টিকেট বানিজ্য ও নানা কেলেংকারী সিলেটে বিপিএল টুর্নামেন্ট শুরু – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

টিকেট বানিজ্য ও নানা কেলেংকারী সিলেটে বিপিএল টুর্নামেন্ট শুরু

প্রকাশিত: ৪:৩২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৪, ২০১৭

টিকেট বানিজ্য ও নানা কেলেংকারী সিলেটে বিপিএল টুর্নামেন্ট শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ নানা কেলেংকারী ও কোটি টাকার টিকেট বালিজ্যের মধ্যদিয়ে শনিবার (৪নভেম্বর) সাকাল ১০টায় সিলেট বিভাগীয় স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) টর্নামেন্ট শুরু হয়েছে। আসন বর্হিভুত টিকেট বানিজ্যের কারনে স্টেডিয়ামের প্রবেশ গেইটে নিরাপত্তা রক্ষী ও পুলিশের সাথে দর্শকদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। এর আগে টিকেট বানিজ্য নিয়ে শুক্রবার রাতে নগরীর আম্বরখানায় ছাত্রলীগের দুই গ্র“পে সংঘর্ষ হয়েছে। সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ খেলা বয়কট করেছে।
বিপিএল-সিলেট টুর্নামেন্ট নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে সিলেটে চলছিল রমরমা টিকেট বানিজ্য। টিকেট বানিজ্য নিয়ে সিলেট জেলা ও মহারগর আওযামী লীগ নেতৃবৃন্দের মধ্যে শুরু হয় দ্বন্দ্ব। এ দ্বন্দ্বের জের ধরে শুক্রবার রাতে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বিপিএল টুর্নামেন্ট বর্জন ঘোষনা করেছেন। এ ঘোষনার সাথে এমত হয়েছে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ। অন্যদিকে বিপিএল-এর টুর্নামেন্ট টিকেট ও আসন নিয়ে শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় নগরীর আম্বর খানায় সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের ময়নুল ও শাকিল গ্র“পের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইট-পাটকেল ছুড়াছুড়ির ঘটনা ঘটে। এসময় এলাকায় জনমনে আতংকের সৃষ্টি হয় এবং মূহুর্তের মধ্যে এলাকার দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে সিলেট কোতোয়ালি পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
বিপিএল-এর টুর্নামেন্ট ঘোষানর পর থেকে সিলেটে শুরু হয় রমরমা টিকেট বানিজ্য। সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক বিজিত চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল সহ তাদের আশীর্বাদপুষ্ট কয়েকজন টিকেট বানিজ্য শুরু করেন। শুক্রবার রাত এবং শনিবার সকাল পর্যন্ত সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থা অফিস, সিলেট প্রেসক্লাব, সিলেট জেলা প্রেসক্লাব, অনলাইন প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন স্থানে ও ক্রীড়া সংগঠন অফিসে করা হয় কোটি কোটি রমরমা টিকেট বানিজ্য। টিকেট বানিজ্যে আওয়ামী লীগ নেতা বিজিত চৌধুরী ও শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল ছাড়াও অন্য যারা জড়িত ছিলেন তাদের অন্যতম সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন সেলিম ওরফে মাহা সেলিম সহ কতিপয় সংবাদিক, সুশীল সমাজ ও পেশাজীবিরা। টিকেট বানিজ্য ও নানা কেলেংকারী আনন্দময় বিপিএল টুর্নামেন্টকে একেবারে ম্লান করে দিয়েছে বলে বিজ্ঞ মহল মনে করছেন।