পবিত্র হজ পালন শেষে ঢাকায় পৌছেছেন খালেদা জিয়া – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

পবিত্র হজ পালন শেষে ঢাকায় পৌছেছেন খালেদা জিয়া

প্রকাশিত: ১:৫৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৬

পবিত্র হজ পালন শেষে ঢাকায় পৌছেছেন খালেদা জিয়া

kalada২২ সেপ্টেম্বর ২০১৬, বৃহস্পতিবার: পবিত্র হজ পালন শেষে ঢাকায় পৌছেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

এ সময়ে বিমান বন্দরে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইসচেয়ারম্যান, সেলিমা রহমান, শামসুজ্জামান দুদু, অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খানসহ বিএনপি চেয়ারপারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সম্পাদক গণ ও দলের অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়াকে অভ্যর্থনা জানান।
এর আগে বৃহস্পতিবার মদিনা থেকে ভোর সাড়ে চারটার দিকে মদিনা আব্দুল আজিজ বিমান বন্দর থেকে রওনা দেন। এসময়ে বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সৌদিআরব বিএনপির সভাপতি আহমদ আলী মুকিবের নেতৃত্ব কয়েক হাজার নেতাকর্মী বিমান বন্দরে তাদের প্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও নেতা তারেক রহমান কে বিদায় জানান।

এরপরে আবুধাবীতে ৩ ঘন্টা যাত্রা বিরতি দিয়ে আমিরাত এয়ার লাইন্সের একটি ফ্লাইটে ঢাকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান বিকেল ৫টায় খালেদা জিয়া।

এদিকে খালেদা জিয়ার দেশে ফেরা উপলক্ষে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে গণসংবধনা দেয় দলটি। ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন থানা, ওয়ার্ড ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিকেল তিনটার মধ্যে এয়ারপোর্ট এলাকায় বিভিন্ন ধরনের পোষ্টার, ব্যানার লেখা নিয়ে রাস্তার দুপাশে দাড়িয়ে থাকেন নেত্রীকে শুভেচ্ছা জানানোর জন্য।
সৌদি বাদশা সউদ বিন আবদুল আজিজের আমন্ত্রণে রাজকীয় অতিথি হিসেবে বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইসচেয়ারম্যান তারেক রহমান পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ১১ই সেপ্টেম্বর রোজ রবিবার সৌদি আরবের মক্কায় ঐতিহাসিক আরাফাতের ময়দানে পবিত্র হজ সম্পন্ন করেছেন ।

গত ৭ নভেম্বর হজ করতে বাংলাদেশ থেকে খালেদা জিয়া এবং লন্ডন থেকে তারেক রহমানসহ পরিবারের সদস্যরা জেদ্দা পৌঁছেন।

খালেদা জিয়ার এটি তৃতীয় হজ ছিল। এর আগে ১৯৯১ সালে প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে একবার এবং ১৯৯৭ সালে বিরোধী দলে থাকাকালে তিনি হজ করেন। তবে প্রায় প্রতিবছরই রমজানে তিনি উমরাহ পালন করেন। সৌদি আরব বিএনপির সভাপতি আহমদ আলী মুকিব সবগুলো হজ্ব ও উমরার সময়ে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও তাঁর বড় ছেলে তারেক রহমানের সঙ্গে ছিলেন।
তারেক রহমান, তার স্ত্রী জোবাইদা রহমান, মেয়ে জাইমা রহমান এবং প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথির এটি প্রথম হজ। ২০১৪ সালে তারা খালেদা জিয়ার সঙ্গে উমরাহ করেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে তার উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য এনামুল হক চৌধুরী, তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শরীফ শাহ কামাল তাজ, একান্ত সচিব আবদুস সাত্তার, আলোকচিত্রী নুরুউদ্দিন আহমেদ, গৃহকর্মী ফাতেমা বেগমও হজ করেন।
আরএম

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল