চেয়ারপার্সন ও গণমাধ্যমের ওপর আক্রমণ গণতন্ত্রের সঙ্কটকে আরো ঘনীভূত করল-বি.সেলিম – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

চেয়ারপার্সন ও গণমাধ্যমের ওপর আক্রমণ গণতন্ত্রের সঙ্কটকে আরো ঘনীভূত করল-বি.সেলিম

প্রকাশিত: ৪:০৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২, ২০১৭

চেয়ারপার্সন ও গণমাধ্যমের ওপর আক্রমণ গণতন্ত্রের সঙ্কটকে আরো ঘনীভূত করল-বি.সেলিম

সিলেট মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গাড়িবহর ফেনী শহরে ঢোকার সময় আকস্মিকভাবে আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসীরা বহরের ওপর হামলা চালিয়ে গাড়ি ভাঙচুর ও দলের নেতাকর্মীদের আহত করেছে। এমনকি বহরে থাকা গণমাধ্যমের গাড়িতেও হামলা চালিয়েছে আওয়ামী লীগ বাহিনী। দুর্দশাগ্রস্ত ও অসহায় রোহিঙ্গাদের ত্রাণ দেয়ার জন্য দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া দলের নেতৃবৃন্দসহ কক্সবাজারের যান। তার এই সফরের উদ্দেশ্য সম্পূণরূপে মানবিক সহায়তার জন্য। রোহিঙ্গাদের খাদ্য, চিকিৎসা ও জীবনধারণের জন্য যতটুকু সম্ভব প্রয়োজনীয় সামগ্রীসহ দলের পক্ষ থেকে তিনি ত্রাণ বিতরণ করবেন। কিন্তু ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মানবতা ও মানুষের দুঃখ-বেদনাকে পরোয়া করে না।
তিনি আরো বলেন, বেগম জিয়ার বিপুল জনপ্রিয়তায় কাণ্ডজ্ঞান হারিয়ে এখন ভোটারবিহীন সরকার জনগণের ওপর প্রতিশোধ নিতেই বরাবরের মতো সন্ত্রাসকে অবলম্বন করে দেশনেত্রীর গাড়িবহরে বেপরোয়া হামলা চালিয়েছে। আওয়ামী লীগের কৃতিত্ব হচ্ছে গণতন্ত্রকে বধ করে বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করতে নিষ্ঠুর-নির্দয় নির্যাতন করা। এই হামলায় শুধু ব্যাপক গাড়ি ভাঙচুরই হয়নি, গণমাধ্যমের অনেক সাংবাদিক সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত হয়েছেন। বিএনপির অনেক নেতাকর্মী আওয়ামী ক্যাডারদের বর্বরোচিত আক্রমণে আহত হয়েছেন। বিএনপি চেয়ারপারসনের গাড়িবহর এবং বিএনপি নেতাকর্মীদের গাড়িসহ গণমাধ্যমকর্মীদের ওপর এই আক্রমণ বর্তমানে গণতন্ত্রের সঙ্কটকে আরো ঘনীভূত করল।
তিনি বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদল স্বেচ্ছাসেবকদল ও ছাত্রদলের উদ্যোগে মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক নাবিল রাজা চৌধুরীর কারামুক্তি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতি লোকমান আহমদের সভাপতিত্বে ও মদন মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি কাজী মেরাজের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাফেক মাহবুব, বিএনপির সহ-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আলমগীর বক্ত চৌধুরী শুয়েব। আরো বক্তর‌্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম, যুবদল নেতা দেওয়ান আরাফাত চৌঃ জাকির, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা জেহিন আহমদ, জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি লিটন আহমদ, জামাল আহমদ খান, নাসির উদ্দীন রহিম, ইমাদ উদ্দিন চৌধুরী, সৈয়দ হারুনুর রশিদ হারুন, আরজু আহমদ, সাজন আহমদ, মজিদ আহমদ, আব্দুল করিম জোনাক, জেলা ছাত্রদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, সায়েদ আহমদ দিপক, সৈয়দ মিজান,  জেলা ছাত্রদলের শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদক নাহিয়ান আহমদ রিপন, পরিবেশ ও জলবায়ু বিষয়ক সম্পাদক আলী আকবর রাজন, মিজানুর রহমান, সাকিবুজ্জামান সাকিব, তরুণ প্রজন্ম দলের সহ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সাধন কর, সালাউদ্দিন আহমদ, লিটন আহমদ, শহিদ হোসেন টিটু, রুম্মানুর রশিদ খান মুন্না, মারুফ আহমদ, শেখ স্বাধীন, রুহেল ইসলাম, জাহেদ তালুকদার, রাজু আহমদ, জাবেদুর রহমান, সৌরভ আহমদ, উজ্জ্বল আহমদ, জাহেদ, রুমন চৌধুরী, মুরাদ আহমদ,শরীফ আহমদ, শিবলু, সুজন, শাহিন প্রমুখ।