……বিন্ম্র শ্রদ্ধা…… সুলতান মোহাম্মদ মনসুর – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

……বিন্ম্র শ্রদ্ধা…… সুলতান মোহাম্মদ মনসুর

প্রকাশিত: ৯:২৬ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৪, ২০১৬

sultan monsurজাতীয় নেতা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডাকসু সাবেক ভিপি ও সাবেক সংষদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুরের ফেইসবুক থেকে সংগৃহিত পেষ্ট:
১৫ই আগষ্ট ,কী নিষ্ঠুর, কী ভয়াল, কী ভয়ঙ্কর- সেই রাত। যা স্বাধীন বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে অশ্রুভেজা, কলঙ্কময় রাতের কথা।বাংলার আকাশ-বাতাস প্রকৃতিও ধূলিকণা ভুলতে পারেনি। ভুলতে চায়নি, ভুলতে পারবে না। কেননা রক্তঝরা এই দিনটিতে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পরিবার-পরিজনসহ নৃশংসভাবে শহীদ হন কাপুরুষ দের হাতে ধানমণ্ডির ঐতিহাসিক ৩২ নম্বরের নিজ বাসভবনে। এই দিনে আগস্ট আর শ্রাবণ মিলেমিশে একাকার হয়েছিল বঙ্গবন্ধুর রক্ত আর আকাশের মর্মছেঁড়া অশ্রুর প্লাবনে। কাল থেকে কালান্তরে ঝরবে এ শোকের অশ্রু। সমগ্র জাতিকে যিনি গনতন্ত্র ও বাঙালি জাতীয়তাবাদের প্রেরণায় প্রস্তুত করেছিলেন পাকিস্থানী শাসক শ্রেনীর- বিরুদ্ধে সশস্ত্র সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়তে। তিনি ত চিরঞ্জীব এ জাতির চেতনায়।আর তাই বঙ্গবন্ধু কেবল একজন ব্যক্তি নন, এক মহান আদর্শের নাম। যে আদর্শে উজ্জীবিত হয়েছিল গোটা দেশ। গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র ধর্মনিরপেক্ষ আর বাঙালি জাতীয়তাবাদ, দর্শনে দেশের স্বাধীনতার সংবিধানও প্রণয়ন করেছিলেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব। শোষক আর শোষিতে বিভক্ত সেদিনের বিশ্ববাস্তবতায় বঙ্গবন্ধু ছিলেন শোষিতের পক্ষে। যিনি বিশ্বাস করতেন “এই বাংলার মানুষকে কখনো দাবিয়ে রাখা যাবে না ।
14021521_631840990324500_493964664869206999_nযদি তাই হয় তাহলে এ মহান নেতার স্বপ্নের দেশে আজ গন মানুষ কেন ভোট ও ভাতের অধিকার এবং আইনের শাষন থেকে বঞ্ছিত ? গনতন্ত্র প্রতিষ্টার সংগ্রামের মহানায়ক এর প্রিয় বাংলায় গনতন্ত্র ও মুক্ত মত প্রকাশের পথ কেন রুদ্ধ ?সন্ত্রাস ,গুপ্ত হত্যা ,ঘূম ,খুন আর নিরাপত্তাহীন জনজীবন কি বঙ্গবন্ধুর আত্মাকে কষ্ট দিচ্ছেনা ?কেন বাংলাদেশ আজ রাজনৈতিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিক ভাবে পরিকল্পিত গভীর সঙ্কঠের মধ্যে নিমজ্জিত? “রাজনীতির মুকুট” জাতির জনক কে রাজনৈতিক পন্য বানিয়ে ব্যক্তি ও গুষ্টি সার্থে পরিস্তিতি কে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ কে অকার্যকর রাষ্ট্র বানানোর ষড়যন্ত্র করছে কারা? হে বীর বাঙ্গালী, হে দেশপ্রেমিক জনগন , জেগে উঠো, তাদের বিরুদ্ধে ,যারা আমাদের ইতিহাস কে কলঙ্কিত করেচলেছে ,গনতন্ত্র কে হত্যা করছে । জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান,জাতীয় চার নেতা সহ এদেশের স্বাধীনতা ও গনতন্ত্র প্রতিষ্টা আন্দোলনের সকল শহীদানের আত্মার শান্তির জন্য হলেও তাদের বয়কট করো যারা এই বাংলার সোনালী সুদিন নিয়ে খেলতে চায়। তাই আসুন সবাই মিলে অস্তিরতা দুর্নীতি,ও সংঘাত মুক্ত বাংলাদেশ বিনির্মানে মুক্তি সংগ্রামের চেতনার সকল দল ও মতের অংশগ্রহনে জাতীয় ঐক্যের ভিত্তিতে রাজনৈ্তিক জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসবাদের কবর রচনা করে জনগনের সরকার প্রতিষ্টার জন্য ঐক্যবদ্য হই।
পরিশেষে বলি, ৭৫রের এই নারকীয় হত্যাকান্ড কে মেনে না নিয়ে যারা সেদিন বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকির নেত্রিত্বে প্রতিশোধ আন্দোলনে অংশগ্রহন করেছিলেন এবং আমাদের যে সকল সহযুদ্ধা রা সেদিন শহীদ হয়েছিলেন এমন কি পরবর্তীকালে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার সহ গনতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্টা ও এই দেশের সার্থে এ পর্যন্ত যারা জীবন দিয়ে গেছেন তাদের আত্মার শান্তি কামনা করি এবং প্রত্যাশা করি বাক্তিগত,, রাজনৈতিক সামাজিক , অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক,জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রতিটি বাঙ্গালী যেন আত্মমর্যাদার সাথে সাফল্য ও যুগ্যতার স্বাক্ষর রেখে যাওয়ার সুযোগ পায়। আর এটাই হউক ১৫ই আগষ্টের জাতীয় শোক দিবসের শোক কে শক্তি তে রুপান্তরিত করে এগিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার ।
জয় বাংলা … জয় বঙ্গবন্ধু … জয় হউক বংলার জনগনের