জামাত নেতা দেলোয়ার হোসেন সাইদীর একান্ত সহযোগীর ভাতিজা চান নৌকা প্রতিক – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

জামাত নেতা দেলোয়ার হোসেন সাইদীর একান্ত সহযোগীর ভাতিজা চান নৌকা প্রতিক

প্রকাশিত: ৯:২৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০২১

জামাত নেতা দেলোয়ার হোসেন সাইদীর একান্ত সহযোগীর ভাতিজা চান নৌকা প্রতিক

 

চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ
হবিগঞ্জ জেলা চুনারুঘাট উপজেলা গাজীপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবীর খানের চাচা ফারুক খান। বিএনপি জামাত জোট সরকারের আমলে জামাত নেতা দেলোয়ার হোসেন সাইদীর একান্ত সহকারী ছিলেন ।ফারুক খান তিনি গাজীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবীর খানের আপন চাচা।জামাতের নেতা দেলোয়ার হোসেন সাইদীর সকল অর্থ লেনদেন করতেন তিনি।ফারুক খান আওয়ামীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর তিনি দেশ ত্যাগ করে লন্ডনে বসবাস করছেন। চেয়ারম্যান সাহেবের আর এক চাচা মাসুক খান তিনি হেফাজতে ইসলামর গাজীপুর ইউনিয়নের আমীর,মাসুক খানের ছেলে তারেক রহমান খান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিবিরের ক্যাডার ছিল। বর্তমানের সে দেশের বাহিরে আছে। জামের সঙ্গে ছিল তাদের পুর পরিবারের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। চেয়ারম্যান হুমায়ূন কবির খান নামে মাত্র ছিলেন আওয়ামীলীগ। চেয়ারম্যান হুমায়ূন কবীর খান গত উপজেলা নির্বাচনে তিনি সক্রিয় ভাবে আওয়ামীলীগ তথা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেওয়া নৌকার নির্বাচনে কঠোর বিরোধীতা করেন। এবং মাঠে মায়দানে তিনি নৌকার প্রার্থী এবং নৌকার কর্মীদের বিরুদ্ধে কটুক্তি মুলক ব্যক্তব্য দেন। এবং গাজীপুর ইউনিয়নে প্রত্যেক ওয়ার্ডে গিয়ে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মী কে আনারস মার্কা পক্ষে কাজ করার নির্দেশনা দেন। এতে চুনারুঘাটে নৌকা প্রার্থীদে নির্বাচনে খুবই হিমসিম খেতে হয়েছে। চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির খানের এমন আচরণে গাজীপুর ইউনিয়নে অনেক আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীরা তার উপর অসন্তোষ প্রকাশ করেন। বর্তমানে তিনি আওয়ামীলীগের নৌকা মার্কার প্রত্যাশিত।চেয়ারম্যান হুমায়ূন কবির খান কে নৌকা মনোনয় দেওয়ার হলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শে সাথে বেইমানি করা হবে বলে মন্তব্য করেন অত্র ইউনিয়নের নেতা কর্মীগন।চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির খান বিগত ৫ বছরে এলাকার কোন উন্নয়ন মুলক কাজ করতে পারেন নাই এবং সাধারণ মানুষকে হয়রানির শিকার করেন। গত বছর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পক্ষ থেকে গরীব অসহায় মানুষের জন্য ১০ টাকা কেজি চাউলের কার্ড কেটে নিজ আত্নীয় সম্পদ শালিদের মাঝে বন্টন করেন। এ অনিয়নের অভিযোগ হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসক নিকট আবেদন করা হয়েছে।ভিজিডি চাউল আত্মসাদ কবরস্থানে গাছ কাটা সহ অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির খানের বিরুদ্ধে ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল