার আহ্বান আমীর খসরু মাহমুদের

resize48612-696x436৩০ অক্টোবর ২-১৬. রবিবার: দেশের গণতন্ত্রকে ‘হারানো গণতন্ত্র’ উল্লেখ করে তা ফিরিয়ে আনতে নেতাকর্মীদের শপথ নেয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে পেশাজীবী ও ছাত্রছাত্রীসহ সব শ্রেণির মানুষদের এগিয়ে আসতে হবে। অন্যথায় জাতি যে সংকটের মধ্যে আছে, এই সংকট আরও বৃদ্ধি পাবে।

রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে জিয়া পরিষদ আয়োজিত বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আ স ম হান্নান শাহের স্মরণসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

‘শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র উন্নয়নের গণতন্ত্র’- আওয়ামী লীগের এ স্লোগানের কথা উল্লেখ করে আমীর খসরু বলেন, উন্নয়নের ওপর নির্ভর করে আইয়ুব খানও দেশ শাসন করেছেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আইয়ুব খান টিকে থাকতে পারেননি। আজকে একইভাবে আওয়ামী লীগ বাক-স্বাধীনতা, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা হরণ ও জনগণের ভোটাধিকার হরণ করে দেশ পরিচালনা করছে। তবে এ ধরনের শাসনে আইয়ুব খান থাকতে পারেননি, হাসিনাও পারবেন না।

আমীর খসরু মাহমুদ বলেন, আজকে ব্যবসা-বাণিজ্যে জনগণের অংশগ্রহন নেই, এর কারণ হলো একটি গোষ্ঠীর কারনে জনগণ ব্যবসা করতে পারছে না।

তিনি বলেন, আমাদের কাছে ব্যবসায়ীরা এসে বলছেন আওয়ামী লীগের লোকজনের কারণে তারা ব্যবসা করতে পারছেন না, পেশাজীবীরা বলছেন তারা কাজ করতে পারছেন না, ছাত্ররা লেখাপড়া করতে পারছে না, চিকিৎসকরা চিকিৎসা দিতে পারছেন না।

বিএনপির এ নেতা আরও বলেন, আওয়ামী লীগের সম্মেলন উপলক্ষে বিভিন্ন সরকারি সংস্থার কার্যালয়ে ব্যানার লাগানো হয়েছিল, সেখানে লেখা- শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র, উন্নয়নের গণতন্ত্র। সত্যিকার অর্থে দেশে গণতন্ত্র নেই। এমন গণতন্ত্রের উন্নয়ন আমরা আয়ূব খানের আমলে দেখেছি। আজকে জনগণের ভোটের অধিকার, আইনের শাসন ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা কেড়ে নিয়ে বলা হচ্ছে উন্নয়নের গণতন্ত্র, কিন্তু উন্নয়নের নামে দেশে লুটপাট হচ্ছে। গণতন্ত্রবিহীন কোনো দেশে টেকসই উন্নয়ন হতে পারে না। গণতন্ত্র কেড়ে নিয়ে কোনো সরকার বেশিদিন টিকে থাকতে পারেনি।

আমীর খসরু অভিযোগ করেন, সুইচ ব্যাংকে বাংলাদেশের আমানত বাড়ছে, কানাডা, মালয়েশিয়া, ডুবাই, আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশিদের সম্পদ বৃদ্ধি পাচ্ছে, সেটা উন্নয়নের আরেক রূপ!

জনগণের নাগরিক অধিকার নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, শুধু বিএনপি নয়, সবাইকে এগিয়ে এসে গণতন্ত্র, ভোট ও নাগরিকদের অধিকার ফিরিয়ে আনতে হবে। প্রয়াত হান্নান শাহ গণতন্ত্রের জন্য যে লড়াই করে গেছেন, সেই পথকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

জিয়া পরিষদের চেয়ারম্যান ও বিএনপি চেয়ারপারসন উপদেষ্টা কবীর মুরাদের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা প্রফেসর আব্দুল কুদ্দুস, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, বিএনপি নেতা কেএম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল