বাবরের অতিমানবীয় ইনিংসে পাহাড়সম লক্ষ্য পাড়ি দিল পাকিস্তান – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

বাবরের অতিমানবীয় ইনিংসে পাহাড়সম লক্ষ্য পাড়ি দিল পাকিস্তান

প্রকাশিত: ১১:২৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২১

বাবরের অতিমানবীয় ইনিংসে পাহাড়সম লক্ষ্য পাড়ি দিল পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক

আইপিএল খেলতে রাবাদা, ডি ককদের মতো সেরা তারকারা সিরিজের মাঝ পথেই পাড়ি জমান ভারতে।

যে কারণে পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে দুর্বল শক্তির দলে পরিণত হয় দক্ষিণ আফ্রিকা।

তবুও বুধবার টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে পাক পেসারদের তুলোধোনা করে ২০৪ রানের বিশাল লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা।

কিন্তু তাতে অবশ্য কাজ হয়নি। পাক অধিনায়ক বাবর আজমের অতিমানবীয় ইনিংসে ভর করে দুই ওভার বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় সফরকারীরা।

মাত্র এক উইকেট হারিয়ে ১৮তম ওভার শেষেই প্রোটিয়াদের ছোড়া টার্গেট ছুঁয়ে ফেলে পাকিস্তান। অর্থাৎ টি-টোয়েন্টির সিরিজের তৃতীয় ম্যাটি ৯ উইকেটের বিশাল জয় পেল পাকিস্তান।

আজ মাত্র ৫৯ বলে ১২২ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেছেন টি-টোয়েন্টির সেরা ব্যাটসম্যান। হেন্ডরিখ, শামসি ও উইলিয়ামসদের পাড়ার বোলার বানিয়ে ছেড়েছেন। টি-টোয়েন্টিতে এমন দানবীয় ইনিংস দেখতে পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার।

আর ক্রিকেটপ্রেমীদের সেটাই করে দেখালেন। আইপিএলে বুঁদ দর্শকরা অবশ্য মিস করবেন সেঞ্চুরিয়নের সুপার স্পোর্টস পার্কে বাবর আজমের এই ইনিংসকে।

উইলিয়ামের বলে অধিনায়ক ক্লাসেনের হাতে ক্যাচ তুলে না দিয়ে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে পারতেন বাবর। ইনিংসের ১৮তম ওভারে গিয়ে যখন আউট হন তিনি ততক্ষণে পাকিস্তানের জয় সময়ের ব্যাপারে পরিণত হয়।

বাবরের আউটের পর ফখর জামান দুটি বাউন্ডারি হাঁকিয়েই লক্ষ্যে পৌঁছে দেন দলকে।

১২২ রানের ইনিংসটি ১৫টি বাউন্ডারি ও ৪টি ছক্কার মারে সাজিয়েছেন পাক অধিনায়ক। তাকে যোগ্য সঙ্গী ছিলেন ওপেনার মোহাম্মদ রিওয়ান।

মাত্র ৪৭ বলে ৭৩ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। কিন্তু বাবরের অধিনায়কচিত ইনিংসটির ছায়ায় ঢেকে গেছে রিজওয়ানের এমন দুর্দান্ত ব্যাটিং।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দ. আফ্রিকার দুই ওপেনার জানেমান মালান এবং এইডেন মারক্রাম স্কোরবোর্ডে তোলেন ১০৮ রান।

মালান – মারক্রাম জুটি ভাঙা যেন কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছিল পাক বোলারদের জন্য।

১০.৪ ওভারের সময় ব্রেক থ্রু এনে দেন মোহাম্মদ নওয়াজ। ৩১ বলে ৬৩ রানের ইনিংস খেলে আউট হন এইডেন মারক্রাম। ৬টি বাউন্ডারি আর ৪টি ছক্কার মার মারেন তিনি।

এরপর জর্জ লিন্ডে এবং জানেমান মালান গড়ে তোলেন ৩৩ রানের জুটি। ১১ বল ২২ রান করে আউট হন জর্জ লিন্ডে। জানেমান মালান ৪০ বলে ৫টি বাউন্ডারি এবং ২ ছক্কায় ৫৫ রান করে আউট হন।

২০ বলে ৩৪ রান করে অপরাজিত থাকেন রাশি ফন ডার ডুসেন। ১০ বলে ১৫ রান করেন হেনরিক ক্লাসেন। আন্দিল পেহলুকাইয়ো করেন ৮ বলে ১১ রান। শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেট হারিয়ে ২০৩ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা।

পাকিস্তানের হয়ে ২ উইকেট নেন মোহাম্মদ নওয়াজ। ১টি করে উইকেট নেন শাহিন শাহ আফ্রিদি, হাসান আলি এবং ফাহিম আশরাফ।