প্রশ্নের মুখে মমতার নিরাপত্তা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

প্রশ্নের মুখে মমতার নিরাপত্তা

প্রকাশিত: ৪:৪৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৮

প্রশ্নের মুখে মমতার নিরাপত্তা

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিরাপত্তায় গাফিলতি রয়েছে কি না- তা নিয়ে এখন প্রশ্ন উঠেছে। বৃহস্পতিবার হেমতাবাদে মুখ্যমন্ত্রীর সভায় দুই বোনের মঞ্চে উঠে পড়ার ঘটনার পর এ প্রশ্ন উঠেছে।

আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ নিরাপত্তা ব্যবস্থায় অন্তত পাঁচটি ফাঁক পেয়েছে।

গত বছরের জুনে দার্জিলিঙে মুখ্যমন্ত্রী চিড়িয়াখানার সামনে দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময়ে ওই রাস্তায় আচমকা কনভয় নিয়ে ঢুকে পড়েন বিমল গুরুঙ্গ নামে একজন। ওই ঘটনার জেরে তৎকালীন নিরাপত্তা অধিকর্তা সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়কে পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়।

এ বার উত্তরবঙ্গের কোন পুলিশকর্তা বা কর্মীদের উপরে খাঁড়া নামতে পারে, তা নিয়ে পুলিশের মধ্যেই চুলচেরা বিশ্লেষণ চলছে।

যে পাঁচটি ফাঁক পেয়েছে পুলিশ
সভাস্থলের যেখানে কন্যাশ্রী ও অন্যান্য ছাত্রছাত্রীরা বসেছিলেন, তার সামনে বাঁশের ব্যারিকেড ছিল। রাবেয়া খাতুন ও আসনুরা নামে ওই দুই বোন ব্যারিকেডের ফাঁক গলে সাংবাদিকদের জন্য নির্দিষ্ট এলাকায় ঢুকে পড়েছিলেন। নিরাপত্তা ব্যবস্থার প্রথম ফাঁক সেখানেই।

এরপর ওই ব্যারিকেডের সামনে পুলিশ সদস্যদের মানুষের দিকে মুখ করে দাঁড়িয়ে নজর রাখার কথা। পুলিশের একটি সূত্রের খবর, নিরাপত্তারক্ষীদের জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে দেখা যাচ্ছে না বলে শিক্ষার্থীরা হইচই করে। এরপর গোয়েন্দারা কিছুটা সরে গিয়েছিলেন কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সাংবাদিকদের জন্য নির্দিষ্ট জায়গায় ঢুকে দুই বোন দু’দিকে যখন যাচ্ছিলেন, সে সময়ে মঞ্চে ও দু’পাশে থাকা অফিসার, গোয়েন্দাদের তা নজর পড়ার কথা ছিল। সেটা হয়নি।

মঞ্চে ওঠার দু’টি সিঁড়ির মুখে দু’দিকে পুলিশের প্রথম সারির অফিসারদের সাধারণত দাঁড়াতে দেখা যায়। ঘটনার সময়ে তারা কোথায় ছিলেন- তাও জানার চেষ্টা চলছে।

দু’দিকের দু’টি সিঁড়িতে এসএসইউয়ের দু’জন করে মহিলা কম্যান্ডো থাকার কথা। অচেনা কেউ সিঁড়িতে ওঠার চেষ্টা করলেই তাদের রোখার কথা। স্পষ্টতই সেটাও হয়নি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল