চিকিৎসা সেবায় অবহেলা! নিঃস্ব হয়ে ফিরছেন রোগীরা কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নানা অনিয়ম-র্দুনীতি(পর্ব-৪) – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

চিকিৎসা সেবায় অবহেলা! নিঃস্ব হয়ে ফিরছেন রোগীরা কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নানা অনিয়ম-র্দুনীতি(পর্ব-৪)

প্রকাশিত: ১০:০৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০

চিকিৎসা সেবায় অবহেলা! নিঃস্ব হয়ে ফিরছেন রোগীরা কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নানা অনিয়ম-র্দুনীতি(পর্ব-৪)

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
সিলেটর কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নানা অনিয়ম দুর্নীতি’র পাশাপাশি চিকিৎসা সেবায় অবহেলা আর পকেট চোরদের দৌড়াত্বে নিঃস্ব হয়ে বাড়িতে ফিরতে হচ্ছে অসহায় রোগীদের। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় একের পর এক পকেট চুরির ঘটনা ঘটছে। বিশেষ করে মহিলারা কোন ক্রমেই চোরদের কবল থেকে রেহাই পাচ্ছে না। উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রতিদিন রোগীরা আসেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নানা বিড়ম্ভনার শিকার হয়ে তাদের নিঃস্ব হয়ে বাড়িতে ফিরতে হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে বার বার ভুক্তভোগীরা মৌখিক ভাবে অভিযোগ দিলেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। সচেতন মহলের মত সিসি ক্যামেরা থাকা সত্বেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় এখানে পকেট চোরের দৌড়াত্ব বেড়েই চলছে। রোগীদের টাকা পয়সা, মূল্যবান জিনিসপত্র এমনকি স্বর্ণালংকার পর্যন্ত চুরি হচ্ছে। গোটা হাসপাতাল সিসি ক্যামেরা আওতায় থাকলেও আজ পর্যন্ত একটি চোরও ধরে পড়েনি। এতে জনমনে নানা সন্দেহের তীর বাধঁছে। অনেকের মতে চোরদের সাথে হাসতালের কারো না কার হাত থাকতে পারে। গত সোমবার সকাল ১১টার দিকে হাসপাতালে ডাক্তার দেখানোর জন্য যান পৌরসভার ডালাইচর গ্রামের সালেহা বেগম নামে এক মহিলা। তিনি ডিসপেনসারি থেকে ডাক্তার দেখানো স্লিপ সংগ্রহকালে তার হাতে থাকা কাপড়ের একটি ব্যাগ ব্লেড দিয়ে কেটে নগদ সাড়ে ১২ হাজার টাকা চুরি হয়ে যায়। টাকা হারিয়ে সালেহা বেগম হাসপাতালে ছুটোছুটি শুরু করেন, কিন্তু কোন প্রতিকার না পেয়ে তার চাচাতো ভাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাব উদ্দিন ও ভাই উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক এনামুল হককে ঘটনাটি জানান। তারা হাসপাতালে আসার পর যেহেতু সিসি ক্যামেরা রয়েছে কে সালেহা বেগমের টাকা ব্যাগ কেটে চুরি করে নিয়েছে তা সিসি ক্যামেরায় দেখার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানান। এ সময় পরিসংখ্যানবিদ সুবোধ চন্দ্র দাস জানান, হাসপাতালের টিএইচও ডাঃ শেখ শরফ উদ্দিন নাহিদ ঢাকায় অবস্থান করছেন। সিসি ক্যামেরায় মনিটর তার অফিস রুমে রয়েছে, সেটির হার্ডডিক্স নষ্ট থাকার কারনে সিসি ক্যামেরায় চুরির দৃশ্য রেকর্ড হয়নি। এনামুল হক, শাহাব উদ্দিন সহ হাসপাতালে আগত অনেকে জানিয়েছেন, সরকার হাসপাতালের উন্নয়নে ও বিভিন্ন খাতে লক্ষ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দিলেও সেটি কেন মেরামত করা হয় না? এদিকে হাসপাতালের নানা অনিয়ম-র্দূনীতির ফিরিস্তি তুলে ধরে সচেতন নাগরিকদের পক্ষে আনোয়ার হোসেন নামের একজন বাদী হয়ে হাসপাতালের টিএইও শেখ শরফ উদ্দিন নাহিদ ও অফিস সহায়ক শামীম আহমদকে বিবাদী করে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি এ অভিযোগ দায়ের করেন…….।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল