বার কাউন্সিল পরীক্ষা: লিডিং ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ’র উদাসহীন মনোভাব – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

বার কাউন্সিল পরীক্ষা: লিডিং ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ’র উদাসহীন মনোভাব

প্রকাশিত: ৩:০০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০১৭

বার কাউন্সিল পরীক্ষা: লিডিং ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ’র উদাসহীন মনোভাব

গত ১৩ এপ্রিল ২০১৭ তারিখে বার কাউন্সিলের কর্তৃপক্ষ তাদের ব্যবহারিত ওয়েবসাইটে এডভোকেট তালিকাভুক্তির তারিখ ঘোষণা করেছে। যাতে উল্লেখ করা হয়েছে, পরীক্ষা জুনের ২ তারিখে নেওয়া হবে, রেজিষ্ট্রশনের শেষ তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৭। যদি কোন পরীক্ষর্থী নির্ধারিত তারিখের মধ্যে রেজিষ্টশন করতে ব্যর্থ হন তাহলে প্রতিদিন ২০০ টাকা ফাইন সহ ০৭ এপ্রিল ২০১৭ তারিখ ঘোষণা করেছে। উল্লেখিত যে, বার কাউন্সিলর কতৃপক্ষ প্রায়ই সব ভার্সিটির রেজি: কার্ড দিলে ও লিডিং ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা তাদের বহুল প্রত্যাশিত রেজি: কার্ড এখন পায় নি।

এ নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্য ভয় ও উত্তেজনার কাজ করছে। বেশ কিছু ভোক্তভোগি শিক্ষার্থীদের সাথে যোগাযোগ করা হলে আইন বিভাগের ১২ ব্যাচের ওলিউর রহমান ও শিপু ছালেকিন বলেন যে, আমারা বার বার ভার্সিটির কর্তৃপক্ষের সাথে রেজি: কার্ড নিয়ে কথা বলার চেষ্ঠা করেছি কিন্তু তারা বিষয়টা এড়িয়ে যাচ্ছে। তারা বলছে, এই তো দিয়ে দিবে আমরা সব কিছুর তথ্য বার কাউন্সিলে জমা দিয়েছি কিন্তু কর্তৃপক্ষ’র আচরণে এধরনের কোন লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

আরেক ভোক্তভোগি শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের জুডিসিয়াল পরীক্ষা ২৮ এপ্রিল ২০১৭ তারিখ আমরা এখনও আমাদের বারের রেজি: কার্ড পায় নি। আমরা কোনটা নিয়ে চিন্তা করব পড়ব নাকি বারের রেজি: কার্ড নিয়ে ভাবব? আমাদের বারের ও পরীক্ষা আর মাত্র এক মাস পড়ে। ভোক্তভোগি শিক্ষার্থীরা এ বিষয়ের দ্রুত সমাধান চান। অন্যতায় যে কোন পরিস্থির দায় ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে।

এই বিষয়ে লিডি ইউনিভার্সিটির ডেপুটি রেজিষ্ট্রার কাওসার হাওলাদারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমরা প্রত্যেক বার রেজিষ্ট্রশনকারী শিক্ষার্থীদের নাম তালিকা ভোক্ত করে বার কাউন্সিলে পাঠাই পরে যোগাযোগ করা হলে তারা তালিকা হারিয়ে গেছে বলে জানান। তিনি জানান শীঘ্রই রেজিষ্ট্রশনের সকল কার্যক্রম সম্পন্ন হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল