জেনারেল এমএজি ওসমানী ছিলেন গণতন্ত্রী, ধার্মিক ও খাঁটি দেশপ্রেমিক – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

জেনারেল এমএজি ওসমানী ছিলেন গণতন্ত্রী, ধার্মিক ও খাঁটি দেশপ্রেমিক

প্রকাশিত: ২:৪৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৬

জেনারেল এমএজি ওসমানী ছিলেন গণতন্ত্রী, ধার্মিক ও খাঁটি দেশপ্রেমিক

smp০১ সেপ্টেম্বর ২০১৬, বৃহস্পতিবার: মহান মুক্তিযোদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবীর জেনারেল এম এ জি ওসমানীর ৯৮তম জন্মবাষির্কী উপলক্ষে (১ লা সেপ্টেম্বর) বৃহস্পতিবার ওসমানী জাদুঘর সিলেটের উদ্যোগে আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, মহান মুক্তিযোদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবীর জেনারেল এম এ জি ওসমানী যে নেতৃত্ব দিয়েছেন তা ভুলার মত নয়। অসাধারণ বীরত্ব আর কৃতিত্ব প্রদর্শন করে তিনি পশ্চিমাদের কবল থেকে দেশকে মুক্ত করেন। সেই সঙ্গে তিনি ছিলেন আজীবন গণতন্ত্রী, ধার্মিক ও খাঁটি দেশপ্রেমিক। তার নামটি বাদ দিলে আমাদের স্বাধীনতাযুদ্ধের ইতিহাস রচনাই অসম্পূর্ণ থেকে যাবে। আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধে যেমন, তেমনি স্বাধীন দেশেও জাতির দুঃসময়ে কান্ডারী হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন এই বঙ্গবীর। অনেক সময় তিনি জাতিকে নির্ঘাত সংঘাত থেকে উত্তরণের পথ দেখিয়েছেন। অথচ তিনি কখনও রাষ্ট্রক্ষমতা চান নি। মহান এই বঙ্গবীরের তার কর্ম দিয়ে বরণীয় হয়ে, স্মরণীয় হন এদেশের মানুষের কাছে থাকবেন।
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পুর ও পরিবেশ কৌশল প্রফেসর ড. জহির বিন আলম’র সভাপতিত্বে ও সিলেট কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জাতীয় ভাবে শ্রেষ্ট যুব সংগঠক পদক প্রাপ্ত এহসানুল হক তাহেরের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্যে রাখেন সিলেটে মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার এস এম রোকন উদ্দিন। প্রধান আলোচক হিসাবে বক্তব্যে রাখেন সিলেট সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আতাউর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্যে রাখেন সিলেট এমসি কলেজ উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মুহাম্মদ হায়াতুল ইসলাম আকাঞ্জি, ওসমানী স্মৃতি ট্রাস্ট ট্রাস্টি এডভোকেট নওসাদ আহমদ চৌধুরী।
আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে রাখেন ওসমানী জাদুঘর সিলেটের সহকারী কীপার জিয়াররত হোসেন খান।
বক্তব্যে রাখেন জাতীয় জনতা পাটি’র সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট আব্দুল মতিন চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা দেওয়ান ফারুক চৌধুরী, জেলা শিক্ষা অফিসের সহ-পরিদর্শক শাহাব উদ্দিন, রোটারিয়ান সুহাদ রব চৌধুরী, স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এম ইউ শিপলু।
উপস্থিত ছিলেন আনোয়ার হোসেন, সুর্যোদয় যুব সংঘ ও এতিম স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হাসান তালুকদার সোহেল, সাধারণ সম্পাদক এ কে কামাল হোসেন, পয়েন্ট ক্লাবের দপ্তর সম্পাদক তালেব হোসেন তালেব, ক্যাডেট আন্ডার অফিসার বিএনসিসি, এমসি কলেজ রুহুল আমীন, মদুদ হাসান, নুরুজ্জামান, মাসুদ জাহান, আলী আকবর, রোভার স্কাউট গ্র“প এমসি কলেজ দিলোয়ার হোসেন, তাহমিদুর রহমান, আহসান হাবিব. পুস্পিতা ঘোষ চৌধুরী, হিমেল আহমদ, জাতীয় কবিতা পরিষদ এমসি কলেজের অংশ গ্রহণকারী অসির সরকার, ইমরান তালুকদার, এইচ এম মারুফ, লক্ষণ রায়, মাফিক আহমদ, থিয়েটার মুরালিচাঁদ, মোহনা সাংস্কৃতিক সংঘ, সিলেট কল্যাণ সংস্থার, হাবিবুর রহমান, হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী, মিজানুর রহমান রুমন, আব্বাস উদ্দিন, হাসান তালুকদার সুহেল, জাকারিয়া আহমদ, তালেক হোসেন, আব্দুল্লাহ জামিল, ওলীউল্লাহ হেলাল, সাইদুর রহমান, রানা আহমদ, ইলিয়াছ আলী, হাফিজ বাহার আল মামুন, তোফায়েল আহমদ, নওশির আহমদ বাপ্পী, আলিম উদ্দিন প্রমুখ।
দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা আলমগীর হোসেন।