ছাতকে লাফার্জের বিরুদ্ধে খোলাবাজারে চুনাপাথর বিক্রির অভিযোগের শুনানি সম্পন্ন – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

ছাতকে লাফার্জের বিরুদ্ধে খোলাবাজারে চুনাপাথর বিক্রির অভিযোগের শুনানি সম্পন্ন

প্রকাশিত: ৭:২১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৮, ২০২১

ছাতকে লাফার্জের বিরুদ্ধে খোলাবাজারে চুনাপাথর বিক্রির অভিযোগের শুনানি সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সিমেন্ট তৈরির জন্য ভারত থেকে আমদানিকৃত চুনপাথর খোলাবাজারে বিক্রির অভিযোগ ওঠেছে বহুজাতিক সিমেন্ট উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান লাফার্জ হোলসিম লিমিটেডের বিরুদ্ধে উৎপাদনশীল খাতের এ কাঁচামাল খোলাবাজারে বিক্রি করায় অভিযোগ করেছে সিলেটের আমদানিকারকরা।

সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে রবিবার (৮ আগস্ট) ছাতক পৌরসভার ছাতক সিমেন্ট কোম্পানির রেস্ট হাউজে এই গণশুনানী অনুষ্ঠিত হয়।

গণশুনানী করেন, বাংলাদেশ সরকারের শিল্প মন্ত্রণালয়ের (রাষ্ট্রায়ত্ত কর্পোরেশন) অতিরিক্ত সচিব, শিবনাথ রায়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, বিসিআইসির যুগ্ম সচিব ও পরিচালক জেসমিন নাহার।

অভিযোগের বিষয়ে ব্যবসায়ী শ্রমিক ঐক্য পরিষদের পক্ষ থেকে বক্তব্য উপস্থাপন করেন, ব্যবসায়ী-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহবায়ক, ছাতক লাইষ্টোন ইম্পোর্টার্স এন্ড সাপ্লায়ার্স গ্রুপের প্রেসিডেন্ট, সুনামগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাষ্ট্রিজের পরিচালক ও এফবিসিসিআই’র ভুমি মন্ত্রণালয় কমিটির চেয়ারম্যান আহমদ শাখাওয়াত সেলিম চৌধুরী, হাজী আবুল হাসান, ফজলু মিয়া চৌধুরী, অরুন দাশ, ওয়ারিছ আলী।

লাফার্জ হোলসিমের পক্ষ থেকে বক্তব্য উপস্থাপন করেন, কোম্পানির প্রজেক্ট ম্যানেজার হারপাল সিনহা।

এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহবায়ক, ছাতক লাইষ্টোন ইম্পোর্টার্স এন্ড সাপ্লায়ার্স গ্রুপের প্রেসিডেন্ট, সুনামগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাষ্ট্রিজের পরিচালক ও এফবিসিসিআই’র ভুমি মন্ত্রণালয় কমিটির চেয়ারম্যান আহমদ শাখাওয়াত সেলিম চৌধুরী বলেন, ছাতকস্থ লাফার্জ কর্তৃক ক্রাশিং চুনাপাথর বিক্রি বন্ধে আমরা এর প্রেক্ষিতে আজকে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। আমরা কমিটির কাছে আমাদের বক্তব্য উপস্থাপন করে বলেছি, লাফার্জ  খোলাবাজারে ক্রাশিং চুনাপাথর বিক্রি করছে, যা বে-আইনি। আমরা আরও বলেছি, খোলাবাজারে ক্রাশিং চুনাপাথর বিক্রির বন্ধে ইতিমধ্যেই চুনাপাথর, পাথর ব্যবসার সাথে জড়িত ৩০টি ব্যবসায়ী সংগঠন এবং চুনাপাথর আমদানি ও ব্যবসার সাথে জড়িত ছাতক, ভোলাগঞ্জ, তামাবিল, বড়ছড়া, বাগলি শুল্ক ষ্টেশনের কয়েক শ’ ব্যবসায়ী আন্দোলন করেছে।

তিনি আরও বলেন, অবৈধভাবে লাফার্জ হোলসিম কর্তৃপক্ষ খোলাবাজারে ক্রাশিং চুনাপাথর অবাদে বিক্রি করায় এখানের ব্যবসায়ী মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। এ ব্যাপারে গত ৩ এপ্রিল লাফার্জ কর্তৃপক্ষের সাথে এখানের ব্যবসায়ীদের এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ বৈঠকে খোলাবাজারে ক্রাশিং চুনাপাথর বিক্রির কোন সরকারী আদেশ বা ট্রেড লাইসেন্স শো- করতে পারেনি লাফার্জ কর্তৃপক্ষ। ৪ এপ্রিল এক চিঠির মাধ্যমে লাফার্জ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিষ্পত্তির লক্ষ্যে এক সপ্তাহ সময় চেয়ে নেন। কিন্তু পরবর্তীতে তারা আমাদের সাথে যোগাযোগ করেনি। আমরা কমিটির কাছে ব্যবসায়ী, শ্রমিক, দেশের স্বার্থে সুষ্ঠু তদন্তের আহবান করেছি।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ সরকারের শিল্প মন্ত্রণালয়ের (রাষ্ট্রায়ত্ত কর্পোরেশন) অতিরিক্ত সচিব, শিবনাথ রায় সাংবাদিকদের বলেন, দু’পক্ষের বক্তব্য শুনেছি। সঠিক তদন্ত রিপোর্ট মন্ত্রণালয়ে দাখিল করবো। মন্ত্রণালয় যে সিদ্ধান্ত দিবেন সেই সিদ্ধান্ত সবাইকে জানিয়ে দেওয়া হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল