বিচিত্র আমাদের দেশ ও দেশের মানুষ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

বিচিত্র আমাদের দেশ ও দেশের মানুষ

প্রকাশিত: ৮:০৭ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৩, ২০২০

বিচিত্র আমাদের দেশ ও দেশের মানুষ

এনামুল হক লিলু: গত ১৮ তারিখ থেকে প্রায় প্রতিদিনই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পড়তেছি, অনেকের লিখা, সরকার কেন লকডাউন দিচ্ছে না? উনারাই লিখেছেন গরীব দিন-মজুর মানুষ গুলোর অবস্থা তাহলে কি হবে? কেউ কেউ সমাধানও দিচ্ছেন, আশেপাশে থাকা ধনিরা এদের দায়িত্ব নিলেই হয়ে যাবে। আজ থেকে আবার অনেকে খুজতে বের হয়েছেন দেশের শীর্ষ ধনিদের নাম উল্যেখ করে, উনারা গেল কই? আরেক টিম সোচ্চার, মন্ত্রীদের ভুল ধরা নিয়ে, তারা মন্ত্রীদের মুখ থেকে কথা বের হওয়া মাত্রই জান কুরবান করে পন্ডিতী জাহির করে নোট দিয়ে, ষ্টেটাস মারে কার আগে কে দেখাতে পারে যে, মন্ত্রীর ভুল ধরছি। যেভাবে ষ্টেটাস দেয় মনে হয় যেন, ভেক্সিন আবিষ্কার করে ফেলছে।

নতুন আবিষ্কার এর অন্যতম হল, কানাডার প্রধানমন্ত্রীর মত বাংলার অনেক পন্ডিত প্রধানমন্ত্রী চায়,কিন্তু কানাডার জনগণের আচরণ আয়ত্ত করতে মন চায় না। এখানেই শেষ না, গতকাল সারাদিন দেখলাম ইটালির প্রধানমন্ত্রীর ভাষন এর ভুল বাংলা ব্যখ্যার ষ্টেটাস আমাদের দেশ থেকেই বেশি দেয়া হয়েছে। এত পন্ডিতি কেন? যে যার মত শুধু লাইক কমেন্টস পাওয়ার জন্য প্রতি মুহুর্তে, মনের রং মিশিয়ে করোনা এল গেল বলে ষ্টেটাস দিয়ে ভিতির সঞ্চার করে,এই শ্রেনীর পন্ডিতও দেশে বা দেশের বাইরে দেশী কম নয়।আবার লক্ষনীয় বিষয় হল নিজের মন থেকে পজেটিভ লিখবে এমন মানুষের সংখ্যা কম, কিন্তু কারো লিখা কপি নকল করে খরশব কমেন্টস আদায় করার উস্তাদরা কখনও থেমে নেই। আমার ক্ষুদ্র চিন্তা -সরকার দেশ ও দেশের মানুষ নিয়ে অবশ্যই ভাবে, লক ডাউন প্রয়োজনে করবে,এটা মিছিল করে দাবি আদায়ের বিষয় নয়।আপনি আমি চিন্তা করছি গরীব দিন মজুরের কি হবে? এর বাইরেও কথা আছে, যাদের ঘর নাই তাদের লক ডাউন কোথায় হবে? মিঃ পন্ডিত বউ নিয়া ৩ মাসের বাজার করার সময় কাউকে ১ কেজি পিয়াজ দিয়েছ? লক ডাউন এর পর বাইরে দাড়িয়ে থাকা গরীব অসহায় পরিবার টা ডেকে ঘরে আনার মন বা সামর্থ আপনার আছে?

আর হা, আপনার আশেপাশে যদি কিছুদিনের মধ্যে কোন প্রবাসী একা অথবা স্বপরিবারে দেশে এসে থাকেন,উনার আপনার এবং দেশের স্বার্থে প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করে উনাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার ব্যবস্থা করে দিন।অবশ্যই আক্রান্ত দেশ থেকে আসা লোক হতে হবে। মন্ত্রী দেশের মানুষকে সাহস দিয়ে কথা বললে আপনার ষ্টেটাস লম্বা হয়ে যায়, তাহলে কি বলা উচিত? ভয় দেখাবে? বলবে এটা সামলানো সম্ভব না? পরে দেশের মানুষ কি কানাডা গিয়ে সাহস পাবে? কানাডার প্রধানমন্ত্রী বর্তমান বিশ্বের অন্যতম পছন্দের লিডার, সন্দেহ নাই।সে যখন হেটে হেটে জনতার সাথে হাত মিলায়,দু’জন মানুষ একসাথে ভির করে না,কোন সিনক্রিয়েট করে না, সিকিউরিটি লাগে না,আমাদের দেশের জনতা এমন আচরণ করবে আপনি হলফ করে বলতে পারেন?

কানাডার প্রধানমন্ত্রী যখন তার জনগণকে ঘরে থাকতে বলেছে, তখন আরমি পুলিশ প্রয়োজন হয় নাই,মানুষ এমন ভাবেই অভ্যস্ত। আমরা কি কখনো মানত করি কানাডার জনগণের মত সুবোধ হব? হা আমরা আমাদের মত, তারা তাদের মত।প্রধানমন্ত্রী ট্রুডো আমাদের প্রধানমন্ত্রীরও অত্যন্ত পছন্দের মানুষ, যে কি না আমাদের প্রধানমন্ত্রীকেও মায়ের মতই সম্মান করেন। করোনা একটা ভয়ানক সংক্রামক ব্যাধি, মনের অজান্তেই আমরা আতংকিত, আমাদের উচিত খুব বেশি আতংকিত না হয়ে অধিকতর সচেতন হওয়া, সম্ভব হলে অন্যকেও সতর্ক করা,তবে তা অবশ্যই ঘরে থাকার মধ্য দিয়ে, লোক সমাগম করে নয়।আর আল্লাহর ওয়াস্তে কেউ না জেনে ডাক্তারী বানী বা জন সচেতনতামূলক সরকারের কোন কাজে বিরুধীতা করে বিব্রত করবেন না। আমি ঘরে থাকছি, পরিবার ঘরে রাখছি, ঘন ঘন হাত ধোয়া সহ যত সম্ভব পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকছি, জরুরী প্রয়োজনে বের হলে মাস্ক পরতেছি।আপনি নিশ্চয়ই ইউনিসেফ এর পরামর্শ সহ নিরাপদ থাকার সব নিয়ম মেনে চলছেন।সমস্যা চিরস্থায়ী হবে না ইনশাল্লাহ, ভয়ে কাতর নয় সচেতনতায় অতিক্রম করুন। আল্লাহ আমাদের সহায় হোন।
লেখক : সহ সভাপতি, জাতীয় শ্রমিকলীগ, সিলেট মহানগর

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল