বিএনপির ষড়যন্ত্র রুখে জনগণ গণতন্ত্রের বিজয় এনেছে : সিলেট আ’লীগ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

বিএনপির ষড়যন্ত্র রুখে জনগণ গণতন্ত্রের বিজয় এনেছে : সিলেট আ’লীগ

প্রকাশিত: ৬:৩৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩০, ২০২০

বিএনপির ষড়যন্ত্র রুখে জনগণ গণতন্ত্রের বিজয় এনেছে : সিলেট আ’লীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজয়ের ২য় বার্ষিকী পূর্ণ হয়েছে । দিনটিকে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ হিসেবে উদযাপনের লক্ষে কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে যৌথ আলোচনা আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্বে করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমেদ ও পরিচালনা করেন এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান। এসময় বক্তারা বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও উন্নয়নের ইতিহাসে একটি বিজয়ের মাইলফলক। এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে অশুভ শক্তি, দুর্নীতি-সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষকদের আস্ফালন আর সহিংস রাজনীতির অন্ধকার ছায়া কাটিয়ে গণতন্ত্রের নবতর অভিযাত্রায় অগ্রসর হয় বাংলাদেশ। বক্তারা আরও বলেন, বিএনপি তাদের চিরাচরিত ষড়যন্ত্রের রাজনীতির ধারাবাহিকতায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে এবং জনগণের মধ্যে নির্বাচন নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা ও নির্বাচন কেন্দ্রিক উৎসব-আমেজে স্থবিরতা সৃষ্টি করতে অপতৎরপতা চালায়। কিন্তু তাদের এই ষড়যন্ত রুখে দিয়েছিলো জনগণ।

উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক জাকির হোসেন, আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী, এডভোকেট রাজ উদ্দিন জিপি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক, এডভোকেট নিজাম উদ্দিন পিপি, অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক , এডভোকেট শাহ মশাহিদ আলী, হুমায়ূন ইসলাম কামাল, মোহাম্মদ আলী দুলাল, নুরুল ইসলাম পুতুল,এডভোকেট মাহফুজুর রহমান, আব্দুর রহমান জামিল, আজহার উদ্দিন জাহাঙ্গীর, কবির উদ্দিন আহমদ, এডভোকেট রনজিত সরকার,মস্তাক আহমদ পলাশ ,সৈয়দ শামীম আহমদ, খোকন কুমার দত্ত, এমাদ উদ্দিন মানিক, ডাঃ আরমান আহমেদ শিপলু, এডভোকেট গোলাম সোবহান চৌধুরী দীপন, শামসুন নাহার মিনু, এডভোকেট প্রদীপ ভট্টাচার্য, আজম খান, এডভোকেট আজমল আলী, আখলাকুর রহমান চৌধুরী সেলিম, আব্দুল মোমিন চৌধুরী, আবদাল মিয়া, সৈয়দ মিছবাহ উদ্দিন, আজিজুল হক মনজু, শাহিদুর রহমান শাহীন, নূরে আলম সিরাজী, এডভোকেট বদরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, আব্দুস সোবহান, জামাল আহমদ চৌধুরী, প্রদীপ পুরকায়স্থ, নাজমুল ইসলাম এহিয়া, এডভোকেট শামিম আহমেদ, শমশের জামাল, মজির উদ্দিন, এডভোকেট মনসুর রশীদ, বুরহান উদ্দিন আহমেদ, আব্দুল বারী, গোলাপ মিয়া, লায়েক আহমেদ চৌধুরী, রজত কান্তি গুপ্ত, এডভোকেট আব্বাছ উদ্দিন, সুদীপ দেব, খন্দকার মহসিন কামরান, সাব্বির খান, সেলিম আহমেদ সেলিম, মাহফুজ চৌধুরী জয়, মুক্তার খান, জাহাঙ্গীর আলম, ইলিয়াসুর রহমান, সুয়েব আহমেদ, এডভোকেট দিলওয়ার আল আজহার, এডভোকেট জাহিদ সরোয়ার সবুজ, আতিকুর রহমান সুহেদ, সুহেল আহমদ সাহেল, খলিল আহমদ, সাইফুল আলম স্বপন, রাহাত তরফদার, এমরুল হাসান, রায়হান চৌধুরী, আব্দুল বাসিত রুম্মান, আব্দুল আলীম তুষার।ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দদের নেতৃবৃন্দ মধ্যে এডভোকেট বিজয় কুমার দেব ভুলু, চন্দন রায়, সালাহ উদ্দীন বক্স সালাই, নিজাম উদ্দিন ইরান, জাহিদুল ইসলাম মাসুদ, এইচ এম ফারুক হোসেন, সুরুজ আলী, শেখ সোহেল আহমদ কবির, বদরুল ইসলাম বদরু, জাবেদ আহমদ, মাহবুবুর রহমান মাহবুব, আব্দুল আহাদ চৌধুরী মিরন, মানিক মিয়া প্রমুখ। জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী মাধুরী গুণ, ডাঃ নাজরা চৌধুরী, তাহনিম বিনতে স্বর্ণা।মহানগর যুবলীগের সভাপতি আলম খান মুক্তি, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম রশীদ চৌধুরী, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন আহমেদ কয়েস, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক দেবাংশু দাস মিঠু, জেলা তাঁতীলীগের আহ্বয়াক আলমগীর হোসেন, মহানগর তাঁতী লীগের আহ্বায়ক নোমান আহমদ ,জেলা সদস্য সচিব সুজন দেবনাথ, মহানগর তাঁতী লীগের সদস্য সচিব আবুল হাসনাত বুলবুল প্রমুখ।