ছেলের নাম ভাঙিয়ে প্রতারণা, ক্ষুব্ধ ববিতা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

ছেলের নাম ভাঙিয়ে প্রতারণা, ক্ষুব্ধ ববিতা

প্রকাশিত: ৩:২২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৫, ২০২০

ছেলের নাম ভাঙিয়ে প্রতারণা, ক্ষুব্ধ ববিতা

অনলাইন ডেস্ক

কানাডায় থাকা চিত্রনায়িকা ববিতার একমাত্র সন্তান অনীক ইসলামকে নিয়ে ফেসবুকে প্রতারণার ফাঁদ পেতেছে একটি চক্র। তারা অনীকের নাম ভাঙিয়ে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে চাঁদা দাবি করছে। বিষয়টি ববিতার নজরে আসার পর তিনি বিস্মিত হয়েছেন। তিনি এই প্রতারণার ফাঁদে কাউকে পা না দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

ববিতা জানান, কিছু দিন আগে তার নাম ভাঙিয়েও ফেসবুকে প্রতারণা করেছে আরেকটি চক্র। বিষয়টি নিয়ে পত্রপত্রিকায় লেখালেখি শুরু হলে প্রতারক চক্র কিছু দিন চুপচাপ ছিল। কিন্তু সম্প্রতি ছেলেকে জড়িয়ে ফেসবুকে এমন অপকর্মের খবর জানতে পেরে বিস্মিত ও হতবাক হয়েছেন তিনি।

ক্ষুব্ধ ববিতা জানান, তার একমাত্র ছেলে অনীক ইসলাম কানাডায় থাকেন। ফেসবুকে তার কোনো আইডি নেই। অথচ অনীকের নামে ফেসবুক আইডি খুলে প্রতারকরা ববিতার পরিচিতজনদের কাছ থেকে চাঁদা চাচ্ছে। পারিবারিক ছবিগুলো ইনবক্সে দিয়ে প্রমাণের চেষ্টা করছে, সে ববিতার সন্তান। কেউ কেউ ইতিমধ্যে প্রতারণার ফাঁদে পা দিয়েছে। কেউ কেউ ববিতাকে ফোন করে বিষয়টি জানিয়েছে।

ক্ষুব্ধ ববিতা আরও বলেন, আমি নিজেও কোনো দিন ফেসবুক ব্যবহার করিনি। অথচ প্রায়ই আমাকে শুনতে হয়, আপনি তো আমার ফেসবুক ফ্রেন্ড। আপনার সঙ্গে মেসেঞ্জারে আলাপটা সেদিন ভালোই জমে উঠেছিল! শুনে তো আকাশ থেকে পড়ার অবস্থা। আমার বিভিন্ন অনুষ্ঠানের এবং ঘরের দুর্লভ স্থিরচিত্রও ওই ফেসবুক থেকে প্রকাশ করে দেয়া হয়। শুধু তাই নয়, আমি নাকি দেশের বাইরে থাকা অবস্থায় মেসেঞ্জারে কার কার কাছে টাকা চেয়েছি। পুরো বিষয়টি আমার জন্য ভীষণ অস্বস্তিকর।

ববিতা বলেন, শুরুতে বিষয়গুলো খুব একটা পাত্তা দিইনি, কিন্তু ছেলেকে নিয়ে যে বা যারা এমনটি করছে, আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ছি।

বাংলা সিনেমার এককালের রানি বলেন, আমাদের পরিবারের কেউ-ই ফেসবুক ব্যবহার করি না। তাই এ ধরনের ফাঁদে কেউ পা দেবেন না; এমন আচরণ যারা করবে, তাদের বিশ্বাস করবেন না।