চোরাগোপ্তা হামলায় মিয়ানমারের আরও ৫০ সেনা নিহত – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

চোরাগোপ্তা হামলায় মিয়ানমারের আরও ৫০ সেনা নিহত

প্রকাশিত: ৯:৫০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৫, ২০২১

চোরাগোপ্তা হামলায় মিয়ানমারের আরও ৫০ সেনা নিহত

অনলাইন ডেস্ক ::
বিদ্রোহীদের চোরাগোপ্তা হামলায় মিয়ানমারে আরও ৫০ সেনা নিহত হয়েছে। শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছে মিয়ানমার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ইরাওয়াডি।

খবরে বলা হয়, মিয়ানমারে বিদ্রোহী জাতিগোষ্ঠী ও প্রতিরোধ যোদ্ধাদের চোরাগোপ্তা হামলায় কোণঠাসা হয়ে পড়ছে দেশটির সেনাবাহিনী। বুধবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত ৫০ সেনা নিহত হয়েছে।

এর আগে রোববার থেকে বুধবার পর্যন্ত চার দিনের হামলায় ৮৮ জন সেনাসদস্য নিহত হয়।

দেশটির মান্দালয়, স্যাগাইং, ইয়াঙ্গুন ও কায়ার ভিন্ন এলাকায় ওঁৎ পেতে থাকা প্রতিরোধ যোদ্ধাদের (পিপল ডিফেন্স ফোর্সের, পিডিএফ) হামলায় বুধবার থেকে শুক্রবার নতুন করে এই ৫০ সেনা নিহত হয়। সব মিলিয়ে গত পাঁচদিনে ১৩৮ সেনা নিহত হয়েছে।

স্যাগাইং অঞ্চলের সোয়ে বো জেলায় শুক্রবার ভোরে বেসামরিক সশস্ত্র বাহিনীর এক হামলায় কমপক্ষে ১২ জন জান্তাসেনা নিহত হয়েছে বলে খবরে দাবি করা হয়। খিন-ইউ টাউনশিপের মায়াকান গ্রামের কাছে দুটি সামরিক যান ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণে বুধবার নিহত হয় আট জান্তাসেনা।

মিয়াংয়ের সিভিলিয়ান ডিফেন্স অ্যান্ড সিকিউরিটি অর্গানাইজেশন (সিএিসওএম) দাবি করেছে, বৃহস্পতিবার বিকালে স্যাগাইংয়ের মিয়াং টাউনশিপে পুঁতে রাখা মাইন বিস্ফোরণে নিহত হয়েছে আরও ১০ জান্তাসেনা।

একই দিন সকালে আরও দুটি সেনাযানে আক্রমণ চালিয়েছিল সিডিএসওএম। এতে কতজন সেনা হতাহত হয়েছে, সে খবর জানতে পারেনি তারা।

তবে বৃহস্পতিবার রাতে মান্দালয়ের নাতোগি ও কিয়াউক্সি টাউনশিপেও নাগরিক যোদ্ধাদের জিরো গেরিলা ফোর্স সুফিউকোন গ্রামের একটি স্কুলের সামনে অবস্থানরত ক্ষমতাসীন সেনাদের ঘুমন্ত একটি দলকে আক্রমণ করেছিল। জিরো গেরিলা ফোর্স দাবি করেছে এ সময় কমপক্ষে ১২ জন সেনা নিহত হয়েছে এবং বহু আহত হয়েছে।

মান্দালয়ের এক বাসিন্দা জানিয়েছে, ‘একটি ট্রেনে মাইন বিস্ফোরণের ঘটনায় কমপক্ষে ১০ জান্তাসেনা নিহত হয়েছে। ট্রেনটি যাত্রী পরিবহণের দায়িত্বে থাকলেও সেটির ভেতরে কোনো যাত্রী ছিল না। কারণ, যাত্রীদের উঠতে না দিয়ে সেনারা খাদ্যসহ অন্যান্য সামগ্রী আনা-নেওয়ার কাজে ট্রেনটি ব্যবহার করছিল।’