তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে নেয়ার প্রচেষ্টা চলছে – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে নেয়ার প্রচেষ্টা চলছে

প্রকাশিত: ৫:৪৩ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৭, ২০১৭

তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে নেয়ার প্রচেষ্টা চলছে

লন্ডন প্রতিনিধি:: যুক্তরাজ্যে লন্ডন হাইকমিশনের উদ্যোগে উদযাপিত হল বাংলাদেশের ৪৬তম স্বাধীনতা দিবস।

রোববার (২৬ মার্চ) ব্রিটেনের বাংলাদেশি সুশীল সমাজ, রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের শতাধিক মানুষের উপস্থিতিতে স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত হয়।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক আব্দুল গাফফার চৌধুরী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি, মাহমদুস সামাদ চৌধুরী এমপি, ফজলে হোসেন বাদশা এমপি ও ব্রিটিশ বাংলাদেশি এম পি রুশনারা আলী।

জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয় মূল অনুষ্ঠান। শুরুতেই হাইকমিশনের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন নাজমুল কাওনাইন। ব্রিটেন প্রবাসী মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকদের কৃতজ্ঞতা জানান তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রে সফররত বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম তাঁর বক্তব্যে বলেন, তথ্য ও প্রযুক্তি নির্ভর একটি বাংলাদেশ গঠনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

এছাড়া তিনি সরকারের নানা সাফল্য তুলে ধরেন। মুক্তিযুদ্ধে ব্রিটেন প্রবাসীদের অবদানের কথাও উল্লেখ করেন তিনি। দ্বৈত নাগরিকত্ব নিয়ে একটি গোষ্ঠী বিভ্রান্তি তৈরি করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রবাসীদের স্বার্থ ক্ষুণ্ণ হয় এমন কোন আইন সরকার করবে না।

অনুষ্ঠান পরবর্তী সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ব্রিটেনে বসবাসরত যুদ্ধাপরাধীদের বাংলাদেশের আইনে সাজা নিশ্চিত করতে সরকার চেষ্টা করছে। তবে ব্রিটেনের নিজস্ব আইনের প্রতিও আমরা শ্রদ্ধাশীল। তবে যুদ্ধাপরাধীরা যে প্রভাব প্রতিপত্তি নিয়ে বিলেতে বসবাস করে আসছিল, সেই অবস্থার পরিবর্তন ঘটেছে। সামাজিকভাবে এখন অনেকটাই কোণঠাসা জীবনযাপন করছে তারা।

তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, মহামান্য আদালতের নির্দেশ আমরা হাতে পেয়েছি। ব্রিটিশ সরকারের আভ্যন্তরীণ গোপনীয়তার জন্য তার অভিবাসন সম্পর্কে আমরা জানি না। তবে শোনা যায় যে সে রাজনৈতিক আশ্রয়ে এদেশে আছে। তাকে দেশে ফিরিয়ে নেয়ার প্রচেষ্টা করছি আমরা।

রাষ্ট্রদূত নাজামুল কাওনাইন তাঁর বক্তব্যে হাইকমিশনের পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন জানান। যুক্তরাজ্য উদীচীর পরিবেশনায় ছিল দেশের গান, কবিতা ও নৃত্য। বুলবুল হাসান ও উর্মি মাজহার যৌথভাবে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন।