বিএনপি-আরএসএস বৈঠকের খবর উড়িয়ে দিলেন খসরু – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

বিএনপি-আরএসএস বৈঠকের খবর উড়িয়ে দিলেন খসরু

প্রকাশিত: ১:৪৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২২, ২০১৮

বিএনপি-আরএসএস বৈঠকের খবর উড়িয়ে দিলেন খসরু

ভারতের উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ-আরএসএস নেতাদের সঙ্গে বিএনপি প্রতিনিধি দলের বৈঠকের খবর উড়িয়ে দিয়েছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, আরএসএস ও বিএনপির কোনো বৈঠকের কথা আমার জানা নেই। ‘সঙ্ঘকে ধরে দিল্লির কাছে পৌঁছতে চাইছেন খালেদা’ শিরোনামে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বাংলা পত্রিকা আনন্দবাজার রোববার একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

অগ্নি রায়ের প্রতিবেদনে বলা হয়, আরএসএস তথা সংঘ পরিবারের মাধ্যমে মোদী সরকারের কাছে বার্তা পৌঁছানোর চেষ্টা করছে বিএনপি-জামায়াত জোট।

এ প্রসঙ্গে জানাতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘কোন আরএসএস কোন বিএনপির সঙ্গে বৈঠক করেছে আমার জানা নেই। এটা বলতে পারি, জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির কোনো প্রতিনিধি দল ভারতে যায়নি।’

আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘ভোটের ঢাকে কাঠি পড়ার সঙ্গে সঙ্গে তেতে উঠছে ঢাকার রাজনীতি। গদি ধরে রাখতে এক দিকে যেমন কৌশল রচনা করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তেমনই এবারের ভোটে যোগ দিয়ে ক্ষমতা দখলে মরিয়া বিএনপি ও জামাতে ইসলামি জোটের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া।’

এতে বলা হয়, ‘কূটনৈতিক সূত্রের খবর, এই যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে গত কয়েক মাস ধরে দিল্লির সঙ্গে যোগাযোগ বাড়ানোর চেষ্টা করছেন খালেদা। এ জন্য আরএসএস তথা সংঘ পরিবারের মাধ্যমে মোদী সরকারের কাছে বার্তা পৌঁছনোর চেষ্টা করছে বিএনপি-জামাত জোট। সেই বার্তাটি হল, শুধুমাত্র ক্ষমতাসীন আওয়ামি লিগের প্রতি কূটনৈতিক পক্ষপাত বহাল না-রেখে তাঁদের সঙ্গেও একটা বোঝাপড়ার দিকে এগোক সাউথ ব্লক।’

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ‘নয়াদিল্লিকে এটা বোঝানোর চেষ্টা হচ্ছে, বিএনপি তাদের কর্মসূচিতে সর্বদা বাণিজ্যকে অগ্রাধিকার দিয়ে এসেছে। ক্ষমতায় এলে ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে নানা ধরনের ছাড়া দেবে তারা। পাশাপাশি বাংলাদেশে সংখ্যালঘু অধিকারের বিষয়টি নিয়েও এ বারে যে তারা তৎপর হতে চায়, সে কথাও দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছ।’

‘এ বিষয়ে নাগপুরে আরএসএস-এর একটি অংশের সঙ্গে বিএনপি-র কয়েক জন প্রতিনিধি সম্প্রতি দেখা করে এসেছেন। তা ছাড়া গত বছরের শেষে খালেদা জিয়া যখন লন্ডনে যান, সেখানেও সঙ্ঘের প্রবাসী কিছু নেতার সঙ্গে কথা হয় তার’ এতে যোগ করা হয়।

এ প্রসঙ্গে আমীর খসরু বলেন, ‘দিল্লির সঙ্গে বিএনপির সম্পর্কের আলাদা করে কিছু নেই। সম্পর্কটা দুই দেশের মধ্যে থাকতে হবে। সম্পর্কের কোনো সমস্যা থাকলে সেটাও উন্নয়ন করতে হবে। দিল্লির সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে বিএনপির প্রতিনিধি দল যাওয়ার সংবাদ আমার কাছে নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য বিএনপি দিল্লির কাছে যাবে কেন? ক্ষমতায় যাওয়ার বিএনপিকে ভোট দিবে বাংলাদেশর মানুষ।’