পানগুছি নদীতে ট্রলারডুবির তৃতীয় দিনে আরো ৭ মরদেহ উদ্ধার – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

পানগুছি নদীতে ট্রলারডুবির তৃতীয় দিনে আরো ৭ মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত: ২:৪৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ৩০, ২০১৭

পানগুছি নদীতে ট্রলারডুবির তৃতীয় দিনে আরো ৭ মরদেহ উদ্ধার

বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের পানগুছি নদীতে খেয়া পারাপারের ইঞ্জিন চালিত ট্রলার ডুবির ঘটনার তৃতীয় দিনে ৭ মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবরি দল। উদ্ধুরকৃত মরদেহ গুলো হলো কালিকাবাড়ী এলাকার মজিদ শেখ ও রফিক শেখের বলে পুলিশ জানিয়েছে। বৃহষ্পতিবার সকালে এই দুটি মরদেহ উদ্ধার করে। নৌবাহিনী, কোষ্টগার্ড ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা উদ্ধার তৎপরতা এখনও চালিয়ে যাচ্ছে। বুধবার সকাল থেকে ঘটনাস্থলের পানগুছি নদীর দুই দিকে ১০ কিঃ মিঃ ব্যাপী ডুবুরিরা সার্চ শুরু করে। মঙ্গলবার ৪ নারীর মরদেহ ও বুধবার ১ নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সব মিলে এখন পর্যন্ত ১২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হলো।

মোড়েলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশিদুল আলম জানান, থানায় বিভিন্ন সময়ে প্রাপ্ত তালিকা অনুযায়ী শিশু, নারী ও বৃদ্ধসহ ১৭ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে জানাগেছে। এরমধ্যে ৭ জন পুরুষ, ৫ জন শিশু ও বাকীরা মহিলা। নিখোঁজদের এই ১৭ তালিকার মধ্য থেকে এখন পর্যন্ত ৭ টি লাশ উদ্ধার হয়েছে। বাকীদের এখনও সন্ধান পাওয়া যায়নি।

অতিরিক্ত যাত্রী বহন করায় গত মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পানগুছি নদীতে ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটে। ওই দিনই চার নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়। পরের দিন বুধবার এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশিদুল আলম জানান, নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা উদ্ধার তৎপরতা এখনো চালিয়ে যাচ্ছেন। বুধবার সকাল থেকে ঘটনাস্থল পানগুছি নদীর দুই দিকে ১০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ডুবুরিরা অনুসন্ধান কাজ শুরু করেন।

ওসি আরো জানান, এ ঘটনায় শিশু, নারী, বৃদ্ধসহ ১৭ জন নিখোঁজের একটি তালিকা হয়েছে। তাদের মধ্যে সাতজন পুরুষ, পাঁচ শিশু ও পাঁচ নারী আছেন। নিখোঁজদের মধ্যে এখন পর্যন্ত ছয়জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বাকিদের সন্ধান পাওয়া যায়নি। এখনো নিখোঁজ আছে ১১ জন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল