টানা ৩য় দিন জেবুন্নেছা-এনাম ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম অব্যাহত জালালপুর ও সিলামে বন্যাদূর্গত ৯০০ পরিবারে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ (ভিডিও)

প্রকাশিত: ৬:৪৯ অপরাহ্ণ, জুন ২৭, ২০২২

টানা ৩য় দিন জেবুন্নেছা-এনাম ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম অব্যাহত জালালপুর ও সিলামে বন্যাদূর্গত ৯০০ পরিবারে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ (ভিডিও)

সিলনিউজ বিডি ডেস্ক :: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সিলেট জেলার নির্দেশে ও জেবুন্নেছা-এনাম ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এবং সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ ও জেবুন্নেছা-এনাম ফাউন্ডেশনের কো- চেয়ারম্যান শমসের জামালের ব্যাক্তিগত অর্থায়নে টানা ৩য় দিন দক্ষিণ সুরমা উপজেলার বন্যাদূর্গত পরিবারের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল রবিবার (২৬ জুন ২০২২) দক্ষিণ সুরমা উপজেলার সিলাম ও জালালপুর ইউনিয়নে ৯০০ পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। সকালে সিলাম নয়া বাজারে ২০০ বন্যার্ত পরিবারের মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন শমসের জামাল। এসময় উপস্থিত ছিলেন সিলাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক নেছার আহমদ, আসকর আলী, নৃপেন্দনাথ নিপু, রানা কর, বাদশা মিয়া, জামাল, চুনু মিয়া, আব্দুল লতিফ, আব্দুল জলিল ও অপু পাক্তাদার।

এইদিন দুপুরেই ৭ নং জালালপুর ইউনিয়নের ২টি আশ্রয়কেন্দ্র- জালালপুর উচ্চ বিদ্যালয় এবং জালালপুর হাফিজিয়া মাদ্রাসা পরিদর্শনকালে আশ্রিত ৩০০ পরিবারের মধ্যে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয় জেবুন্নেছা-এনাম ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে। আশ্রয়কেন্দ্রে কুশল বিনিময় শেষে একই ইউনিয়নের বন্যাকবলিত হাসামপুর, আজমতপুর, বাদেশপুর গ্রামে নৌকাযোগে ২৫০ পরিবারে নিজ হাতে ত্রাণ পৌঁছে দেন ফাউন্ডেশনের কো-চেয়ারম্যান শমসের জামাল।

 

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ওয়েছ আহমদ, উপজেলা আওয়ামী সদস্য সালেহ আহমদ শাহিন, ইউপি যুবলীগের আহ্বায়ক শায়েক আহমদ, মাহমুদুল হাসান বাবুল, ইউপি সদস্য রাসেল আহমদ, ফজিদ আলী, ওয়ারিছ উদ্দিন, নুরুল ইসলাম, বাবুল মিয়া, সিলেট জেলা খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া চৌধুরী শিবলু, সহ-সভাপতি লায়েক আহমদ, সদস্য আজিজুর রহমান মিটন, সোহেল আহমদ ও লোকমান মিয়া, জাবেদ আহমদ প্রমূখ।

ত্রাণ বিতরণ শেষে শমসের জামাল ছব্দলপুর দক্ষিণ জামে মসজিদ পরিদর্শনে গেলে এলাকার বন্যার্ত মানুষ ছুটে আসেন। মানুষের দুঃখ-দূর্দশা পর্যবেক্ষণ করে ছব্দলপুরে ১৫০ প্যাকেট খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেয়ার আশ্বাস প্রদান করেন। যা আজ সোমবার সকালে স্থানীয় একজন প্রতিনিধির মাধ্যমে এলাকার মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়া হয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল