বিজিবি-বিএসএফের রাখি বন্ধন – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

বিজিবি-বিএসএফের রাখি বন্ধন

প্রকাশিত: ৪:৫৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৬

বিজিবি-বিএসএফের রাখি বন্ধন

188871536551ভারতের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম সামাজিক উৎসব রাখি বন্ধন উপলক্ষে পঞ্চগড়ে এই প্রথম বাংলাবান্ধা সীমান্তে বিজিবি ও বিএসএফের মধ্যে সম্প্রীতির রাখি বন্ধন উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার বাংলাবান্ধা সীমান্তের ওপারে ফুলবাড়ি বিএসএফ ক্যাম্পের সামনে ডাব গ্রাম ফুলবাড়ি ব্লক তৃণমূল যুব কংগ্রেস এই রাখি বন্ধন উৎসবের আয়োজন করে।
বাংলাদেশিদের কপালে তিলকের ফোটা দিয়ে হাতে রাখি বেঁধে দেন ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সদস্যরা। এসময় বাংলাদেশের পক্ষ থেকে তাদের নানা উপঢৌকন প্রদান করা হয় এবং মিষ্টিমুখ করানো হয়। অনুষ্ঠানে পশ্চিম বঙ্গের অনগ্রসর শ্রেণী কল্যাণ মন্ত্রী জেমস খুজুর, শিলিগুড়ি বিএসফের ডিআইজি আরসি সিং, পঞ্চগড় ১৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আল হাকিম মোহাম্মদ নওশাদ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রনাথের বাংলার মাটি বাংলার জল গানটি গাওয়া হয়।
এর আগে তেঁতুলিয়া উপজেলার দেবনগর ইউনিয়নের সুকাতি সীমান্তে সুকানি সীমান্তের ৭৪৪ নং পিলারের কাছে কলকাতার দৈনিক জাগরণ পত্রিকার পক্ষ থেকে শিলিগুড়ি হিন্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা বিজিবি সদস্যদের হাতে রাখি পরিয়ে দেয়। এরপর উপস্থিত ভারতীয় নাগরিকরা বিজিবি সদস্য ও বাংলাদেশিদের ভাইফোটা দিয়ে মিষ্টিমুখ করায়। এ সময় বিজিবির পক্ষ থেকেও তাদের নানা উপঢৌকন প্রদান করা হয়।

আয়োজকরা জানান, ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোটা যমের দুয়ারে পড়ল কাটা এই প্রার্থনা নিয়েই ভারত ও বাংলাদেশের ভাইদের মধ্যে সম্প্রীতির রাখি বন্ধন হলো তা দুদেশের সম্পর্ককে আরো দৃঢ় করবে।
পঞ্চগড় ১৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আল হাকিম মোহাম্মদ নওশাদ জানান, প্রতিবেশী দেশ ভারতের সাথে আমাদের সংস্কৃতির মিল রয়েছে। এই রাখি বন্ধনের মাধ্যমে এই সম্প্রীতি আরো জোরদার হলো।
উল্লেখ, প্রতিবছরের শেষ পূর্ণিমায় প্রাচীন কাল থেকে ভারতে রাখি বন্ধন উৎসব পালিত হয়ে আসছে।