দাবী না মানলে নার্সদের আতœহত্যার পথ বেছে নিতে হবে – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

দাবী না মানলে নার্সদের আতœহত্যার পথ বেছে নিতে হবে

প্রকাশিত: ৮:৩০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০১৬

দাবী না মানলে নার্সদের  আতœহত্যার পথ বেছে নিতে হবে

004অনতিবিলম্বে বি.পি.এস. সি কর্তৃক প্রকাশিত প্রহসনের নার্স-নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাতিল করে পূর্বের ন্যায় ব্যাচ, মেধা ও জৈষ্ঠ্যতার ভিত্তিতে অতিদ্রুত নার্স নিয়োগ বাস্তবায়নের দাবীতে এবং এই দাবীতে গত ৩০মার্চ তারিখে শাহবাগে নায্য দাবী আদায়ের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচীতে আর্ত-মানবতার সেবক নার্স সমাজের উপর নির্মম পুলিশী নির্যাতন এবং পুলিশ কর্তৃক নার্সদের লাঞ্চিত করার প্রতিবাদে বাংলাদেশ ডিপ্লোমা বেকার নার্সেস এসোসিয়েশন (বিডিবিএনএ) ও বাংলাদেশ বেসিক গ্র্যাজুয়েট নার্সেস সোসাইটি (বিবিজিএনএস) সিলেটে শাখার উদ্যোগে গতকাল রোববার সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে মানববন্ধন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে বক্তার বলেন, প্রধানমন্ত্রী স্ব উদ্যেগে ২০০১ সালের নার্সদের ৩য় শ্রেণী থেকে ২য় শ্রেণীর পদমর্যাদা প্রদান করেন। পরবর্তীতে পূর্বের ধারাবাহিকতায় ২০১০ সালে ১৮০০ জন এবং ২০১৩ সালে ৪১০০ জন নার্সকে ব্যাচ, মেধা ও জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে নিয়োগ প্রদান। প্রধানমন্ত্রী জনগণের স্বাস্থ্য সেবা সুনিশ্চিত করার লক্ষে ১০ হাজার নার্সের পদ সুজনের ঘোষনা দেন, যা প্রক্রিয়াধীন। সংশ্লিষ্ট পরিদপ্তর ও মন্ত্রণালয়ে ব্যাচ, মেধা ও জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে চাকরি দেয়ার আশ্বাসসের প্রেক্ষিতে ২০০৬ সাল থেকে দীর্ঘ ১০ বছর ধরে আমরা বেকার নার্সরা) চাকরির অপেক্ষায় রয়েছি। ইতোমধ্যে হাজার হাজার বেকার নার্সের সরকাররি চাকরির বয়স পেরিয়ে যাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী নার্সদের সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩০ থেকে ৩৬ বছর করেছেন। বর্তমান একটি স্বার্থাস্বেষী মহল নিয়োগ বাণিজ্য করার লক্ষে পরীক্ষার মাধ্যমে নার্স নিয়োগ দেয়ার পায়তারা করছে। বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে ডাক্তাররের সংখ্যা প্রায় ৭৫ হাজার এবং রেজিষ্ট্রার্ড নার্স মিডওয়াইফের সংখ্যা মাত্র ৪০ হাজার। বর্তমানে জনগণের গুনগত স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার জন্য আরো অন্তত ১ লক্ষ ৭৫ হাজার প্রশিক্ষিত রেজিষ্ট্রার্ড নার্স প্রয়োজন। ডাক্তার-নার্সেস এ ব্যবধান পুরণের লক্ষে প্রধানমন্ত্রী ২০১৪ সালে ১০ হাজার নার্সের পদ সৃজন ও নিয়োগের ঘোষনা দেন। কিন্তু দুঃখের বিষয় আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে এখনো পর্যন্ত নার্স নিয়োগ বাস্তবায়ন হয়নি। মানববন্ধন থেকে এর তীব্র ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানান বক্তারা। আমাদের দাবি যদি মেনে না নেওয়া হয় তা হলে দেশের হাজার হাজার বেকার নার্সদের ভবিষ্যৎ অন্ধকারে নিপতিত হবে এবং আতœহত্যার পথ বেছে নিতে হবে।
বাংলাদেশ ডিপ্লোমা বেকার নার্সেস এসোসিয়েশন সিলেট’র সভাপতি শম্পা চক্রবর্তী এর সভাপতিত্বে ও মহাসচিব পলাশ কুমার লস্করের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বেসিক গ্র্যাজুয়েট নার্সেস সিলেটের সাধারণ সম্পাদক প্রলয় কুমার বেপারী, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য সানজিদা খাতুন, বাংলাদেশ ডিপ্লোমা বেকার নার্সেস এসোসিয়েশন সিলেটের সহ-সভাপতি রিনা আক্তার ঝর্ণা, মো: আব্দুর রহিম, সহ-সভাপতি কাকলি বাড়ৈ, সাংগঠনিক সম্পাদক রিতা তালুকদার, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো: তারিক হাসান, প্রচার সম্পাদক মো: জাকির হোসেন, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য অর্পনা বর্মন, নাসিমা বেগম, হোসনে আরা বেগম, পারভীন আক্তার, আসলাম আহমেদ, সদস্য মো: আব্দুল হালিম, মো: শাহ আলম, মাহমুদুল হাসান, স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সভানেত্রী হাসনা আলম অমি প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল