তরুণীর বুদ্ধিমত্তা ধর্ষণ মুক্তির অনুপ্রেরণা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

তরুণীর বুদ্ধিমত্তা ধর্ষণ মুক্তির অনুপ্রেরণা

প্রকাশিত: ৫:৫০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৮, ২০২০

তরুণীর বুদ্ধিমত্তা ধর্ষণ মুক্তির অনুপ্রেরণা

জুনেদ আহমদ ::
রাক্ষুসী হায়েনাদের কবল থেকে রক্ষা পেতে বাস থেকে লাফ দিয়ে পড়ায় মাথায় আঘাত পান তরুণী, আঘাত লেগেছে তার হাতেও। গত শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ঘটে যাওয়া ঘটনায় আঘাত লাগে তার মনেও। এখন তিনি মানসিকভাবে শক্ত আছেন, সেই সঙ্গে আছে তার সাহসও। বাসের ভেতরে যারা তাকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালিয়েছিল তাদের বিচারের দাবিও জানিয়েছেন সুনামগঞ্জের দিরাইয়ের ওই কলেজছাত্রী। তরুণী বাবার বক্তব্য, সিলেটে বড় বোনের বাড়ি থেকে দিরাইয়ে ফিরছিল। বড় মেয়ের স্বামী ওই মেয়েটিকে ফাহাদ অ্যান্ড মাইশা পরিবহনের একটি বাসে তুলে দেয়। দিরাইয়ের বদিপুর এলাকায় বাকি যাত্রীরা নেমে গেলে বাসটি খালি হয়ে যায় ও একমাত্র যাত্রী হিসেবে রয়ে যায় তার মেয়ে। বাসে ছিল ড্রাইভার ও হেলপার। সুজানগর আসার পর মেয়েটির হাত থেকে ব্যাগ নিয়ে নেয় হেলপার; তুলে দেয় ড্রাইভারের হাতে। মেয়েকে এ সময় উত্ত্যক্ত করা শুরু করে তারা। এক পর্যায়ে তার চুলে হাত দিলে ও হাত ধরে টান দিলে ভয় পেয়ে যায় সে। পরে সাহস করে কৌশলে বাসের জানালা দিয়ে লাফ দেয়। লাফিয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে অজ্ঞান হয়ে যায় মেয়েটি। সে সময় এক সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক তাকে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। জ্ঞান ফিরলে মেয়ে তার পরিচয় দিয়ে বাড়িতে ফোন করে। ফোন পেয়ে পরিবার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যায়।ওই তরুণীটি বুদ্ধিমত্তা ও সাহসিকতার কারণে রক্ষা পেয়েছে। তার সাহস আর বুদ্ধিমত্তায় অন্যান্য নারীদের ধর্ষণ থেকে বাঁচতে সাহায্য করবে। বাসের চালক যখন তার চুল ও হাত ধরে যখন টেনে ধরেছিলেন তখনই সে বুদ্ধি করে জানালা দিয়ে লাফ দেয়। আঘাত পেলেও মেয়েটি এখনও মানসিকভাবে ভেঙে পড়েনি, সে মানসিকভাবে শক্ত আছে। তরুণীর শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে তিনি বলেন, মেয়েটি হাতে ও মাথায় আঘাত পেয়েছে। তবে আঘাত তেমন গুরুতর নয়। কলেজছাত্রীর বাবা দিরাই থানায় অজ্ঞাতপরিচয় তিন জনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে বাসের হেলপার আব্দুর রশিদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) ভোর রাতে সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলাধীন গোবিন্দগঞ্জ এলাকা থেকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।