ধরপাকড়েও খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে নেতাকর্মীদের ঢল – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

ধরপাকড়েও খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে নেতাকর্মীদের ঢল

প্রকাশিত: ৪:৫২ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৭

ধরপাকড়েও খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে নেতাকর্মীদের ঢল

ব্যাপক ধরপাকড়ের মধ্যেই বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে নেতাকর্মীদের ব্যাপক ঢল নেমেছে।

জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় হাজিরা শেষে খালেদা জিয়া বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) বিকেলে বাসার উদ্দেশ্যে রওনা হলে তাঁর গাড়িবহরে যোগ দেয় বিপুল নেতাকর্মীরা। হাইকোর্ট মাজার গেটের সামনে থেকে শুরু করে রুপসী বাংলা হোটেল পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সামনেই ব্যাপক শোডাউন করে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলসহ সহযোগী ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

পথে পথে গাড়িবহরে নেতাকর্মীরা যুক্ত হওয়ায় যে পথ দিয়ে বেগম জিয়া গুলশানের দিকে অগ্রসর হচ্ছিলেন সেসব রুটে যানচলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।

বিকেল ৩টার দিকে আদালত থেকে বের হন খালেদা জিয়া। খালেদা জিয়াকে বহনকারী গাড়ি হাইকোর্টের মাজার গেটের সামনে গেলে সেখানে নেতাকর্মীদের খানিক সময়ের জন্য আটকে রাখা মাজার গেট খুলে দেয়া হয়। এ সময় মিছিল আর স্লোগানে গাড়িবহরের সঙ্গে যুক্ত হন হাইকোর্টের ভেতর অবস্থানরত হাজারো নেতাকর্মীরা।

পরে হাইকোর্টের সামনে অবস্থিত কদম ফোয়ারা, মৎস ভবন মোড়, কাকরাইল মোড় হয়ে রুপসী বাংলা হোটেল পর্যন্ত নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে ধীরে ধীরে অগ্রসর হন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) বেলা ১১টা ৩৫ মিনিটে আদালতে পৌঁছান বিএনপি চেয়ারপারসন। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর হাজিরাকে কেন্দ্র করে পুরান ঢাকার বকশীবাজারের আদালত ও এর আশপাশ এবং হাইকোর্টের মাজার গেট এলাকায় ব্যাপক ধরপাকড় চালায় পুলিশ। এসব এলাকা থেকে বিএনপি ও ছাত্রদলের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ।

আটককৃতদের মধ্যে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি ইউনুছ আলী মৃধা, ঢাকা কলেজ ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক রাজিব, সহ-সভাপতি শাহাদত হোসেন বুলবুল, মহানগর দক্ষিণ ছাত্রদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক পাভেল শিকদার রয়েছেন।

অন্যান্য দিনের তুলনায় সকাল থেকেই আদালত ও এর আশপাশের এলাকায় বাড়তি নিরাপত্তা নেয়া হয়। বিপুল সংখ্যক পুলিশ র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া আদালতের প্রধান ফটকে স্ক্যানার বসিয়ে তল্লাশি করে ভেতরে ঢোকানো হয়।