নগরীতে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যানার সিসিক’র অপসারণ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

নগরীতে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যানার সিসিক’র অপসারণ

প্রকাশিত: ৯:৩২ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৬

নগরীতে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যানার সিসিক’র অপসারণ

picস্টাফ রিপোর্টার : সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে আবারো হঠাৎ করে নগরীতে বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন, অপসারণ করা হয়। গত মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত এই অভিযান পরিচালনা  করা হয়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বিশ্ব জুড়ে উন্নয়নের রোল মডেল দেশরতœ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতেরও ছবি সংযুক্ত বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন, অপসারণ করা হয়েছে। নগরীর সৌন্দর্য বৃদ্ধির নামে জাতির জনকের ছবি সংযুক্ত ব্যানার, ফেস্টুন ছিড়ে ফেলা হচ্ছে। তাছাড়া নগরীর আম্বরখানায় দেখা যায় বিভিন্ন আওয়ামীলীগ ও বিএনপি নেতাদের ছবি সংযুক্ত শুভেচ্ছা ব্যানার। যা এখনো অপসারিত হয়নি। এগুলো কি নগরীর সৌন্দর্য নষ্ট করে না ?
নাকি শুধু জাতির জনকের আগস্টের শোক ব্যানারই নগরীর সৌন্দর্য নষ্ট করে এমন প্রশ্ন সুশীল সমাজের কাছে।
এমপি মন্ত্রীগণ যখন সিলেট সফরে আসেন তখনই দেখা যায় নগরীর সৌন্দর্য বৃদ্দির জন্য উঠে পড়ে লেগে থাকে সিসিক। যা বছরের অন্যান্য সময় দেখা যায় না।
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় উদ্বোধন করা হবে। ধারণা করা হয়, বিপিএল’র ব্যানার, পোস্টার, লাগানোর জন্যই মাহি উদ্দিন সেলিমের ইন্ধনে নগরীতে টাঙ্গানো ব্যানারগুলো ছিড়ে ফেলা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের চীফ কনজারভেন্সী অফিসার মো. হানিফুর রহমান জানান, অনুমোদনবিহীন এবং যত্রতত্রভাবে মহানগরীজুড়ে ব্যানার ফেস্টুন বিলবোর্ড লাগানোর ফলে সিলেট মহানগরীর স্বাভাবিক সৌন্দর্যের হানি ঘটছে। যার প্রেক্ষিতে এই অভিযান শুরু করা হয়েছে। এর আগেও একাধিকার অভিযান চালিয়ে হাজার হাজার ব্যানার ফেস্টুন অপসারণ করার কথা উল্লেখ করে মো. হানিফুর রহমান জানান, মহানগরী পরিচ্ছন্ন না হওয়া পর্যন্ত এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।
মঙ্গলবার সুরমা মার্কেট পয়েন্ট থেকে শুরু হয় অভিযান। এরপর পর্যায়ক্রমে বন্দরবাজার, জিন্দবাজার, চৌহাট্টা পয়েন্ট হয়ে রিকাবীবাজার পয়েন্ট পর্যন্ত অপসারণ কাজ চলে। পরবর্তীতে মহানগরীর অন্যান্য গুরুত্বপূর্ন স্থানেও অভিযান পরিচালনা করা হবে। সিটি কর্পোরেশনের ১৩ জন কর্মী এবং একাধিক ট্রাক এই কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। অভিযানের প্রথম দিনে সিটি কর্পোরেশনের তিনটি ট্রাক ভরে যায় অবৈধ অনুমোদনবিহীন ব্যানার ফেস্টুনে।
এ ব্যাপারে সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব বলেন, সিলেট সিটি কর্পোরেশন কিছুদিন পরপর ব্যানার ফেস্টুন অপসারণ করার পরও দেখা যায় আবারও যত্রতত্র ব্যানার ফেস্টুন লাগানো হচ্ছে। সিটি কর্পোরেশন বারবার অপসারণ করলেই এই সমস্যার সমাধান হবে না। মহানগরের সৌন্দর্য রক্ষায় নগরবাসীকে সচেতন থাকার আহবান জানান তিনি।

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল