জৈন্তাপুরে অজ্ঞান পার্টির দুই সদস্য আটক – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

জৈন্তাপুরে অজ্ঞান পার্টির দুই সদস্য আটক

প্রকাশিত: ৫:৫৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৬, ২০১৯

জৈন্তাপুরে অজ্ঞান পার্টির দুই সদস্য আটক

সিলেটের জৈন্তাপুরে বাস গাড়িতে যাত্রীকে অজ্ঞান করে টাকা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় অজ্ঞান পাটির দুই সদস্য আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা।

মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার সারিঘাট এলাকার বাঘের সড়ক নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক বলেন, মঙ্গলবার বিকেলে সিলেটের উদ্দেশ্যে জৈন্তাপুর থেকে ছেড়ে যাওয়া একটি মাইক্রোবাস বাগের সড়ক এলাকায় পৌঁছালে বাসটির যান্ত্রিক ক্রটি দেখা দেয়। এ সময় চালক সব যাত্রীদের নামিয়ে দেন ।

এ সময় গোয়াইনঘাট উপজেলার এক যাত্রী গোলাম কিবরিয়া হেলালকে সিটে অজ্ঞান অবস্থায় দেখতে পেয়ে হেল্পার চিৎকার দিলে অন্যান্য যাত্রীরা এগিয়ে আসেন এবং অজ্ঞান অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

অপরদিকে দুই জন যাত্রীবেশে অজ্ঞান পাটির দুই সদস্য দ্রুত বাঘের সড়ক এলাকা থেকে সিএনজি চালিত অটোরিকশা ভাড়া করে সিলেটের উদ্দ্যেশে রওনা হলে স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। তাৎক্ষণিকভাবে সিএনজি চালকের সঙ্গে মোবাইল ফোনে আলাপ করে ঘটনার বিষয় জানানো হয় এবং কৌশলে তাদেরকে আটক করতে বলা হয়। চতুর সিএনজি চালক কৌশশ করে চিকনাগুল বাজারে গাড়ি দাঁড় করিয়ে তাদেরকে স্থানীয় জনতার সহযোগিতায় আটক করে চিকনাগুল ইউপিতে নিয়ে যান।

খবর পেয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশের সদস্যরা গিয়ে তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

আটক অজ্ঞান পাটির সদস্যরা হলেন সুনামগঞ্জ জেলার সুরমা গ্রামের কসম আলীর ছেলে হাসান এবং নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার দূর্গাপুর গ্রামের মোস্তফা মিয়ার ছেলে আলমগীর। তাদের কাছ থেকে ৫৭ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

ওসি আরো বলেন, তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে এবং তথ্য যাচাই বাছাই করে এই চক্রের মূল সদস্যদের আটক করতে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করবে। আটকদের বুধবার আদালাতে প্রেরণ করা হবে।

জৈন্তাপুর প্রতিনিধি