ছোট্ট একটা ঘটনাও বদলে দিতে পারে এত কিছু! – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

ছোট্ট একটা ঘটনাও বদলে দিতে পারে এত কিছু!

প্রকাশিত: ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২৯, ২০১৬

ছোট্ট একটা ঘটনাও বদলে দিতে পারে এত কিছু!

66fc481635fbc7f116f2d3d5abcbd8f0-Faroeআয়তন সব মিলিয়ে সাড়ে ৫ শ বর্গমাইল। জনসংখ্যা ৫০ হাজারও পূর্ণ হয়নি। ইউরোপের ছোট্ট দ্বীপ দেশ সেই ফারো আইল্যান্ড থেকেই আজ ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে লেখা হচ্ছে নতুন ইতিহাস। প্রত্যক্ষ না হলেও, লেস্টারের ইতিহাস-যাত্রায় ভূমিকা আছে ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে ৯০ এ থাকা এই দলটির। সেটাই যেন মনে করিয়ে দিলেন ফারো আইল্যান্ডের সাবেক কোচ লার্স ওলসেন।

প্রথম প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা থেকে মাত্র এক জয় দূরত্বে থাকা লেস্টার সিটির দায়িত্বই হয়তো নিতেন না ক্লদিও রানিয়েরি, যদিও না ফারো আইল্যান্ডের আছে ২০১৪ সালে হেরে যেত গ্রিস। ২০১৪ বিশ্বকাপের পর গ্রিসের দায়িত্ব নিয়েছিলেন রানিয়েরি। কিন্তু কয়েক মাসের মধ্যেই ছাঁটাই হন, নিজেদের মাঠে গ্রিস যখন ইউরো বাছাই পর্বে যেতে যায় ফারো আইল্যান্ডের কাছে। এরপর কয়েক মাস বেকার জীবন যাপন শেষে ইংল্যান্ডের তলানির দল লেস্টারের দায়িত্ব নেন। যে দলটাই বদলে যায় জাদুমন্ত্রের মতো।

এই মৌসুমে লেস্টারের সাফল্যের মূলে আছে দুর্দান্ত সব প্রতি আক্রমণ। ওলসেন মজা করে বললেন, গ্রিসের হেরে যাওয়া সেই ম্যাচে ফারো আইল্যান্ডের কাছ থেকে এটাও ‘ধার’ নিয়েছেন রানিয়েরি। ওই ম্যাচে ফারো আইল্যান্ডের কোচের দায়িত্বে থাকা এই ডেনিশ বলেছেন, ‘সেটি আমাদের জন্য ছিল অবিশ্বাস্য এক জয়, ওই ম্যাচে আমরা চার-পাঁচটা গোলও করে ফেলতে পারতাম। এতগুলো পরিষ্কার সুযোগ তৈরি করতে পেরেছিলাম। গ্রিসও কিন্তু খারাপ খেলেনি। ৭৫ শতাংশ বলের দখল ছিল ওদের। এখন যখন প্রতি সপ্তাহে লেস্টারকে ২৫ শতাংশ বলের দখল রেখেও ম্যাচের পর ম্যাচ জিততে দেখি, আমার তো ধারণা হয় রানিয়েরি মনে হয় ফারোদের কাছ থেকেই অনুপ্রেরণা নিয়েছেন। এর থেকেই বোঝা যায় ম্যাচ জিততে আপনাকে বার্সেলোনার মতো খেলতে হবে না। বরং কখনো কখনো প্রতিপক্ষের পায়ে বল রেখে প্রতি আক্রমণের কৌশল নিয়ে খেলাই ভালো। এভাবে আমরা সেদিন গ্রিসের সঙ্গে খেলেছিলাম, এখন যেভাবে লেস্টার খেলছে।’

লেস্টারের সাফল্য ফুটবলের আসল সৌন্দর্য তুলে ধরছে বলেও মনে করেন ওলসেন, ‘এর থেকেই প্রমাণ হয় ফুটবলে যেকোনো কিছু ঘটা সম্ভব। আমি নিজেও ফুটবলের দুর্দান্ত কিছু অঘটনের সাক্ষী। ডেনমার্কের হয়ে ১৯৯২ ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ যেমন; যে টুর্নামেন্টের চূড়ান্ত পর্বেই খেলার কথা ছিল না আমাদের, সেটাই আমরা পরে জিতে গিয়েছিলাম। পরে ফারোর হয়ে গ্রিসের বিপক্ষে ওদের ও নিজেদের মাটিতে জেতা। তবে লেস্টারের অর্জন আরও বেশি অবিশ্বাস্য, ফুটবলে এখন পর্যন্ত ঘটা সবচেয়ে বড় ঘটনা। ইউরোপের শীর্ষ লিগগুলোতে সব সময়ই সেই একই তিন-চারটা দলই শিরোপা জেতে। এত দিন কিন্তু আমরা এটাই জানতাম।’