টাকা অতœসাতের জের ॥ ৬ মাদ্রাসা শিক্ষকের পদত্যাগ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

টাকা অতœসাতের জের ॥ ৬ মাদ্রাসা শিক্ষকের পদত্যাগ

প্রকাশিত: ১:৫৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১১, ২০১৬

টাকা অতœসাতের জের ॥ ৬ মাদ্রাসা শিক্ষকের পদত্যাগ

molovebazarমৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার ১১নং শরিষপুর ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী তেলিবিল এহিয়াউল উলূম মাদ্রাসার ৬ জন শিক্ষক টাকা আতœসাৎ সহ বিভিন্ন অভিযোগে গত শনিবার পদত্যাগ করেছেন।

পদত্যাগকৃত শিক্ষকরা হলেন মাদ্রাসার সহকারী প্রধান শিক্ষক মাওলানা মাহবুবুর রহমান, শিক্ষা সচিব মাওলানা ইছহাক আহমদ, সহকারী শিক্ষক মাওলানা ময়নুল ইসলাম, মাষ্টার আরশাদ আলম, মাওলানা নাসির উদ্দিন, মাওলানা শামসুদ্দিন।

পদত্যাগ কৃত শিক্ষাকদের অভিযোগ, মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা লিয়াকত আলী দীর্ঘ দিন যাবত মাদ্রাসার শিক্ষকদের সাথে অসৌজন্য মুলক আচরণ করে যাচ্ছেন। তাছাড়া তিনি মাদ্রাসার এতিম খানার টাকা প্রায় ২০ বছর যাবৎ আত্মসাৎ করে যাচ্ছেন।

মাদ্রাসার কমিটি সদস্যরা অভিযোগ করেছেন যে, তিনি মাদ্রাসা কমিটি ছাড়া নিজে নিজেই মাদ্রাসার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেন যা পরবর্তীতে মাদ্রাসার সুনাম অক্ষুন্ন হয়। মাদ্রাসার ৬ জন শিক্ষক পদত্যাগ করার সুনির্দিষ্ট কারণ জানা না গেলেও গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায় যে, মুহতামিমের অসৌজন্য মূলক আচরণ ও আগ্রাসী ভূমিকার কারণে শিক্ষকরা পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়।
শিক্ষকরা পদত্যাগের কারণে তাদের পারিবারিক অবস্থা এখন অসহায় হয়ে পড়েছে। তাদের পরিবারের একামাত্র উপার্জন কারি এই মানুষ গড়ার কারিগরগণ।
গ্রামবাসী এই শিক্ষকদের পদত্যাগের কারণ ও আইননোগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জোর দাবী জানান।
এই বিষয়ে মাদ্রাসা পরিচালান কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালামের সাথে আলোপ কালে জানাযায়, বিষয়টি তদন্ত চলছে। অচিরে সমস্যা সমাধান করে। শিক্ষকদের তাদের নিজ কর্মস্থলে ফিরিয়ে নিয়ে আসা হবে।
মাদ্রাসা অডিট কমিটির অডিটর এডভোকেট জুবায়ের আহমদ জানান, মাদ্রাসার হিসাব নিকাশে বেশ কিছু সমস্যা রয়েছে আর সেই সমস্যা ডাকতে তিনি নিজের ভাতিজা সহ আপন আতœীয় স্বজনদের শিক্ষক হিসাবে নিয়োগ দিয়ে তাকেন।
আর ৬ শিক্ষক পদত্যাপ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই শিক্ষকগণ অত্যন্ত নিতিবান সেই ক্ষেত্রে তিনি নিজের পূরপুরি আধিপত্য বিস্তার করার কারণে বিভিন্ন কৌশলে শিক্ষকদের পদত্যাগে বাধ্য করেছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল