“জালাল ভাইয়ের শোক সভা”দ্বিতীয় সংস্করণ দ্রুতই আসছে…

প্রকাশিত: ৫:০৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২২

“জালাল ভাইয়ের শোক সভা”দ্বিতীয় সংস্করণ দ্রুতই আসছে…

“জালাল ভাইয়ের শোক সভা”
সিলেট – সুনামগঞ্জের ব্যাপক চাহিদা থাকায় দ্বিতীয় এবং সংশোধিত সংস্করণ দ্রুতই আসছে।
ফ্ল্যাপের লিখাঃ
নাম শুনে ভাবতেই পারেন, এটি কোনো গল্প বা উপন্যাস নয়। স্রেফ একজন জালাল ভাই নামক ব্যাক্তির শোকসভার বিবরণ মাত্র। লেখক হয়ত তাই করতে চেয়েছিলেন কিন্তু ভিতরে তার বাস করে অন্য একজন। তাই শোকসভার আড়ালে নিয়ে এসেছেন রাজনীতি, দ্রোহ, প্রেম ও বিরহ। সেই সাথে উঠে এসেছে বাংলাদেশের উত্তর সীমান্তের হাওরের জনপদ সুনামগঞ্জের আশির দশকের এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের ছোট্ট ছোট্ট কিছু ঘটনার পটভূমি। হাওরের বিশাল জলরাশি, উথাল-পাতাল ঢেউ আর উপচেপড়া জোছনার মতোই এই শহরের তরুন-তরুনীদের মনোজগৎ। ঐশ্বর্য-সম্পদ বলতে তারা বুঝত প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য, সামাজিক বৈষম্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ, সমাজ বিপ্লব এবং হৃদয়ের বলা না বলা কথা। এইসব ঐশ্বর্যের জন্যেই একজীবন বিসর্জন দিতে তারা গর্ববোধ করত। সেই সময়ের একজন বিপ্লবী তরুন মইনুদ্দিন আহমদ জালাল।
তাঁকে এবং তাঁর আশেপাশের মানুষদের নিয়ে এই বইয়ের পটভূমি। ছাত্র ইউনিয়ন নেতা হলেও জালাল ভাই ছিলেন মূলত সর্বদলীয়। তাই উঠে এসেছে ছাত্রলীগ, জাসদ, বাসদসহ অন্যান্য ছাত্রনেতাদের সেই সময়কার অবদান। যে কারনে বইয়ের সবগুলো চরিত্রই বাস্তব। কিন্তু খাঁটি সোনা দিয়ে যেমন নিপুণ অলংকার বানাতে কিছুটা খাদের মিশেল দিতে হয়। এই উপন্যাসের আরিফ ও ছন্দা নামক দুটি চরিত্র সে রকমই নিছক কাল্পনিক। এই দুটি চরিত্রকে বাস্তবতার সাথে মিলালে লেখক অপরাধী হবেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল