বরের মা-বাবার বিয়ের বয়স ২০ ॥ সুনামগঞ্জে বাল্যবিবাহ : তোলপাড় – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

বরের মা-বাবার বিয়ের বয়স ২০ ॥ সুনামগঞ্জে বাল্যবিবাহ : তোলপাড়

প্রকাশিত: ৪:১৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৬

বরের মা-বাবার বিয়ের বয়স ২০ ॥ সুনামগঞ্জে বাল্যবিবাহ : তোলপাড়

widinaaag২০ সেপ্টেম্বর ২০১৬. মঙ্গলবার: বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন শুধু মেয়েদের জন্য নয়, ছেলেদের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। কিন্তু প্রশাসনের নাকের ডগায় অহরহ ছেলেদের বাল্যবিবাহ হচ্ছে। সমাজ ও প্রশাসনের এহেন একচোখা নীতিতে ছেলেরা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। জনমনে প্রশ্নের উদ্রেক হচ্ছে আইনের প্রয়োগ-অপ্রয়োগ নিয়ে। অতি সম্প্রতি সিলেটে বিভাগের সবকটি এলাকায় মেয়েদের বাল্যবিবাহ পন্ড করে দেয়া হরেও বিভিন্নস্থানে নিরবে ছেলেদের বাল্য বিবাহ সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু কেই বাধা দিচ্ছে না ছেলে বলে। এর একটি সুনামগঞ্জ জেলার দক্ষিণ সুনামগঞ্জের দর্গাপাশা সৈয়দ বাড়ির বিবাহ অনুষ্টান। আগামী ২২সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার এ বিয়ে সম্পন্ন হচ্ছে। দক্ষিণ সুনামগঞ্জের দৌলতপুর নোয়াপাড়ার নূরুল আমিন সর্দারের মেয়ে মাহরুবা বেগম (২৩) এর বিবাহ হচ্ছে তার নানার বাড়ি একই উপজেলা দর্গাপাশা সৈয়দ বাড়িতে। কিন্তু তার বর হচ্ছে বয়সে তার চেয়ে ৬ বছরের ছোট। বর রিয়াজ রায়হান আহমদ-এর বাড়ি সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার সুহিতপুর গ্রামে। সে ওই গ্রামের রুহুল আমিনের ছেলে ও ছাতক গোবিন্দগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র,যার বর্তমান বয়স ১৭ । আইনত ছেলের বিয়ের বয়স ২১প্লাস নির্ধারিত হলেও বর-কনের বাবা-মা,অভিভাবক ও সমাজপতিরা এ আইন মানছে না। মা-বাবা তাদের ১৭ বছরের নাবালক ১ম সন্তানকে ২২বছরের যুবক বানিয়ে বিয়ে করাচ্ছেন ২৩বছরের যুবতী মেয়েকে । সরকারী রেকডে বরের (ছেলের) বাবা-মায়ের বিয়ের বয়স এখনো ২০। অথচ তারা তাদের ১৭বছরের নাবালক ১ম সন্তানকে ২২বছরের যুবক বানিয়ে বিয়ে করাচ্ছেন। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। অনেকের প্রশ্ন, বাবা-মায়ের বিয়ের ২বছর আগেই নাকি তাদের ১ম সন্তান (বর) রিয়াজ রায়হান আহমদের জন্ম হয়ে গিয়েছিল।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল