সম্মেলনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী বহিষ্কারের দাবিতে গোলাপগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সম্মেলনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী বহিষ্কারের দাবিতে গোলাপগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল

প্রকাশিত: ৬:২৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৫, ২০১৯

সম্মেলনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী বহিষ্কারের দাবিতে গোলাপগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল

নিজস্ব প্রতিবেদক :: গোলাপগঞ্জ উপ‌জেলা আওয়ামীলী‌গের কাউ‌ন্সিল বানচালকারী‌দের ‌বিরু‌দ্ধে ঐক্যবদ্ধ হ‌য়ে‌ছে আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছা‌সেবকলীগ ও ছাত্রলীগ।

গত ১৩ ন‌ভেম্বর উপ‌জেলা স‌ম্মেলন শে‌ষে কাউ‌ন্সিল চলাকা‌লে সা‌বেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম না‌হি‌দের বিরু‌দ্ধে কুরু‌চিপূর্ণ বাক্য উচ্চারণ ক‌রে মি‌ছিল দেয়ার প্র‌তিবা‌দে শুক্রবার (১৫ ন‌ভেম্বর) বিকা‌লে গোলাপগঞ্জ চৌমুহনী‌তে এক বি‌ক্ষোভ মি‌ছিল ও প্র‌তিবাদ সভা অনু‌ষ্ঠিত হয়।

প্র‌তিবাদ সভাপূ‌র্বে খন্ড খন্ড মি‌ছি‌লে মু‌খো‌রিত হ‌য়ে উ‌ঠে পৌর সদর। গোলাপগ‌ঞ্জে মাটি, না‌হিদ ভাই‌য়ের ঘা‌টি ও না‌হিদ ভাই, না‌হিদ ভাই স্লোগা‌নে মু‌খো‌রিত ক‌রে নেতাকর্মীরা।

মি‌ছিল শে‌ষে ‌বিকাল সা‌ড়ে ৪টায় ‌চৌমুহনী অনু‌ষ্ঠিত প্র‌তিবাদ সভায় উপ‌জেলা কাউ‌ন্সিল বানচালকারী‌দের দুর্নী‌তিবাজ, লু‌টেরাজ ও দালাল আখ্যা‌য়িত ক‌রে বক্তারা ব‌লেন, সা‌বেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম না‌হিদ এম‌পি দে‌শের শিক্ষাখাত‌কে বি‌শ্বের দরবা‌রে যেভা‌বে প্রশং‌সিত ক‌রে‌ছেন একইভা‌বে তিনি ‌গোলাপগঞ্জ আওয়ামীলীগ‌কে সুসংগ‌ঠিত ক‌রে‌ছেন। দল‌কে সুসংগ‌ঠিত করে গ‌ড়ে তোলা যা‌দের পছন্দ হয়‌নি তারাই ১৩ ন‌ভেম্বর শা‌ন্তিপূর্ণ কাউ‌ন্সিল‌কে কলু‌ষিত ক‌রে‌ছে। তারা কখনও দ‌লের জন্য নি‌বে‌দিত নয়, বরং তারা দ‌লের জন্য বি‌স্ফোড়ক। তৃণমূ‌লের নেতাকর্মীরা তা‌দের‌ বয়কট ক‌রে‌ছে, এর প্রমাণ আজ‌কে নেতাকর্মীদের জোয়ার।

উপ‌জেলা আওয়ামীলী‌গের দফতর সম্প‌াদক আলী আকবর ফখ‌রের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেন, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য সৈয়দ মিছবাহ উ‌দ্দিন, গোলাপগঞ্জ পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামীলী‌গের নব‌নির্বা‌চিত সভাপ‌তি আ‌মিনুল ইসলাম রা‌বেল, উপ‌জেলা প‌রিষ‌দের ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা স্বেচ্ছাসেবকলী‌গের সি‌নিয়র যুগ্ম সম্পাদক মনসুর আহমদ, পৌর কাউ‌ন্সিলর ও উপ‌জেলা স্বেচ্ছা‌সেবকলীগের সভাপ‌তি রু‌হিন আহমদ খান।

অন্যা‌ন্যের ম‌ধ্যে উপ‌স্থিত ছি‌লেন, উপ‌জেলা যুবলীগের আহবায়ক ও‌য়েছুর রহমান ও‌য়েছ, আওয়ীলীগ নেতা আ‌নোয়ার হো‌সেন সোনা, জ‌হিরুল ইসলাম, আর্জমন্দ আলী, রু‌মেল সিরাজ, এমদাদ রহমান, সে‌লিম আহমদ, আব্দুল আলিম, সোলেমান আহমদ, কামরান আহমদ, ফখরুল ইসলাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ প্রায় ১৬ পর গত ১৩ নভেম্বর উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন শেষে শুরু হয় কাউন্সিল। কাউন্সিলরা যখন ভোটের মাধ্যমে নেতা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ঠিক তখনই প্রস্তাব আসে সমঝোতার মাধ্যমে উপজেলা কমিটি গঠনের। প্রস্তাবের সাথে সাথে উপস্থিত ডেলিগেটরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। এসময় সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, এডভোকেট মিছবাহ উদ্দিন সিরাজ, কেন্দ্রীয় সদস্য বদর উদ্দিন আহমদ কামরানসহ জেলা নেতৃবৃন্দ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। নেতাকর্মীদের শান্ত থাকার জন্য নেতৃবৃন্দ বার বার অনুরোধ করলেও বিক্ষুব্ধদের থামানো যায়নি। ফলে কমিটি গঠন না করে সভাস্থল ত্যাগ করেন নেতৃবৃন্দ। পরে রাতে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা গোলাপগঞ্জ পৌর সদরে গিয়ে সড়ক অবরোধ করে সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর জড়িয়ে নানা স্লোগান দিতে থাকেন।