প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ন্ত্রণের সময় এসেছে: জাকারবার্গ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ন্ত্রণের সময় এসেছে: জাকারবার্গ

প্রকাশিত: ৩:৪৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ২২, ২০১৮

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ন্ত্রণের সময় এসেছে: জাকারবার্গ

সারা বিশ্বে প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিষ্ঠানগুলো দিন দিন আরও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠায় এখন এগুলোকে আরও কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করার সময় এসে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ।কিন্তু, ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দাতাদের সম্পর্কে সব তথ্য প্রকাশ করা ছাড়া আর কী কী বিষয়ে তিনি বিধিনিষেধ আরোপের পক্ষে তা স্পষ্ট করে বলেননি।

বুধবার মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ফেসবুক ও অন্যান্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে যে নিয়ন্ত্রণ করা উচিত, এটা এখন প্রশ্নাতীত একটি বিষয়। কিন্তু এই প্রতিষ্ঠানগুলোর উপর কী ধরনের বিধিনিষেধ আরোপ করাটা সবচেয়ে যুক্তিযুক্ত হবে সেটা নিয়েই এখন নীতিনির্ধারকদের কাজ করতে হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের শেষ থেকেই ফেসবুক বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টার অভিযোগে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে। বিভিন্ন ক্ষতিকারক বৈশিষ্ট্যের জন্য ফেসবুকের প্রাক্তন কর্মকর্তারাও সোশ্যাল সাইটটির তীব্র সমালোচনা করেন।

যুক্তরাজ্য ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা পাঁচ কোটি ফেসবুক ইউজারের তথ্য হাতিয়ে নিয়ে ২০১৬ সালের নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে জিততে সাহায্য করেছে। এই ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর এই সপ্তাহে নতুন করে সমালোচনার মুখে পড়ে ফেসবুক।

গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্য তৃতীয় পক্ষকে ব্যবহার করতে দেয়ার অভিযোগের পর জাকারবার্গ তাৎক্ষণিক কোনো প্রতিক্রিয়া দেননি। দীর্ঘ সময় মন্তব্য প্রদানে বিরত থেকে, বুধবার তিনি বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেন। সিএনএনে একটি সাক্ষাৎকারও দেন তিনি।

ওয়াইয়ার্ড ম্যাগাজিন, রিকোড ও সিএনএনকে সাক্ষাৎকারে প্রায় একই ভাষা ব্যবহার করে গ্রাহকদের তথ্য ফাঁসের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন জাকারবার্গ।

ফেসবুক, গুগল ও অ্যামাজন পৃথিবীর অসংখ্য মানুষ ব্যবহার করায় এগুলো ক্রমেই অত্যন্ত প্রভাবশালী হয়ে পড়ছে। এদের প্রতিযোগী কোনো বিকল্প সার্ভিস তৈরি করাও কঠিন হয়ে পড়ছে।

জাকারবার্গ বলেন, ইন্টারনেট কোম্পানিগুলোতে কারা বিজ্ঞাপন দিচ্ছে এই তথ্য উন্মুক্ত রাখা প্রয়োজন। কিন্তু, অন্য কোনো নীতিমালার কথা স্পষ্ট করে বলেননি তিনি।

রাশিয়ার এজেন্টরা রাজনৈতিক প্রচারণার জন্য ফেসবুকে বিজ্ঞাপন ব্যবহার করে ২০১৬ সালের নির্বাচনকে প্রভাবিত করেছিল। কিন্তু, বিষয়টি তারা নির্বাচন শেষ হয়ে যাওয়ার অনেক পরে স্বীকার করে।

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল